ইরাকের মরুভূমি থেকে ২৭ কাতারি অপহৃত

সৌদি আরব সীমান্তের কাছে ইরাকের সামাওয়াহ অঞ্চলের মরুভূমি এলাকা থেকে অন্তত ২৬ কাতারি শিকারিকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে বন্দুকধারীরা।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Dec 2015, 12:59 PM
Updated : 16 Dec 2015, 06:20 PM

সামাওয়া গভর্ণর ও পুলিশ এ খবর নিশ্চিত করেছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

সামাওয়াহ’র দুই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, বুধবার খুব ভোরে ওই শিকারিদের অপহরণ করা হয়। অপহৃত ব্যক্তিদের উদ্ধারে নিরাপত্তা বাহিনী বড় ধরণের অভিযান শুরু করেছে বলেও জানায় তারা।

সামাওয়াহ’র গভর্ণর ফালিহ আল-জায়াদি বলেন, “কয়েক ডজন পিকআপ ট্রাকে করে এক দল অস্ত্রধারী সৌদি সীমান্তের সামাওয়াহ মরুভূমির বুসায়া এলাকায় শিকারিদের তাঁবু থেকে অন্তত ২৬ জন কাতারি শিকারিকে তুলে নিয়ে গেছে।”

অপহৃতদের মধ্যে কাতারের রাজপরিবারের সদস্যরাও রয়েছে বলে খবর প্রকাশ পেয়েছে। তবে বিষয়টি এখন কেউ নিশ্চিত করেনি।

এ ঘটনার পর কাতারের পররাষ্ট্র মণ্ত্রনালয়ের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, “অপহৃত কাতারি নাগরিকদের বিষয়ে বিস্তারিত জানতে এবং যত দ্রুত সম্ভব তাদের মুক্ত করতে কাতার কর্তৃপক্ষ ইরাক সরকারের সঙ্গে কাজ করবে।”

এজন্য তারা ইরাকের আনুষ্ঠানিক অনুমতি চেয়েছেন বলেও ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে। 

পরাস্য উপসাগরীয় আরব দেশগুলোর বিভিন্ন শিকারিরা বছরের এই সময়টিতে মরুভূমির ওই এলাকাটিতে আসে।  

সামাওয়াহ পুলিশের একজন কর্নেল নাম প্রকাশ না করার শর্তে রয়টার্সকে বলেন, ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনীর একটি দল শিকারিদের পাহারা দিচ্ছিল, কিন্তু শিকারিরা খুব বেশি নিরাপত্তারক্ষী সঙ্গে না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

এখন পর্যন্ত এ হামলার দায় কেউ স্বীকার করেনি। তবে ইরাকের ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিরা প্রায়ই বড় আকারের গাড়ি বহর নিয়ে চলাফেরা করে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

যদিও ওই অঞ্চলটি শিয়াদের নিয়ন্ত্রণে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী পুলিশ ধারণা করছে, অপহরণকারীরা শিকারিদের নিয়ে নাসিরিয়া প্রদেশের কাছে মরুভূমিতে পালিয়ে গেছে।