করিম জুট মিলসে চাকা আবার ঘুরবে কি

  • বাংলাদেশ পাটকল কর্পোরেশনের অধীনস্থ ২৬টি পাটকলের মধ্যে ঢাকা অঞ্চলের ৭টির একটি এই করিম জুট মিলস। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বাংলাদেশ পাটকল কর্পোরেশনের অধীনস্থ ২৬টি পাটকলের মধ্যে ঢাকা অঞ্চলের ৭টির একটি এই করিম জুট মিলস। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বাংলাদেশ পাটকল কর্পোরেশনের অধীনস্থ ২৬টি পাটকলের মধ্যে ঢাকা অঞ্চলের ৭টির একটি এই করিম জুট মিলস। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বাংলাদেশ পাটকল কর্পোরেশনের অধীনস্থ ২৬টি পাটকলের মধ্যে ঢাকা অঞ্চলের ৭টির একটি এই করিম জুট মিলস। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • ৫০ একর জমির উপর প্রতিষ্ঠিত করিম জুট মিলসে ছিল ৩,৬৪২ জন শ্রমিক। এরমধ্যে ২,২১৫ জন স্থায়ী শ্রমিক ছিলেন, যারা সবাই কাজ হারিয়েছেন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    ৫০ একর জমির উপর প্রতিষ্ঠিত করিম জুট মিলসে ছিল ৩,৬৪২ জন শ্রমিক। এরমধ্যে ২,২১৫ জন স্থায়ী শ্রমিক ছিলেন, যারা সবাই কাজ হারিয়েছেন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • ৫০ একর জমির উপর প্রতিষ্ঠিত করিম জুট মিলসে ছিল ৩,৬৪২ জন শ্রমিক। এরমধ্যে ২,২১৫ জন স্থায়ী শ্রমিক ছিলেন, যারা সবাই কাজ হারিয়েছেন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    ৫০ একর জমির উপর প্রতিষ্ঠিত করিম জুট মিলসে ছিল ৩,৬৪২ জন শ্রমিক। এরমধ্যে ২,২১৫ জন স্থায়ী শ্রমিক ছিলেন, যারা সবাই কাজ হারিয়েছেন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করিম জুট মিলসে ২৩৬টি হেসিয়ান লুম দিয়ে মাসে গড়ে ২৮৩.২৫ মেট্রিক টন পাটপণ্য উৎপন্ন হত। শ্রমিকরা বলছেন, আধুনিক যন্ত্র সংযোজন করলে সরকারি পাটকলগুলো লাভজনক থাকত, তাহলে আর বন্ধ করার প্রয়োজন হত না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করিম জুট মিলসে ২৩৬টি হেসিয়ান লুম দিয়ে মাসে গড়ে ২৮৩.২৫ মেট্রিক টন পাটপণ্য উৎপন্ন হত। শ্রমিকরা বলছেন, আধুনিক যন্ত্র সংযোজন করলে সরকারি পাটকলগুলো লাভজনক থাকত, তাহলে আর বন্ধ করার প্রয়োজন হত না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করিম জুট মিলসে ২২২ টি সেকিং লুম দিয়ে গড়ে মাসিক উৎপাদন ক্ষমতা ছিল ৭৯৯.২৫ মেট্রিক টন। কিন্তু বর্তমানে তা এখন সবই বন্ধ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করিম জুট মিলসে ২২২ টি সেকিং লুম দিয়ে গড়ে মাসিক উৎপাদন ক্ষমতা ছিল ৭৯৯.২৫ মেট্রিক টন। কিন্তু বর্তমানে তা এখন সবই বন্ধ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করিম জুট মিলসে ২২২ টি সেকিং লুম দিয়ে গড়ে মাসিক উৎপাদন ক্ষমতা ছিল ৭৯৯.২৫ মেট্রিক টন। কিন্তু বর্তমানে তা এখন সবই বন্ধ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করিম জুট মিলসে ২২২ টি সেকিং লুম দিয়ে গড়ে মাসিক উৎপাদন ক্ষমতা ছিল ৭৯৯.২৫ মেট্রিক টন। কিন্তু বর্তমানে তা এখন সবই বন্ধ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করিম জুট মিলসে ৬২টি সিবিসি লুম দিয়ে গড়ে মাসিক উৎপাদন ক্ষমতা ছিল ১৪৮.৭৫ মেট্রিক টন। বন্ধ থাকায় এখন কারখানায় উৎপাদন নেই। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করিম জুট মিলসে ৬২টি সিবিসি লুম দিয়ে গড়ে মাসিক উৎপাদন ক্ষমতা ছিল ১৪৮.৭৫ মেট্রিক টন। বন্ধ থাকায় এখন কারখানায় উৎপাদন নেই। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করিম জুট মিলসে প্রধানত উৎপাদন হত কাপড় ও চটের ব্যাগ; যার কোনোটি এখন আর উৎপাদন হয় না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করিম জুট মিলসে প্রধানত উৎপাদন হত কাপড় ও চটের ব্যাগ; যার কোনোটি এখন আর উৎপাদন হয় না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করিম জুট মিলসে প্রধানত উৎপাদন হত কাপড় ও চটের ব্যাগ; যার কোনোটি এখন আর উৎপাদন হয় না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করিম জুট মিলসে প্রধানত উৎপাদন হত কাপড় ও চটের ব্যাগ; যার কোনোটি এখন আর উৎপাদন হয় না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • সরকারি ঘোষণায় বন্ধ হওয়ার পর থেকে ধুলো জমতে শুরু করেছে করিম জুট মিলসের যন্ত্রাংশে। কবে নাগাদ আবার উৎপাদন শুরু হবে তার ঠিক নেই, ততদিন এভাবেই পড়ে থাকবে এসব যন্ত্র। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    সরকারি ঘোষণায় বন্ধ হওয়ার পর থেকে ধুলো জমতে শুরু করেছে করিম জুট মিলসের যন্ত্রাংশে। কবে নাগাদ আবার উৎপাদন শুরু হবে তার ঠিক নেই, ততদিন এভাবেই পড়ে থাকবে এসব যন্ত্র। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • সরকারিভাবে বন্ধ ঘোষণার পর শ্রমিকহীন করিম জুট মিলসে এখন শূন্যতার হাহাকার। নেই মেশিনের ঝনঝনানি, নেই শ্রমিকদের কলরব। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    সরকারিভাবে বন্ধ ঘোষণার পর শ্রমিকহীন করিম জুট মিলসে এখন শূন্যতার হাহাকার। নেই মেশিনের ঝনঝনানি, নেই শ্রমিকদের কলরব। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • সরকারিভাবে বন্ধ ঘোষণার পর শ্রমিকহীন করিম জুট মিলসে এখন শূন্যতার হাহাকার। নেই মেশিনের ঝনঝনানি, নেই শ্রমিকদের কলরব। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    সরকারিভাবে বন্ধ ঘোষণার পর শ্রমিকহীন করিম জুট মিলসে এখন শূন্যতার হাহাকার। নেই মেশিনের ঝনঝনানি, নেই শ্রমিকদের কলরব। ছবি: মাহমুদ জামান অভি