রাশিয়াকে ঘাঁটানো বোকামি হবে, যুক্তরাষ্ট্রকে মেদভেদেভ

রাশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ যুক্তরাষ্ট্রকে হঁশিয়ার করে বলেছেন, ইউক্রেইন যুদ্ধের জেরে রাশিয়ার মতো পারমাণবিক শক্তিধর কোনো দেশকে সাজা দেওয়ার চেষ্টা মানবজাতির অস্তিত্বকেই বিপদে ফেলতে পারে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 July 2022, 07:28 AM
Updated : 7 July 2022, 07:28 AM

ইউক্রেইনে রাশিয়ার হামলা ১৯৬২ সালের পর মস্কোর সঙ্গে পশ্চিমাদের সবচেয়ে গুরুতর সংকটের সূচনা করেছে; ছয় দশক আগে ‘কিউবার মিসাইল’ ক্রাইসিসের সময় বিশ্ব পারমাণবিক যুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে চলে গিয়েছিল বলে সেসময় অনেকে আশঙ্কা করেছিলেন।

মেসেজিং অ্যাপ টেলিগ্রামে বুধবার মেদভেদেভ আদিবাসী আমেরিকান হত্যাযজ্ঞ, জাপানে যুক্তরাষ্ট্রের পারমাণবিক বোমা হামলা এবং ভিয়েতনাম থেকে শুরু করে আফগানিস্তান পর্যন্ত ওয়াশিংটনের একের পর এক যুদ্ধের কথা উল্লেখ করে যুক্তরাষ্ট্রকে বিশ্বজুড়ে ‘রক্ত ঝরানো সাম্রাজ্য’ হিসেবে চিত্রিত করেছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

ইউক্রেইনে রাশিয়ার কর্মকাণ্ড তদন্তে আদালত বা ট্রাইব্যুনালের ব্যবহার নিরর্থক হবে এবং এটি বিশ্বব্যাপী ধ্বংসযজ্ঞের ঝুঁকি তৈরি করবে বলেও মত রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদের বর্তমান ডেপুটি চেয়ারম্যান মেদভেদেভের।

“বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম পারমাণবিক শক্তিধর একটি দেশকে সাজা দেওয়ার চিন্তা হাস্যকর এবং তা (এই পদক্ষেপ) সম্ভবত মানবজাতির অস্তিত্বের জন্যই হুমকি সৃষ্টি করতে পারে,” বলেছেন তিনি।

বিশ্বে যত পারমাণবিক ওয়ারহেড আছে, তার প্রায় ৯০ শতাংশই যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার নিয়ন্ত্রণে। ফেডারেশন অব আমেরিকান সায়েন্টিস্টসের হিসাব অনুযায়ী, দেশদুটির প্রত্যেকটির অস্ত্রভাণ্ডারে ৪ হাজারের মতো ওয়ারহেড আছে।

২০০৮ সাল থেকে ২০১২ পর্যন্ত রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট থাকাকালে মেদভেদেভ নিজেকে পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক ভালো করতে চাওয়া সংস্কারবাদী হিসেবে উপস্থাপন করেছিলেন।

কিন্তু চলতি বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেইনে আক্রমণ শুরুর ঘোষণা দেওয়ার পর থেকে তাকে ক্রেমলিনের কট্টরপন্থিদের মধ্যে অন্যতম সোচ্চার একজন হিসেবে দেখা যাচ্ছে।

মেদভেদেভ যুক্তরাষ্ট্রকে ‘যুদ্ধবাজ’ অভিহিত করে বলেছেন, “আদিবাসী ইন্ডিয়ানদের বিরুদ্ধে জয়ের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া আমেরিকার গোটা ইতিহাসই হচ্ছে বিনাশী রক্তাক্ত যুদ্ধ।”

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বজুড়ে লাখ লাখ মানুষকে হত্যা করেছে, বলেছেন মেদভেদেভ।

ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেইনে রাশিয়ার আক্রমণের পর যুক্তরাষ্ট্র-মস্কো সম্পর্ক স্মরণকালের সবচেয়ে তলানিতে পৌঁছেছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ইউক্রেইনে রাশিয়ার কর্মকাণ্ডকে ‘বেআইনীয় আগ্রাসন’ আর পুতিনকে ‘যুদ্ধাপরাধী’ অ্যাখ্যা দিয়েছেন। ওয়াশিংটন কিইভকে সমানে অস্ত্র সরবরাহও করে যাচ্ছে।

অন্যদিকে রাশিয়া বলছে, তারা প্রতিবেশী দেশটিকে ‘নিরস্ত্রীকরণ’ ও ‘নাৎসিমুক্ত’ করতেই এ ‘বিশেষ সামরিক অভিযানে’ নেমেছে। রাশিয়াকে হুমকি দিতে যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেইনকে ব্যবহার করছে, এমন অভিযোগও করেছেন পুতিন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক