স্পাইওয়্যারের শিকার আইফোন মালিকদের সতর্ক করবে অ্যাপল

যাদের আইফোন এবং অন্যান্য অ্যাপল ডিভাইস রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছে, অ্যাপল তাদের এ বিষয়টি সম্পর্কে জানানোর উদ্যোগ নিচ্ছে।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Dec 2021, 02:24 PM
Updated : 5 Dec 2021, 02:24 PM

গত সপ্তাহেই ইজরায়েলি কোম্পানি এনএসও গ্রুপের বিরুদ্ধে মামলা করার পর প্রযুক্তি জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানটি হ্যাকিং আক্রান্তদের অবহিত করার এই পরিকল্পনা সম্পর্কে জানালো। মামলায় অ্যাপলের দাবি, আইফোন হ্যাকিংয়ের জন্য স্পাইওয়্যার বিক্রি করে মার্কিন আইন ভেঙেছে এনএসও গ্রুপ।

কোনো ব্যবহারকারী রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছেন এ বিষয়টি অ্যাপল নিশ্চিত হওয়ামাত্র ডিভাইসের মালিককে একটি আইমেসেজ এবং একটি ইমেইল পাঠাবে। পাশাপাশি অ্যাপল আইডিতে সাইন ইন করলেও একটি বিজ্ঞপ্তি দেখা যাবে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম এনবিসি।

অ্যাপল তাদের সাপোর্ট ডকুমেন্টে বলেছে, “এই ব্যক্তিরা তাদের পরিচয় বা কাজের ধরনের জন্যই আক্রমণের লক্ষ্যে পরিণত হন।”

“সচরাচর যেভাবে সাইবার অপরাধীরা শিকার বাছাই করে, এটি তার চেয়ে আলাদা। এখানে খুব অল্প সংখ্যক নির্দিষ্ট ব্যক্তি এবং তাদের ডিভাইসকে লক্ষ্য করে আক্রমণ চালানো হয়। এ কাজের কৌশল অত্যাধুনিক হওয়ার কারণেও এগুলো শনাক্ত এবং প্রতিরোধ অনেক কঠিন হয়ে ওঠে।”

তবে, এ বিষয়ে আরও মন্তব্যের অনুরোধে অ্যাপল সাড়া দেয়নি।

টরন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ের সিটিজেন ল্যাবের রন ডিবার্ট একটি ইমেইলে বলেন, “আইফোন ব্যবহারকারীদের ওপর এনএসও গ্রুপের গুপ্তচরবৃত্তি নিয়ে অ্যাপলের এই তথ্যপ্রকাশ শুরু হলে পরিস্থিতির প্রকৃত ভয়াবহতা টের পাওয়া যাবে।”

“আমরা এখন দেখতে পাচ্ছি অসংখ্য আক্রান্ত ব্যক্তি যারা সন্ত্রাসী বা অপরাধী নন, এরা সাংবাদিক, ছাত্র, বৈধ রাজনীতি করা বিরোধী দলের সদস্য এবং বিশ্বব্যাপী সুশীল সমাজের প্রতিনিধি যাদের ফোন পেগাসাস ব্যবহার করে সরকার হ্যাক করেছে।”

রন ডিবার্ট আরও বলেছেন, “এনএসও গ্রুপের মতো স্পাইওয়্যার প্রতিষ্ঠানগুলোর উপর কোনও আন্তর্জাতিক নিয়ন্ত্রণ না থাকায় এই অপব্যবহারে আসলে অবাক হওয়ার কিছু নেই।”

“অ্যাপল যেমনটা মামলার অভিযোগে বলেছে, এইসব কোম্পানির কর্মকর্তারা একুশ শতকের মার্সেনারি বা ভাড়াটে সৈন্য।”

এর আগে ২০১৭ সালে সিটিজেন ল্যাবের করা গবেষণা অনুসারে এনবিসি নিউজ এক প্রতিবেদনে বিশিষ্ট সাংবাদিক, আইনজীবী, দুর্নীতি বিরোধী কর্মী এবং সরকারী কর্মকর্তাদের লক্ষ্য করে পেগাসাস ব্যবহারের কথা জানিয়েছিল।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক