‘সাইবার হামলায়’ বন্ধ ছিল রাশিয়ার গৃহায়ন মন্ত্রণালয়ের সাইট

রাশিয়ার নির্মাণ, গৃহায়ন ও উপযোগ মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট কিছু সময়ের জন্য বন্ধ ছিল। বর্তমানে অনলাইনে ফিরলেও সাইটটি সম্ভবত সাইবার হামলার শিকার   হয়েছিল।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 June 2022, 11:37 AM
Updated : 6 June 2022, 11:37 AM

বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, কিছু সময়ের জন্য ইন্টারনেটে মন্ত্রণালয়টির ওয়েবসাইটের খোঁজ করে ইউক্রেইনীয় ভাষায় লেখা ‘গ্লোরি টু ইউক্রেইন’ পোস্ট দেখতে পাচ্ছিলেন অনুসন্ধানকারীরা।

মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্রের বরাত দিয়ে দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ব সংবাদ সংস্থা ‘আরআইএ’ রোববার জানিয়েছে, সাইটটির কার্যক্রম সাময়িকভাবে বন্ধ থাকলেও ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত ডেটা সুরক্ষিত আছে।

হ্যাকাররা ব্যবহারকারীদের ডেটা ফাঁস না করার বদলে মুক্তিপণ চাইছে বলে একাধিক সংবাদমাধ্যম প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে– এ কথাও বলেছে আরআইএ। রাষ্ট্রায়ত্ব সংবাদমাধ্যমটি অন্য কোন সংবাদমাধ্যমের কথা বলেছে তা নিশ্চিত হতে পারেনি রয়টার্স।

রাশিয়া ইউক্রেইনে সামরিক আগ্রাসন শুরু করেছে ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে। আগ্রাসন শুরুর পর বিভিন্ন সময়ে সাইবার হামলার শিকার হয়েছে রাশিয়ার বেশ কয়েকটি রাষ্ট্রায়ত্ব কোম্পানি এবং সংবাদমাধ্যম।

মে মাসের শুরুতে হ্যাকিংয়ের শিকার হয়ে টানা তিন দিন অফলাইনে ছিল রাশিয়ার ভিডিও-হোস্টিং সাইট ‘রুটিউব’। এ ছাড়াও, নাৎসি জার্মানির বিপক্ষে সোভিয়েত ইউনিয়নের ৭৭তম বিজয় দিবসে মস্কোর স্যাটেলাইট টেলিভিশনের মেনুও ওলট-পালট করে দিয়েছিল হ্যাকাররা।

অন্যদিকে, রোববারেই ইউক্রেইনের সংবাদমাধ্যম ‘ইউনিয়ান’ এক প্রতিবেদনে জানিয়েছিল, ‘ওএলএলডটটিভি’-তে ইউক্রেইন বনাম ওয়েলসের ফুটবল ম্যাচের সম্প্রচার সাময়িকভাবে হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছিল। তবে, ওই প্রতিবেদনের সত্যতা যাচাই করতে পারেনি রয়টার্স।

মস্কোর ভাষ্যমতে, ইউক্রেইনকে নিরস্ত্র করতে ও দেশটিকে ফ্যাসিবাদীদের হাত থেকে বাঁচাতে তারা একটি ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ চালাচ্ছে। তবে, ইউক্রেইন ও পশ্চিমা দেশগুলো রাশিয়ার এই দাবিকে ‘আক্রমণের অজুহাত’ হিসেবে নাকচ করে আসছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক