সেঞ্চুরিতে চমকে দিলেন ইয়াসির

বল হাতে সময়টা ভালো যাচ্ছে না। রান বিলিয়ে যাচ্ছেন অকৃপণ হাতে। বোলিংয়ের সেই ব্যর্থতাই যেন ব্যাট হাতে পুষিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন ইয়াসির শাহ। আট নম্বরে নেমে লোয়ার অর্ডারের সঙ্গীদের নিয়ে লড়াই চালিয়ে গেলেন অস্ট্রেলিয়ান বোলারদের তোপ সামলে। প্রতিরোধের সেই পথচলায় করে ফেললেন সেঞ্চুরি! 

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Dec 2019, 11:39 AM
Updated : 1 Dec 2019, 01:35 PM

বোলিং ব্যর্থতার সিরিজে আগের টেস্টেও ব্যাট হাতে কিছুটা লড়াই করেছিলেন ইয়াসির। ফিফটি যদিও করতে পারেননি। ফিফটি ছিল না ৩৬ টেস্টের ক্যারিয়ারেই। সেই ইয়াসির এবার উপহার দিলেন সেঞ্চুরির বিস্ময়। অ্যাডিলেইড টেস্টের তৃতীয় দিনে এই লেগ স্পিনার ব্যাট হাতে করেছেন ১১৩!

স্বীকৃত যে কোনো পর্যায়ের ক্রিকেটেই এটি তার প্রথম শতরান। ২০০৬ সালে কামরান আকমলের পর এই প্রথম পাকিস্তানের কোনো ব্যাটসম্যান আট নম্বরে নেমে পেলেন তিন অঙ্কের দেখা।  ভারতের বিপক্ষে করাচি টেস্টে আকমলের ব্যাট থেকেও এসেছিল ১১৩ রান।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আট নম্বর বা এর নীচে নামা ব্যাটসম্যানের এটি সপ্তম। ইয়াসিরের আগে সবশেষ ২০১৭ সালে রাঁচি টেস্টে তিন অঙ্ক ছুঁয়েছিলেন ভারতের কিপার-ব্যাটসম্যান ঋদ্ধিমান সাহা।

ইয়াসিরের সেঞ্চুরি কতটা অপ্রত্যাশিত, সেটির ধারণা পাওয়া যায় আরেকটি তথ্য থেকে। টেস্ট ক্রিকেটের সুদীর্ঘ ইতিহাসে সেঞ্চুরির স্বাদ পাওয়া ব্যাটসম্যানদের মধ্যে তার চেয়ে কম ব্যাটিং গড় আছে কেবল জেরোম টেইলরের (১২.৯৬)। অ্যাডিলেইডের ইনিংসের পর তার গড় ১৪.০৬। সেঞ্চুরির আগে গড় ছিল কেবল ১২!

ইয়াসির আর বাবর মিলে সপ্তম উইকেটে যোগ করেছেন ১০৫ রান, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সপ্তম উইকেটে যা পাকিস্তানের সর্বোচ্চ। নবম উইকেটে মোহাম্মদ আব্বাসের সাথে ইয়াসির তোলেন ৮৭ রান। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নবম উইকেটে এটিও তাদের সর্বোচ্চ জুটি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক