পাম অয়েল রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা বাড়াতে পারে ইন্দোনেশিয়া

অভ্যন্তরীণ বাজারে রান্নার তেল হিসেবে ব্যবহৃত পণ্যের ঘাটতি দেখা দিলে ইন্দোনেশিয়া পাম অয়েল রপ্তানিতে দেওয়া নিষেধাজ্ঞার আওতা বাড়াতে পারে বলে বিভিন্ন কোম্পানির সঙ্গে হওয়া সরকারের এক বৈঠকের বিবরণীতে উঠে এসেছে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 April 2022, 09:54 AM
Updated : 26 April 2022, 11:01 AM

দেশটি এখন কেবল পাম অয়েলের পরিশোধিত রূপ পাম ওলিন রপ্তানিতেই নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

মঙ্গলবার ইন্দোনেশিয়ার ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা মুজদালিফা মাহমুদ জানান, বৃহস্পতিবার থেকে বিশ্বের সর্ববৃহৎ পাম অয়েল রপ্তানিকারক দেশটি কেবল পরিশোধিত, হালকা ও গন্ধযুক্ত (আরবিডি) পাম ওলিনের রপ্তানি বন্ধ রাখার পরিকল্পনা করছে।

তা সত্ত্বেও কর্তৃপক্ষগুলো এখন অভ্যন্তরীণ বাজারে পরিশোধিত ও অপরিশোধিত পাম অয়েলের সরবরাহের দিকেও কড়া নজর রাখছে, কারণ আরবিডি ওলিন তৈরি করতে এগুলোই কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহৃত হয়; পাম অয়েল কোম্পানিগুলোর সঙ্গে বৈঠকে সরকার এমনটাই জানিয়েছে বলে মাহমুদ নিশ্চিত করেছেন।

“যদি পরিশোধিত পাম অয়েলের ঘাটতি দেখা দেয় তাহলে আরও রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হতে পারে,” সোমবার কোম্পানিগুলোর সঙ্গে বৈঠকে উপস্থাপন করা স্লাইডগুলোর একটিতে এমনটাই বলা হয়েছে।

স্থানীয় বাজারে দামবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টায় শুক্রবার ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো রান্নার তেল ও এর কাঁচামাল রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞার কথা ঘোষণা করেন। অবশ্য সেসময় এই নিষেধাজ্ঞা বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি।

প্রতিকূল আবহাওয়া ও বিশ্বের অন্যতম শস্য উৎপাদক দেশ ইউক্রেইনে রাশিয়ার আক্রমণের কারণে এমনিতেই বিশ্বজুড়ে পণ্য সরবরাহে টান পড়েছে, তার মধ্যে ইন্দোনেশিয়ার এ ঘোষণায় বিশ্বব্যাপী ভোজ্য তেলের দাম চড়তে শুরু করেছে। ইন্দোনেশিয়া যে রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে, তাতে পাম অয়েলজাত অনেক পণ্যই থাকছে বলে প্রথম দিকে ধারণা করা হয়েছিল।

সিঙ্গাপুরভিত্তিক বহুজাতিক ব্যাংক ডিবিএস এক নোটে বলেছে, “আমাদের দৃষ্টিতে এই বিধিনিষেধ অস্থায়ী হতে পারে, প্রদত্ত অভ্যন্তরীণ চাহিদা উৎপাদনের এক তৃতীয়াংশ হওয়ায় এবং পণ্যের মজুদ তৈরি হওয়ার পর মূল্য যখন স্থিতিশীল হবে, তখনই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।”

আরও খবর:

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক