ট্রাম্পের টুইটে ‘ফ্যাক্ট-চেকিং’ ট্যাগ সেঁটে দিল টুইটার

প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের একটি পোস্টে ‘ফ্যাক্ট-চেক’ লেবেল লাগিয়ে দিয়েছে টুইটার।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 May 2020, 05:01 AM
Updated : 27 May 2020, 05:05 AM

পোস্ট করা একটি টুইটে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প লেখেন, “কোনো উপায় নেই (শূন্য!) মেইল-ইন ব্যালটগুলো ব্যাপক জালিয়াতির চেয়ে কম কিছু হবে না।”

প্রেসিডেন্টের এই পোস্টটির নিচে একটি সতর্কতা লেবেল লাগিয়ে দিয়ে বিভ্রান্তিকর তথ্যের বিষয়ে তাদের নতুন নীতি অনুযায়ী একটি টুইট করে টুইটার।  

তাদের টুইট করা নোটিফিকেশনে নীল রঙের একটি বিস্ময়বোধক চিহ্ন দোখানো হয় এবং হাইপার লিঙ্কে পাঠকদের ‘মেইল-ইন ব্যালটের বিষয়ে সঠিক তথ্য’ জানার পরামর্শ দেওয়া হয়।

টুইটারের লিঙ্কটি ব্যবহারকারীদের আরেকটি পেইজে নিয়ে যায় যেখানে মেইল-ইন ব্যালটের বিষয়ে ট্রাম্পের দাবিকে সিএনএন, ওয়াশিংটন পোস্ট ও অন্যান্যদের ভাষ্য অনুযায়ী ‘প্রমাণিত নয়’ বলে বর্ণনা করা হয়।

তারপর ‘আপনার কী জানা দরকার’ শিরোনামে আরেকটি অনুচ্ছেদে টুইটার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের দাবিকে ‘মিথ্যা’ কেন বলছে তার ব্যাখ্যা দিয়েছে।  

প্রতিক্রিয়ায় ফের আরেকটি টুইট করে ট্রাম্প লেখেন, “টুইটার পুরোপুরি বাক স্বাধীনতার কণ্ঠরোধ করছে।”

বিবিসি লিখেছে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার তাদের সাইটে মিথ্যা বা বিভ্রান্তিকর তথ্যের বিষয়ে সতর্কতার মাত্রা বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিলেও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার ক্ষেত্রে দেরি করেছে।

টুইটার চলতি মাসের প্রথমদিকে তাদের সতর্কতার মাত্রা সংক্রান্ত নীতি হালনাগাদ করেছে।

টুইটারের এসব পদক্ষেপের প্রতিক্রিয়ায় করা টুইটে ট্রাম্প অভিযোগ করেন, এই সোশাল মিডিয়াটি যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে (৩ নভেম্বর, ২০২০) হস্তক্ষেপ করছে।

তিনি বলেন, “টুইটার পুরোপুরি বাক স্বাধীনতার কণ্ঠরোধ করছে, আর আমি, প্রেসিডেন্ট হিসেবে, এটি হতে দেব না।”

ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচার ব্যবস্থাপক ব্র্যাড পার্সক্যালও টুইটার কর্তৃপক্ষের সমালোচনা করেছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক