মার্কিন ক্যাপিটলের দাঙ্গায় ‘যোগ দিতে চেয়েছিলেন ট্রাম্প’

ডনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা যখন মার্কিন ক্যাপিটলে দাঙ্গায় লিপ্ত তখন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক এ প্রেসিডেন্টের নিরাপত্তা রক্ষীরা তাকে সেখানে নিয়ে যাওয়ার আদেশ প্রত্যাখ্যান করলে ট্রাম্প তাকে বহনকারী প্রেসিডেন্সিয়াল লিমুজিনের স্টিয়ারিং হুইল কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন বলে অভিযোগ করেছেন তার এক সাবেক সহযোগী।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 June 2022, 04:20 AM
Updated : 29 June 2022, 06:16 AM

গত বছরের ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটলে হওয়া প্রাণঘাতী হামলা নিয়ে তদন্তকারী যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসনাল কমিটির কাছে মঙ্গলবার দেওয়া সাক্ষ্যে এমনটি বলেছেন ওই সময় হোয়াইট হাউসের চিফ অব স্টাফ মার্ক মেডৌসের শীর্ষ সহযোগী ক্যাসিডি হাচিনসন, জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

হাচিনসন জানিয়েছেন, ওই দিন হোয়াইট হাউসের সামনে ট্রাম্পের জ্বালাময়ী বক্তৃতা শুনতে কিছু সমর্থক এআর-১৫ রাইফেলের মতো অস্ত্র নিয়ে হাজির হলেও এ নিয়ে উদ্বেগ বাতিল করে দেন তৎকালীন প্রেসিডেন্ট, তার বদলে অংশগ্রহণকারীদের মেটাল ডিটেক্টিং ম্যাগনেটোমিটারর্স দিয়ে তল্লাশি বন্ধ করার জন্য নিরাপত্তা রক্ষীদের বলেন তিনি যেন ভিড় আরও বড় দেখায়। 

ছবি: রয়টার্স

“ওইসব বিরক্তিকর ম্যাগগুলো (ম্যাগনেটোমিটারর্স) সরিয়ে নিন, তারা এখানে আমাকে আঘাত করতে আসেনি,’ ওই সকালে ট্রাম্প এমনটি বলেছিলেন বলে তাকে উদ্ধৃত করে জানান হাচিনসন।

মার্কিন সিক্রেট সার্ভিসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, ওই সময় ট্রাম্পের ডেপুটি চিফ অব স্টাফ অপারেশন্স টনি অরনাটো এই কথোপকথনের কথা তাকে বলেছেন বলে হাচিনসন জানিয়েছেন।      

ক্যাপিটলে ট্রাম্পের সমর্থকদের হামলা নিয়ে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে চলমান শুনানির ষষ্ঠ দিনে হাচিনসন এসব কথা বলেন।

দেওয়া সাক্ষ্যে অরনাটোর সঙ্গে তার কথোপকথন উদ্ধৃত করে হাচিনসন বলেন, সিক্রেট সার্ভিসের যে এজেন্ট ক্যাপিটলে দাঙ্গারত সমর্থকদের সঙ্গে যোগ না দিয়ে ট্রাম্পের হোয়াইট হাউসে ফেরা উচিত বলে জোর দেন তিনি তার সঙ্গে বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েন।

ওই সময় ক্যাপিটলে মার্কিন কংগ্রেসের বৈঠকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ডেমোক্র্যাট জো বাইডেনের জয় প্রত্যায়িত করা হচ্ছিল। ২০২০ এর ওই নির্বাচনে কারচুপির মাধ্যমে তাকে হারানো হয়েছে, ট্রাম্পের এই মিথ্যা দাবির ভিত্তিতে তার সমর্থকরা উত্তেজিত হয়ে ক্যাপিটলে চড়াও হয়েছিল।  

“আমি প্রেসিডেন্ট। আমাকে এখনই ক্যাপিটলে নিয়ে যাও,” ট্রাম্প রাগান্বিত হয়ে এমনটি বলেছিলেন বলে দেওয়া উদ্ধৃতিতে জানান হাচিনসন।

তিনি জানান, ট্রাম্প পেছনের আসন থেকে প্রেসিডেন্সিয়াল লিমুজিনের স্টিয়ারিং হুইল দখলে নেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন এবং সিক্রেট সার্ভিসের এক কর্মকর্তার ওপর ক্ষোভে ফেটে পড়েছিলেন।

ছবি: রয়টার্স

ট্রাম্প, যিনি একজন রিপাবলিকান, এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

নিজের সোশাল মিডিয়া অ্যাপ ‘ট্রুথ সোশাল’ এ ট্রাম্প লিখেছেন, “তার মিথ্যা গল্প যে আমি হোয়াইট হাউসের লিমুজিনটিকে ক্যাপিটল ভবনের দিকে ঘুরিয়ে দেওয়ার জন্য স্টিয়ারিং হুইল কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছি, এটি ‘অসুস্থ’ ও প্রতারণামূলক।”   

এক বিবৃতিতে মার্কিন সিক্রেট সার্ভিস বলেছে, তারা প্রতিনিধি পরিষদের কমিটির অনুসন্ধানে সহযোগিতা করছে এবং ‘আজকের (মঙ্গলবার) সাক্ষ্যে যেসব নতুন অভিযোগ উঠে এসেছে সে বিষয়ে রেকর্ড অনুযায়ী কমিটির কাছে’ প্রতিক্রিয়া জানাবে; বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে এমনটি জানানো হয়েছে।

তবে মন্তব্যের জন্য করা রয়টার্সের এক অনুরোধে সিক্রেট সার্ভিস তাৎক্ষণিকভাবে সাড়া দেয়নি।

হাচিনসনের আইনজীবী জোড হান্ট টুইটারে লিখেছেন, “তিনি (হাচিনসন) শপথ অনুযায়ী সাক্ষ্য দিয়েছেন এবং তাকে যা জানানো হয়েছে সেগুলোই বর্ণনা করেছেন। (অন্য) যারা ওই পর্বটির বিষয়ে জানেন তাদের শপথ অনুযায়ী সাক্ষ্য দেওয়া উচিত।”

নিউ ইয়র্ক টাইমস ও এনবিসি সিক্রেট সার্ভিসের বিভিন্ন সূত্রকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, ট্রাম্পের নিরাপত্তা প্রধান রবার্ট এঙ্গেল এবং ওই লিমুজিনের চালক শপথ অনুযায়ী সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছেন। তাদের ভাষ্য হচ্ছে, ট্রাম্প কখনোই স্টিয়ারিং হুইলের দিকে ঝাঁপিয়ে পড়েননি।

হাচিনসন জানিয়েছেন, অরনাটো যখন ঘটনার বর্ণনা দিচ্ছিলেন তখন এঙ্গেলও ওই রুমে ছিলেন।

অনামা সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমস ও সিএনএন জানিয়েছে, অরনাটো নিজেও এই বর্ণনা অস্বীকার করেছেন এবং সাক্ষ্য দেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

৬ জানুয়ারি, ২০২১ এ ক্যাপিটলে ট্রাম্পের সমর্থকদের হামলা চলাকালে চার জনের মৃত্যু হয়েছিল। এদের মধ্যে একজন পুলিশের গুলিতে ও অন্যরা শারীরিক কারণে মৃত্যুবরণ করেছিল। এ ঘটনায় শতাধিক পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছিলেন এবং তাদের মধ্যে একজন ঘটনার পরদিন মারা যান। পরবর্তিতে আরও চার পুলিশ কর্মকর্তা আত্মহত্যা করেন। 

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক