টুইট করে শেয়ার বিক্রির ঘটনায় নতুন বিপাকে মাস্ক

নভেম্বর মাসে টুইটার ফলোয়ারদের মতামতের ভিত্তিতে টেসলা শেয়ার বিক্রি করে আলোড়ন তুলেছিলেন ইলন মাস্ক। ওই ঘটনায় টেসলা ও মাস্ক মার্কিন বাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থার সঙ্গে পূর্বনির্ধারিত সমঝোতা লঙ্ঘন করেছে কি না, সেটি তদন্ত করে দেখতে মামলা করেছেন এক টেসলা বিনিয়োগকারী।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 Dec 2021, 12:33 PM
Updated : 18 Dec 2021, 12:33 PM

মার্কিন বাজার নিয়ন্ত্রকদের সঙ্গে ২০১৮ সালে যে সমঝোতা হয়েছিল, মাস্ক ও টেসলার পরিচালনা পর্ষদ সেই বিশ্বস্ততা বজায় রাখার দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছেন কি না, সেটি যাচাই করতে অভ্যন্তরীণ নথিপত্রে প্রবেশাধিকার চেয়েছেন টেসলা বিনিয়োগকারী ডেভিড ওয়াগনার।

২০১৮ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ‘সিকিউরিটিস অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (এসইসি) একটি মামলার নিস্পত্তি করতে সমঝোতায় গিয়েছিলেন মাস্ক। টেসলা-কে ব্যক্তিমালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান করা প্রসঙ্গে তার টুইট নিয়েই খেপেছিল এসইসি। এসইসি’র সঙ্গে করা ওই সমঝোতায় প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য টুইট করার আগে আইনজীবীদের কাছ থেকে অনুমোদন নিতে রাজি হয়েছিলেন মাস্ক।

নভেম্বরে টুইটার ফলোয়ারদের মতামতের ভিত্তিতে শেয়ার বিক্রি করে নতুন জটিলতার জন্ম দিয়েছেন মাস্ক। মাস্ক টুইট করার আগ পর্যন্ত সর্বোচ্চ দামে লেনদেন হওয়ার পথে ছিল টেসলা শেয়ার। টেসলার ১০ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করে দেবেন কি না– ৬ নভেম্বর মাস্ক টুইটারে এই প্রশ্ন তোলার পরপরই শেয়ার বাজারে টেসলা শেয়ায়ের দাম পড়ে যায় এক-চতুর্থাংশ।

ওই পোস্টের পর থেকে এখন পর্যন্ত এক হাজার চারশ’ কোটি ডলারের শেয়ার বিক্রি করেছেন মাস্ক।

ডেভিড ওয়াগনার মামলাটি করেছেন বৃহস্পতিবার। মাস্কের টুইটের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকল নথি দেখতে চেয়েছেন তিনি। মাস্কের শেয়ার বিক্রি বিষয়ক টুইটগুলোর ব্যাপারে আইনজীবীরা আগে থেকে জানতেন কি না, বা সঠিকভাবে অনুমোদন দাওয়া হয়েছিল কি না, সেটি যাচাই করে দেখতে চান টেসলার ওই বিনিয়োগকারী।

এ বছরের মার্চ মাসেই মাস্ক ও টেসলার পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন প্রতিষ্ঠানের আরেক বিনিয়োগকারী। ওই বিনিয়োগকারীর অভিযোগ ছিল, মাস্ক এসইসি’র সঙ্গে ২০১৮ সালের সমঝোতার ব্যত্যয় ঘটিয়ে বিনিয়োগকারীদের কয়েকশ’ কোটি ডলার ক্ষতির মুখে ফেলেছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক