নিজের জায়গা ধরতে চেয়েছিলেন সৌম্য

বিচরণ করতে ভালো লাগে টপ অর্ডারে। কিন্তু কখনও নিজের গন্তব্য খুঁজে না পাওয়া, কখনও দলের চাওয়া মিলিয়ে পছন্দের জায়গাটা হারিয়ে ফেলেছিলেন সৌম্য সরকার। এবার সেই প্রিয় পজিশনে খেলেই করেছেন রান। তাতেই ফিরেছে আশা। এবার আর জায়গাটা হারাতে চান না এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 9 March 2020, 04:59 PM
Updated : 10 March 2020, 10:58 AM

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে দুর্দান্ত ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা হয়েছেন সৌম্য। তিন নম্বরে নেমে খেলেছেন ৩২ বলে অপরাজিত ৬২ রানের বিধ্বংসী ইনিংস, এই সংস্করণে যা তার ক্যারিয়ার সেরা।
 
বাংলাদেশের সবশেষ টি-টোয়েন্টি সিরিজ ছিল পাকিস্তানে। সেখানে সৌম্য প্রথম ওয়ানডেতে খেলেছিলেন ছয়ে, পরেরটিতে সাতে। দুই ম্যাচেই তিনি ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন ১৮তম ওভারে, প্রভাব রাখার সুযোগ খুব বেশি ছিল না।
 
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সোমবার আবার তাকে উঠিয়ে আনা হয় তিনে। সৌম্য প্রতিদান দিয়েছেন ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলে। ম্যাচের পর জানালেন, সুযোগটি তিনি হারাতে চাননি।
 
“আমি তো সবসময় টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানই। দলের প্রয়োজনে নিচে ব্যাট করতে হয়েছে। চেষ্টা করেছি যে, যখন যেখানে খেলি, নিজেকে প্রমাণ করার। অনেক দিন পর আজকে তিনে ব্যাট করেছি। চাওয়া ছিল যেন নিজের জায়গাটা আবার ধরতে পারি। সেটিই মাথায় ছিল।”

পাকিস্তান সফরের আগে ভারত সফরে তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলেছিল বাংলাদেশ। সেই সিরিজে তিনে খেলানো হয়েছিল সৌম্যকে। প্রথম ম্যাচে ৩৯ করে আউট হয়েছিলেন তিনি, পরের ম্যাচে করেছিলেন ২০ বলে ৩০। শেষ ম্যাচে আউট হয়ে যান প্রথম বলেই।
সেই সিরিজে বড় ইনিংস খেলতে পারলে জায়গা হারাতে হতো না, উপলব্ধি করতে পেরেছেন সৌম্য। এবার আর তাই আগের ভুল করতে চান না।
“পাকিস্তানে টপ অর্ডারে সুযোগ পাইনি। ভারতে তিনেই খেলেছিলাম, ওখানে ৩০-৪০ রান যা করেছিলাম, সেগুলো বড় করতে পারলে হয়তো পাকিস্তানে নিজের জায়গায় থাকতে পারতাম। তো চেষ্টা করছি ধরে রাখার, যেন পরের ম্যাচটি এখানেই খেলতে পারি।”
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এই ম্যাচের আগে ৪৮ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে তার ফিফটি ছিল কেবল ১টি। তবে সাম্প্রতিক সময়ে ২০ ওভারের ক্রিকেটে তার ব্যাটিংয়ে উন্নতির ছাপ কিছুটা হলেও দেখা যাচ্ছে। গত বিপিএলে করেছেন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫০৬ রান। এরপর এবারের এই ইনিংস।
নিজের খেলার ধরনে একটু পরিবর্তন আনার সুফল মিলছে, ধারনা সৌম্যর।
“চেষ্টা করছি আর কী (উন্নতির)… আগে স্ট্রাইক রেট অনেক বেশি রাখার চেষ্টা করতাম। এখনও চেষ্টা করি, তবে সব ওভারে শট খেলতে যাই না। বোলার পছন্দ করে বা পরিস্থিতি অনুযায়ী চেষ্টা করি।”
তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক