‘দারুণ শিক্ষা হয়েছে’, সিরিজ হেরে বললেন ডমিঙ্গো

বিশ্বকাপের আগে এখনও অনেক কাজ করার বাকি, বললেন বাংলাদেশ কোচ।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 August 2022, 04:36 AM
Updated : 8 August 2022, 04:36 AM

মিরপুর থেকে চট্টগ্রাম, জিম্বাবুয়ে থেকে দক্ষিণ আফ্রিকা হয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের জয়রথ ছুটছিল। টানা ৫ সিরিজ জয়ের পর তা থমকে গেল আরেক দফায় জিম্বাবুয়ে গিয়ে। একটি পরাজয়েই তাই দলকে কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে চান না রাসেল ডমিঙ্গো। বরং আগামী বিশ্বকাপে তাকিয়ে এই হার থেকে শিক্ষার অনেক কিছু দেখছেন বাংলাদেশ কোচ।

ওয়ানডে ক্রিকেটে দারুণ ফর্মে থাকা বাংলাদেশ গত মাসেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে সিরিজ জিতেছে ৩-০ ব্যবধানে। এবার জিম্বাবুয়ে সফরেও তিন ওয়ানডেতে জয় ছিল প্রত্যাশিত। এবারের আগে গত ৯ বছরে জিম্বাবুয়ের কাছে কোনো ওয়ানডে ম্যাচই হারেনি বাংলাদেশ। কিন্তু এবার চমকে দিয়েছে জিম্বাবুয়ে। অধিনায়কসহ দলের অভিজ্ঞ দুই ব্যাটসম্যান ও মূল দুই পেসারকে ছাড়াই তারা সিরিজ জিতে গেছে প্রথম দুই ম্যাচেই।

জিম্বাবুয়েকে হালকা ভাবে নেওয়ার কোনো ব্যাপার বাংলাদেশ দলে ছিল না বলেই দাবি করলেন কোচ। দ্বিতীয় ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি কৃতিত্ব দিলেন জিম্বাবুয়ে দলকে ও দুই ম্যাচে দুটি সেঞ্চুরি করা সিকান্দার রাজাকে।

“আত্মতুষ্টির কোনো ব্যাপার ছিল না দলে। কারণ, আমরা জানতাম নিজেদের কন্ডিশনে ওরা কতটা বিপজ্জনক। গত বছর আমরা ৩-০তে জিতলেও দুটি ম্যাচে জোর লড়াই হয়েছিল। আত্মতুষ্টি তাই কখনোই আসেনি আমাদের।”

“জিম্বাবুয়েকে কৃতিত্ব দিতে হবে, বিশেষ করে সিকান্দার রাজাকে। অসাধারণরকম ভালো খেলছে সে। চাপের মধ্যে দুর্দান্ত দুটি সেঞ্চুরি করে। সে ক্যারিয়ারের সেরা ফর্মে আছে। চারটি শতরান হয়েছে ওদের। ওই ব্যাটসম্যানদের কৃতিত্ব দিতে হবে। ওরা আমাদের উড়িয়ে দিয়েছেন এই দুটি ম্যাচে।”

সিরিজ হারলেও ওয়ানডে দলকে সমালোচনায় জর্জরিত করতে নারাজ ডমিঙ্গো। এই হার থেকে তারা অনেক কিছু শিখেছেন বলেও দাবি তার। সেই শিক্ষা থেকেই দলকে তৈরি করতে চান আগামী বছরের নভেম্বরে ভারতে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপের জন্য।

“দেখুন, গত বছর দেড়েকের পারফরম্যান্সে ওয়ানডে দলের সমালোচনা করা কঠিন। অসাধারণ কিছু ফল, দারুণ কিছু জয় ওরা পেয়েছে। তবে অনেক কাজ করার বাকি আছে ব্যাটিং ও বোলিংয়ে। জিম্বাবুয়ের চারটি শতরান আছে, আমাদের একটিও নেই। আমাদের ৩০, ৪০ রানের ইনিংস আছে, ৫০ আছে। কিন্তু শতরান করতে হবে, ম্যাচ জেতানো ইনিংস লাগবে।”

“কোচিং স্টাফ হিসেবে আমাদের জন্য ও ক্রিকেটারদের জন্য দারুণ কিছু শিক্ষা হয়েছে। বিশ্বকাপের এখনও প্রায় বছর দেড়েক সময় বাকি আছে। সৌভাগ্যবশত, এই খেলাগুলোর কোনো পয়েন্ট নেই। আমাদের জন্য তাই এটিকে দারুণ শিক্ষণীয় অভিজ্ঞতা হিসেবে নিতে হবে এই সিরিজ।”

দুই ম্যাচের পর চলতি সিরিজে দুই দিনের বিরতি। বুধবার হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর চেষ্টায় মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক