টুইটারকর্মীদের দেউলিয়া হওয়ার ‘ভয়’ দেখাচ্ছেন মাস্ক

টুইটার কিনতে ওয়াল স্ট্রিটের সাতটি ব্যাংকের কাছ থেকে এক হাজার তিনশ কোটি ডলারের তহবিল জোগাড় করেছিলেন মাস্ক, যা এখন কোম্পানির ঘাড়ে চেপেছে ঋণ হিসেবে।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Nov 2022, 06:47 AM
Updated : 11 Nov 2022, 06:47 AM

টুইটার কিনে নেওয়ার দুই সপ্তাহের মধ্যেই কোম্পানির ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কিত হওয়ার মত কথা বলছেন ইলন মাস্ক; আয় না বাড়ালে কোম্পানি আসন্ন অর্থনৈতিক মন্দায় টিকতে পারবে না বলে কর্মীদের সতর্ক করেছেন তিনি।

টানা কয়েক মাসের নাটকীয়তার পর মাস্ক টুইটার অধিগ্রহণের চুক্তি সম্পন্ন করেন ২৭ অক্টোবর। কোম্পানি নিজের নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার দুই সপ্তাহ পার হওয়ার আগেই ছাঁটাই করেছেন অর্ধেক কর্মী; একে একে পদত্যাগ করছেন মাইক্রোব্লগিং প্ল্যাটফর্মটির উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারাও।

কোম্পানির নীতিমালা এবং সম্ভাব্য ঝুঁকি বিশ্লেষক দলের প্রধান ইয়োয়েল রথ চিফ টুইট মাস্কের নির্বাহী দলে স্থান পেয়েছেন বলে প্রথম দিকে মনে হলেও বৃহস্পতিবার দিন শেষে তার পদত্যাগের খবর রটেছে।

গ্রাহকসেবা বিভাগের প্রধান রবিন হুইলার পদত্যাগ করলেও মাস্ক তাকে ফিরিয়ে এনেছেন বলে জানিয়েছে ব্লুমবার্গ।

এমন বেহাল পরিস্থিতিতেই ৯ নভেম্বর কোম্পানির সকল কর্মীকে ইমেইল পাঠিয়ে ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ বা বাড়িতে বসে কাজের সুযোগ বন্ধ করে দেওয়ার কথা জানিয়েছেন ইলন মাস্ক। সঙ্গে সতর্কবার্তা দিয়েছেন, সাবস্ক্রিপশন থেকে আয় না বাড়লে ‘আসন্ন’ অর্থনৈতিক মন্দায় টুইটারের ‘টিকে না থাকার আশঙ্কাই বেশি’।

চার হাজার চারশ কোটি ডলারে টুইটার কিনতে ওয়াল স্ট্রিটের সাতটি ব্যাংকের কাছ থেকে এক হাজার তিনশ কোটি ডলারের তহবিল জোগাড় করেছিলেন মাস্ক, যা এখন কোম্পানির ঘাড়ে চেপেছে ঋণ হিসেবে।

ব্লুমবার্গ জানিয়েছে, ওই ঋণের দায় কিনে নিতে কিছু আর্থিক প্রতিষ্ঠান ডলার প্রতি ৬০ সেন্ট করে দেওয়ার আগ্রহ দেখিয়েছে। আর্থিক দুর্দশায় আছে– এমন কোম্পানির ক্ষেত্রেই সাধারণত এমন দাম প্রস্তাব করা হয়।

৯ নভেম্বরের ইমেইলে কোম্পানির ভবিষ্যৎ নিয়ে কর্মীদের সতর্ক করার পাশাপাশি আরও কিছু ‘দুঃসংবাদ’ দিয়েছেন মাস্ক। সপ্তাহে অন্তত ৪০ ঘণ্টা করে কাজ করতেই হবে টুইটার কর্মীদের, বিনামূল্যে খাবারের মত বাড়তি সুযোগ সুবিধা কমানো হবে এবং মহামারীর লকডাউনে বাড়িতে বসে কাজ করার যে চল শুরু হয়েছিল, সেই সুযোগ বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে মাস্কের অবস্থান স্পষ্ট: ‘আপনি যদি অফিসে আসতে না চান, তা পদত্যাগপত্র হিসেবে গ্রহণ করে নেওয়া হল।’

কোম্পানির ভবিষ্যৎ এবং আর্থিক অবস্থা নিয়ে আলোচনায় ৮ ডলারের সাবস্ক্রিপশন সেবা ‘টুইটার ব্লু’-কে গ্রাহকদের জন্য আকর্ষণীয় কিছু হিসেবে গড়ে তোলার ওপর বাড়তি জোর দিচ্ছেন মাস্ক।

তবে মাস্কের ব্যবস্থাপনা কৌশলের সঙ্গে পরিচিত একজন ব্লুমবার্গকে বলেছেন, কর্মীদের তৎপরতা বাড়াতে এর আগেও দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার ভয় দেখানোর কৌশল ব্যবহার করেছেন মাস্ক। নিজের কাজে আরও গুরুত্ব না দিলে, আন্তরিক না হলে টুইটার আরও বিপাকে পড়বে– মাস্ক হয়ত কর্মীদের এমনটাই বোঝাতে চাচ্ছেন।

কোম্পানির আয় বাড়ানোর লক্ষ্যে মাস্ক প্ল্যাটফর্মে আর্থিক লেনদেন সেবা আনারও ইঙ্গিত দিয়েছেন বলে জানিয়েছে ব্লুমবার্গ। ব্যবহারকারীদের মধ্যে আলোচনার জন্ম দেবে– প্ল্যাটফর্মে এমন নতুন ধরনের বিজ্ঞাপন আনার সম্ভাব্যতা নিয়েও টেসলা ও স্পেসএক্স প্রধান ইঙ্গিত দিয়েছেন।

কিন্তু বৃহস্পতিবারেই টুইটার ছেড়েছেন কোম্পানির চিফ ইনফর্মেশন সিকিউরিটি অফিসার, চিফ প্রাইভেসি অফিসার এবং চিফ কমপ্লায়েন্স অফিসার। শীর্ষ কর্মকর্তাদের পদত্যাগের পর এই মাইক্রোব্লগিং সাইট আদৌ প্ল্যাটফর্মের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারবে কি না এবং বাজার নিয়ন্ত্রকদের নীতিমালা মেনে কার্যক্রম চালু রাখা যাবে কি না, সে প্রশ্নও উঠছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক