নিজেকে জেলখানার কয়েদি মনে হচ্ছে সাইফের

একজন খেলোয়াড়ের জন্য মাঠের বাইরে থাকার চেয়ে বড় শাস্তি বুঝি আর নেই। সেই ‘সাজা’ যেন অনুভব করছেন মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন। ঘরোয়া ক্রিকেটের মৌসুম শুরু হয়ে গেছে। অনেক সীমাবদ্ধতা ও প্রতিকূলতার মধ্যেও যতটা সম্ভব উৎসবের আবহে জাতীয় লিগে খেলছেন ক্রিকেটাররা। কিন্তু চোট নিয়ে মাঠের বাইরে সাইফ। তার কাছে এটি মনে হচ্ছে জেলে বন্দী থাকার মতো।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Oct 2019, 01:38 PM
Updated : 16 Oct 2019, 01:38 PM

কিছুদিন আগে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজে খেললেও বড় দৈর্ঘ্যের ম্যাচে খেলার মতো অবস্থায় নেই সাইফ। গত বিশ্বকাপে মাথাচাড়া দিয়ে ওঠা পিঠের চোট তাকে ভোগাচ্ছে এখনও। ব্যথা জেগে ওঠে প্রায়ই। জটিল এই সমস্যা সমাধানে উপায় খুঁজছে বিসিবির চিকিৎসক দল। দেশের বাইরে পাঠানো হবে কিনা, বা কোন উপায়ে সমাধান মেলে, খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সবশেষ অবস্থা বুঝতে মঙ্গলবারও একবার স্ক্যান করানো হয়েছে।

আপাতত সাইফ আছেন বিশ্রামে। বুধবার বিসিবিতে এসেছিলেন চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলতেই। যদিও তার মন পড়ে আছে মাঠে। বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে জাতীয় লিগের দ্বিতীয় রাউন্ড। সাইফের তর সইছে না মাঠে নামতে।

“মন তো চায় কাল থেকেই মাঠে নামি। কিছুটা জেলখানার কয়েদিদের মতো অবস্থা। দেখছি, কিন্তু খেলতে পারছি না। ক্রিকেটারদের জন্য এটি বিরক্তিকর। দুই-এক সপ্তাহ হলে ঠিক আছে, কিন্তু এক মাসের মতো হয়ে যাচ্ছে। এমন সময় সব ক্রিকেটারেরই খারাপ লাগা কাজ করে।”

“তবে এটা জীবনেরই অংশ, খেলতে গেলে ইনজুরি হবে। লম্বা একটা সময় মাঠের বাইরে থাকতে হবে। এটা মানিয়ে নিয়েই চলছি। চেষ্টা করব যত তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে মাঠে ফিরতে পারি। সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে মাঠে নামাই আমার মূল লক্ষ্য।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক