ফের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার দাবি উত্তর কোরিয়ার

উত্তর কোরিয়া আরেকটি হাইপারসিনক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করার কথা জানিয়ে বলেছে, এবার নেতা কিম জং উন সেটি প্রত্যক্ষ করেছেন।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 Jan 2022, 06:21 AM
Updated : 12 Jan 2022, 06:21 AM

দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা কেসিএনএ-র প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার যে ক্ষেপণাস্ত্রটি ছোড়া হয়েছে তা প্রায় ১০০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যস্থলে ‘নির্ভুলভাবে আঘাত’ হেনেছে। 

বিবিসি জানিয়েছে, এই নিয়ে তৃতীয়বারের মতো হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার কথা জানালো উত্তর কোরিয়া; এই ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র লক্ষ্যস্থলের অনেক কাছে চলে আসার পরই কেবল রাডারে ধরা পড়ে, তুলনায় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র অনেক আগেই শনাক্ত করা যায়।

নতুন বছর শুরু হওয়ার ঠিক আগে দেওয়া এক ভাষণে উত্তর কোরিয়ার জাতীয় প্রতিরক্ষা শক্তিশালী করার প্রত্যয় জানিয়েছিলেন কিম, তারপর এক সপ্তাহের মধ্যে এ ধরনের দুটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার কথা জানালো দেশটি।

দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপান, উভয়েই মঙ্গলবারের উৎক্ষেপণ শনাক্ত করেছে। উত্তর কোরিয়ার ভূখণ্ড থেকে পূর্ব উপকূলের সাগরের দিকে একটি ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছে বলে জানিয়েছিল তারা।

পরে কেসিএনএ জানায়, সেটি একটি সুনিয়ন্ত্রিত হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র ছিল। 

এর আগে উত্তর কোরিয়া জানিয়েছিল, তারা ৫ জানুয়ারি সফলভাবে একটি হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে।

তখন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্স ওই পরীক্ষার নিন্দা জানিয়েছিল। ‘অস্থিতিশীলতার উস্কানি তৈরি করা’ পদক্ষেপ বন্ধ করার জন্য উত্তর কোরিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল তারা।

হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র সাধারণত ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের চেয়ে অনেক নিচু দিয়ে লক্ষ্যের দিকে উড়ে যায়। এসব ক্ষেপণাস্ত্র শব্দের চেয়ে পাঁচ গুণেরও বেশি গতিতে বা ঘন্টায় প্রায় ৬২০০ কিলোমিটার বেগে উড়ে যেতে পারে।

হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির চেষ্টার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও রাশিয়ার মতো অল্প কয়েকটি দেশের সঙ্গে যোগ দিল উত্তর কোরিয়া।

দেশটির নেতা কিম অন্যান্য কর্মকর্তাদের পাশে দাঁড়িয়ে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা প্রত্যক্ষ করছেন, কেসিএনএর শেয়ার করা ছবিগুলোতে এমনটি দেখা গেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

খবর অনুযায়ী, ২০২০ সালের মার্চের পর এই প্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে একটি ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণকালে উপস্থিত থাকলেন কিম জং উন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক