ডেটা সামিটের শেষ দিনে এলো শিশুর স্কুলে ভর্তির তথ্যভিত্তিক অ্যাপ

শেষ হয়েছে দেশের সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন খাতের উন্মুক্ত ডেটার সহজলভ্যতা ও নাগরিক কল্যাণে এর সম্ভ্যাব্য ব্যবহার নিয়ে তথ্যকেন্দ্রিক আয়োজন বাংলাদেশ ওপেন ডেটা সামিট। সম্মেলনের শেষ দিনে ঘোষণা এসেছে সন্তানকে স্কুলে ভর্তি করানোর ঝক্কি কমাতে সক্ষম ওয়েব অ্যাপ নিয়ে।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 Oct 2021, 06:53 AM
Updated : 26 Oct 2021, 06:53 AM

বাংলাদেশ ওপেন ডেটা সামিটের সমাপনী দিনে নতুন ওয়েব অ্যাপটির ঘোষণা দিয়েছে আয়োজক ডেটাফুল। নভেম্বর মাসেই ওয়েব অ্যাপটি বাজারে উন্মুক্ত করার কথা জানিয়েছে আয়োজক কর্তৃপক্ষ।

ডেটাভিত্তিক তিনটি বিষয় ছিল ডেটা সামিটের কেন্দ্রে। প্রথম দিনের বিষয় ছিল দেশের উন্মুক্ত ডেটার প্রাপ‍্যতা বা অ্যাভেইলিবিলিটি। দ্বিতীয় দিনের আলোচনার বিষয়বস্তু ছিল ডেটার অভিগম্যতা বা অ্যাক্সেসিবিলিটি। আর শেষ দিনের থিম ছিল জনকল্যাণে উন্মুক্ত ডেটার ব্যবহার।

শেষ দিন ওয়েব অ্যাপ্লিকেশনটির ডেমো তুলে ধরেন ডেটাফুলের প্রতিষ্ঠাতা পলাশ দত্ত। ওয়েব অ্যাপটির মাধ্যমে অভিভাবকরা এক ক্লিকে তাদের পছন্দের স্কুল সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য পাবেন বলে জানান তিনি। পলাশ আরও জানান, সময় ও অর্থ ব্যয় করে একাধিক স্কুলে সশরীরের বারবার যাওয়ার বদলে ওয়েব অ্যাপের মাধ্যমেই একাধিক স্কুলের বিভিন্ন বিষয় তুলনা করে দেখতে পারবেন অভিভাবকরা।

অনলাইন প্ল্যাটফর্ম জুমে আয়োজিত এই সম্মেলনে অংশ নিয়েছে বিভিন্ন দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠান। 

তিনদিনের ডেটা সামিটে অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ছিল এটুআই, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অফ ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট, ইউনিভার্সিটি অফ লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অফ আইসিটি ইন ডেভেলপমেন্ট, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অফ গভর্নেন্স অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট ও সাউথ এশিয়া সেন্টার ফর মিডিয়া ডেভেলপমেন্ট।

সম্মেলনের শেষ দিনে অংশগ্রহণকারী বিদেশি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে আমেরিকাভিত্তিক ওপেন ডেভেলপমেন্ট ইনিশিয়েটিভ এবং নেপালের ফ্রিডম ফোরামও অতিথি হিসেবে তাদের ডেটাভিত্তিক জনকল্যাণমুখী কাজের ওপর আলোচনা করেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক