যুক্তরাষ্ট্রের জন্য আজ দুঃখের দিন: বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্ট বহুবছরের ‍পুরোনো গর্ভপাত অধিকার আইনের বিরুদ্ধে রায় দেওয়ার পর প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, এতে তিনি স্তম্ভিত। যুক্তরাষ্ট্রের জন্য আজ এক দুঃখের দিন। দেশ এক চরম ঝুঁকিপূর্ণ এবং বিপজ্জনক পথে পা রাখল।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 June 2022, 06:56 PM
Updated : 24 June 2022, 06:56 PM

হোয়াইট হাউজে সাংবাদিকদের সামনে বাইডেন বলেন, “আদালত আগে যা কখনওই করেনি সেটিই এখন করেছে। আদালত বিশেষত, সাংবিধানিক অধিকার কেড়ে নিয়েছে, যেটি বহু আমেরিকানের কাছে খুবই মৌলিক একটি অধিকার।”

“আদালতের রায় এতটাই নির্মম যে, নারী এবং মেয়েরা একজন ধর্ষকের সন্তানও জন্ম দিতে বাধ্য হবে”, বলেন তিনি।

বাইডেন মনে করেন, ‘রো বনাম ওয়েড’ এমন একটি সিদ্ধান্ত ছিল, যাতে নারীর গর্ভপাতের পথ বেছে নেওয়ার অধিকার এবং রাজ্যের এ বিষয়টি পরিচালনা করার এখতিয়ারের মধ্যে একটা ভারসাম্য বজায় ছিল। আর তা বেশির ভাগ মার্কিনির কাছে ‘গ্রহণযোগ্যও’ ছিল।

কিন্তু এবারের সিদ্ধান্তকে ‘ভুল’ আখ্যা দেন বাইডেন। তবে তিনি বলেন, “এখানেই শেষ নয়।” যুক্তরাষ্ট্রে গর্ভপাতের অধিকার নিয়ে লড়ে যাওয়া মানুষদের “এখনও শেষ কথা বলার বাকি আছে”।

বিবিসি জানায়, বক্তব্যের শেষে বাইডেন সবাইকে এবং সর্বোপরি গর্ভপাত বিতর্কের সব পক্ষকে শান্তি বজায় রেখে বিক্ষোভ-প্রতিবাদ করার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, সহিংসতা গ্রহণযোগ্য নয়। হুমকি, ভয়ভীতি কোনও ভাষা বা কথা নয়।

সবশেষে যুক্তরাষ্ট্রের নারীদের উদ্দেশে বাইডেন বলেন, তিনি জানেন- তারা (নারীরা) এখন অনেক বেশি কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হবেন। এই সময়ে নারীদের কথা শুনবেন, তাদেরকে সমর্থন দেবেন এবং পাশে থাকবেন বলে আশ্বাস দেন বাইডেন।

যেসব রাজ্যে বর্তমানে গর্ভপাতের ওপর কড়াকড়ি আছে সেখানকার নারীরা চাইলে দেশের অন্য জায়গায় গিয়ে এ ব্যাপারে সহায়তা পেতে পারেন বলে জানান বাইডেন।

তিনি বলেন, আমার প্রশাসন এই মৌলিক অধিকারকে সমর্থন করবে। কোনও নারীর ভ্রমণের অধিকারে কোনও কর্মকর্তা হস্তক্ষেপ করতে পারবেন না। তাছাড়া, জন্মনিরোধক বড়ি এবং গর্ভপাতের জন্য ওষুধ যাতে নারীরা পান সেদিকে প্রশাসন লক্ষ্য রাখবে বলে জানান বাইডেন।

সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তের ফলে ‍যুক্তরাষ্ট্রে মাতৃমৃত্যু হার বেড়ে যেতে পারে বলেও বাইডেন আশঙ্কা প্রকাশ করেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক