কাশ্মীরের পুলিৎজার জয়ী ফটোসাংবাদিককে বিদেশে যেতে বাধা

জম্মু ও কাশ্মীরের পুলিৎজার পুরস্কার বিজয়ী নারী ফটোসাংবাদিক সানা ইরশাদ মাত্তু ভারতীয় কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে তাকে প্যারিস যেতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 July 2022, 04:21 PM
Updated : 3 July 2022, 04:22 PM

গত শনিবার দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে তিনি ফ্রান্সগামী বিমানে উঠতে চেয়েছিলেন।

‘দ্য হিন্দু’ পত্রিকা জানায়, ওইদিনই এক টুইটে মাত্তু বলেন, ফ্রান্সের ভিসা থাকার পরও তাকে দেশের বাইরে যেতে বাধা দেওয়া হয়েছে।

টুইটে তিনি লেখেন, ‘‘সেরেনদিপিতি আলে গ্রান্ত ২০২০ পুরস্কার পাওয়া ১০ জনের একজন হিসেবে একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন এবং আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে যোগ দিতে আজ আমার দিল্লি থেকে প্যারিসে যাওয়ার কথা ছিল। ফ্রান্সের ভিসা থাকা সত্ত্বেও দিল্লি বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন ডেস্কে আমাকে আটকে দেওয়া হয়েছে।’’

‘‘আমাকে বাধা দেওয়ার কোনও কারণ তারা বলেনি। শুধু বলেছে, আমি আন্তর্জাতিক ভ্রমণে যেতে পারব না।’’

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের যে দলটি ভারতে কোভিড-১৯ মহামারীর ছবি তুলে ২০২২ সালে ফিচার ফটোগ্রাফি বিভাগে পুলিৎজার পুরস্কার জিতেছে, শ্রীনগরের মেয়ে সানা সেই দলের অংশ।

কেনো সানাকে বিমানবন্দরে আটকে দেওয়া হল, সে বিষয়ে জানতে ভারতের সংবাদ মাধ্যম দ্য হিন্দু থেকে জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। কিন্তু তারা কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

শনিবার আল–জাজিরাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সানা বলেছিলেন, ‘‘এটা পাগলামি ছাড়া আর কিছু নয়। কর্মকর্তাদের একজন আমাকে বলেছেন, আমি যেন কাশ্মীর কর্তৃপক্ষ থেকে কারণটা জেনে নিই। কারণ, সেখান থেকেই নির্দেশনা এসেছে। আমি বুঝতে পারছি না, কেন আমাকে থামানো হল।’’

দিল্লি বিমানবন্দর থেকেই টেলিফোনে আল–জাজিরাকে সাক্ষাৎকার দেন সানা। তিনি বলেন, ‘‘আমি খুব হতাশ হয়েছি। দীর্ঘদিন ধরে এ সুযোগের অপেক্ষায় ছিলাম।’’

সানা তার বাতিল হয়ে যাওয়া টিকিট ও পাসপোর্টের ছবি টুইটারে শেয়ার করেছেন।

 
তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক