টুইটার প্রস্তাব বাতিলের হুমকি ইলন মাস্কের

চার হাজার চারশ কোটি ডলারে টুইটার কেনার প্রস্তাব বাতিল করার হুমকি দিয়েছেন ইলন মাস্ক। ব্যবহারকারীর সঠিক সংখ্যা নিয়ে তার অনুসন্ধান চেষ্টা মাইক্রোব্লগিং প্ল্যাটফর্মটি প্রতিহত করছে বলে অভিযোগ তুলেছেন টেসলা ও স্পেসএক্সের প্রধান নির্বাহী।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 June 2022, 10:37 AM
Updated : 7 June 2022, 10:37 AM

বাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা ‘সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি)’-এর কাছে দাখিল করা চিঠিতে মাস্ক দাবি করেছেন, টুইটারের স্প্যাম বা বট অ্যাকাউন্টের সঠিক সংখ্যা স্বাধীনভাবে গণনার পূর্ণ অধিকার তার আছে।

এর মাধ্যমে মাস্ক কার্যত কয়েক সপ্তাহ ধরে জিইয়ে রাখা বিতর্ককে আনুষ্ঠানিক অভিযোগে রূপ দিলেন। স্প্যাম ও বট অ্যাকাউন্টের সঠিক সংখ্যা নিয়ে টুইটার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দ্বিমতের জেরে কয়েক সপ্তাহ আগেই অধিগ্রহণ চুক্তি সাময়িকভাবে স্থগিত করার ঘোষণা দিয়েছিলেন মাস্ক।

টুইটারের নিজস্ব হিসাব অনুযায়ী প্ল্যাটফর্মটিতে যতো অ্যাকাউন্ট আছে তার পাঁচ শতাংশ স্প্যাম ও বট অ্যাকাউন্ট। তবে মাস্ক বলছেন, ভুয়া অ্যাকাউন্টের সংখ্যা ২০ শতাংশ পর্যন্ত হতে পারে। শুরু থেকেই নিজেদের হিসাব সঠিক বলে দাবি করে আসছে টুইটার।

এসইসির উদ্দেশ্যে লেখা চিঠিতে মাস্কের আইনজীবি মাইক রিংলার লিখেছেন, “টুইটারের সম্ভাব্য ক্রেতা হিসেবে, তার লেনদেনের অর্থায়ন এবং টুইটারের ব্যবসাকে নিজের মালিকানায় নেওয়ার প্রস্তুতির জন্য অনুরোধ করা ডেটা পাওয়ার পূর্ণ অধিকার মাস্কের আছে।”

“এখন পর্যন্ত টুইটারের আচরণ, বিশেষ করে কোম্পানির সর্বশেষ প্রতিক্রিয়ার ভিত্তিতে মাস্ক বিশ্বাস করেন যে কোম্পানিটি সক্রিয়ভাবে তার তথ্য জানার অধিকারকে প্রতিরোধ ও প্রতিহত করার চেষ্টা করছে।” 

মাস্কের সঙ্গে টুইটারের যে সমঝোতা হয়েছিল, সেটির বিবেচনায় কোম্পানির পক্ষ থেকে পরিষ্কারভাবে প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করা হচ্ছে এবং ফলশ্রুতিতে ‘মাস্কের লেনদেন সম্পূর্ণ না করে একিভূত হওয়ার সমঝোতা বাতিলের পূর্ণ অধিকার আছে’ বলে চিঠিতে লিখেছেন তার আইনজীবি।

টুইটারের পরিচালনা পর্ষদ এপ্রিল মাসে মাস্কের ক্রয় প্রস্তাবে সবুজ সংকেত দিলেও ব্যবহারকারীদের সঠিক সংখ্যা নিয়ে বিবাদের জেরে অধিগ্রহণ চুক্তিটির ভবিষ্যৎ এখন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে বলে উঠে এসেছে বিবিসির প্রতিবেদনে।

অন্যদিকে, টুইটার এক বিবৃতিতে বলেছে, “লেনদেন পূর্ণ করতে একিভূতকরণ সমঝোতার শর্ত মেনে টুইটার সহযোগিতামূলকভাবে মাস্কের সঙ্গে তথ্য শেয়ার করেছে এবং করতে থাকবে।”

টুইটার আরও দাবি করেছে, প্ল্যাটফর্মটি কেনার অতিআগ্রহে নিজে থেকে অনুসন্ধান ও যাচাইকরণের অধিকারে ছাড় দিয়েছিলেন মাস্ক। এপ্রিল মাসের সমঝোতায় নির্ধারিত দাম ও শর্তেই মালিকানার হাতবদল করতে চায় কোম্পানিটি।

সমঝোতা চুক্তি ভঙ্গ করলে একশ কোটি ডলার ক্ষতিপূরণ দিতে হবে মাস্ককে। টুইটার কর্তৃপক্ষের পাল্টা মামলার ঝুঁকিতেও পড়বেন তিনি।

মে মাসে হঠাৎ করেই সামাজিক মাধ্যম প্ল্যাটফর্মটির স্প্যাম অ্যাকাউন্ট নিয়ে তৎপরতা বেড়েছে ইলন মাস্কের। অধিগ্রহণ চুক্তি ‘সাময়িকভাবে স্থগিত’ বললেও, টুইটার ক্রয়ে এখনও প্রতিজ্ঞাবদ্ধ বলে দাবি করে আসছেন তিনি।

তবে, টেসলা প্রধান এই অজুহাতে টুইটারের দাম কমানোর চেষ্টা করবেন, বাজার বিশ্লেষকরা এমন ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন আগেই। বিশ্লেষকদের মতে, এই বিষয়ে সামাজিক মাধ্যমে মাস্কের প্রশ্ন তোলার বিষয়টি একদমই প্রথাগত নয় এবং তিনি আদৌ অধিগ্রহণে ইচ্ছুক কি না সেটি নির্ধারণও কঠিন হয়ে দাঁড়াচ্ছে।

মাস্কের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে একাধিক টুইটে নিজ প্রতিষ্ঠানের হিসাব ব্যবস্থার পক্ষে কথা বলেছেন টুইটারের প্রধান নির্বাহী পারাগ আগরাওয়াল। কিন্তু, মাস্ক আগরাওয়ালের টুইটগুলোর উত্তর দিয়েছেন ইমোজি ব্যবহার করে।

বিবিসি জানিয়েছে, এসইসির কাছে দাখিল করা চিঠি থেকে স্পস্ট ইঙ্গিত মিলছে যে, মে মাসের শুরু থেকেই বট অ্যাকাউন্টের সঠিক সংখ্যা নিয়ে কয়েক দফা পাল্টাপাল্টি কথা হয়েছে দুই পক্ষের মধ্যে।

অন্যদিকে, সোমবারেই টুইটারের ব্যবহারকারীদের সঠিক সংখ্যা নিয়ে চলতি বিতর্কে জড়িয়েছেন টেক্সাসের অ্যাটর্নি জেনারেল কেন প্যাক্সটন। টুইটার ‘ভুয়া অ্যাকাউন্টের সংখ্যা নিয়ে ভুল তথ্য দিচ্ছে কি না’ নির্ধারণে তদন্তে নামার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। প্যাক্সটনের তথ্য সরবরাহের অনুরোধে সাড়া দিতে ২৭ জুন পর্যন্ত সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে টুইটারকে।

মাস্ক হঠাৎ করেই টুইটার কেনার প্রস্তাব দিয়ে বসায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বাজার নিয়ন্ত্রকরা নড়েচড়ে বসেছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি। অন্যদিকে, মাস্কের সাম্প্রতিক নাটকীয়তার প্রভাব পড়েছে টেসলা ও স্পেসএক্সের বিনিয়োগকারীদের ওপরও। উভয় প্রতিষ্ঠানের নেতৃত্ব দিচ্ছেন মাস্ক।

টুইটার কিনতে নিজের গাঁটের পয়সা খরচের পাশাপাশি বাইরে থেকে বিনিয়োগকারীদের সাহায্যও নিচ্ছেন মাস্ক। টেসলা শেয়ারের বিপরীতে ঋণও নিয়েছেন তিনি। তবে, শেয়ার বাজারের সাম্প্রতিক অস্থিতিশীলতায় কয়েকশ কোটি ডলারের বাজারমূল্য হারিয়েছে টেসলা।

সাম্প্রতিক বাজার অস্থিতিশীলতার মাঝে মাস্কের প্রতিটি টুইটার শেয়ারের জন্য ৫৪ ডলার ২০ সেন্ট দামের প্রস্তাব আরও লোভনীয় মনে হতে পারে বলে মন্তব্য করেছে বিবিসি। সোমবারে শেয়ার বাজারে টুইটার শেয়ার হাতবদল হয়েছে ৩৯ ডলার দামে।

বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে বাজার বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান হারগ্রিভস ল্যান্সডাউনের জ্যেষ্ঠ বিশ্লেষক সুসানা স্ট্রিটারের মত, ‘টেসলা  প্রতিষ্ঠাতা যে পিছু হটতে প্রস্তুত’ এখন পর্যন্ত তার সবচেয়ে বড় ইঙ্গিত এসইসির কাছে দাখিল করা চিঠিটি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক