মার্কিন সিনেটে ‘নিজের ঢোল নিজেই পেটাবে’ ফেইসবুক

ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের সিরিজ প্রতিবেদন ‘ফেইসবুক ফাইলস’-এর কারণে বেশ জটিল পরিস্থিতিতে পড়েছে ফেইসবুক। কিশোর বয়সীদের মানসিক স্বাস্থ্যের উপর ইনস্টাগ্রামের বিরূপ প্রভাব সম্পর্কিত তথ্য চেপে যাওয়ায় প্রশ্ন উঠেছে প্রতিষ্ঠানটির আন্তরিকতা নিয়ে। এমন পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে মার্কিন সিনেটে নিজের ঢোল নিজেই পেটানোর প্রস্তুতি নিয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী সামাজিক মাধ্যমটি।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Sept 2021, 12:10 PM
Updated : 30 Sept 2021, 12:10 PM

বৃহস্পতিবার মার্কিন সিনেটের এক শুনানিতে বক্তব্য রাখবেন ফেইসবুকের নিরাপত্তাবিষয়ক বৈশ্বিক প্রধান অ্যান্টিগন ডেভিস। শুনানিতে ডেভিস যে বক্তব্য দেবেন তার একটি কপি দেখার সুযোগ হয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্সের। প্রতিবেদনে রয়টার্স বলছে, শুনানিতে ইনস্টাগ্রামের গুণগান করার প্রস্তুতি নিয়েছে ফেইসবুক। 

প্রতিবেদন অনুসারে, সিনেট শুনানিতে অনলাইনে শিশু-কিশোরদের নিরাপত্তা দিতে ফেইসবুক আগে যে পদক্ষেপের ঘোষণা দিয়েছিলো, সেগুলো নিয়ে বিস্তারিত বলবেন ডেভিস। ডেভিসের বক্তব্যের যে কপিটি রয়টার্স দেখেছে, সেটি অনুযায়ী, ১৬ বছরের কম বয়সীরা ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারের চেষ্টা করলে তাদের অ্যাকাউন্ট যে সরাসরি প্রাইভেট করে দেওয়া হয়, সেই ফিচারটির উপর জোর দেবেন তিনি।

“আমাদের গবেষণা বলছে, বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সংগ্রাম করছে এমন অনেক কিশোরের মতে ইনস্টাগ্রাম তাদের বিভিন্ন জটিল সমস্যা মোকাবেলা করতে সাহায্য করে।”

ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল ফেইসবুকের অভ্যন্তরীণ নথিপত্রের ভিত্তিতে গোমর ফাঁস করে দেওয়ার পর বিপাকে পড়েছে প্রতিষ্ঠানটি। ওই অভ্যন্তরীণ নথি অনুযায়ী, ইনস্টাগ্রাম কিশোর বয়সীদের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলছে জেনেও কোনো পদক্ষেপ নেয়নি ফেইসবুক নেতৃত্ব।

শুনানির আগেই এই প্রসঙ্গে রিপাবলিকান দলের সিনেটর মার্শা ব্ল্যাকবার্ন এক বিবৃতিতে বলেছেন, “ফেইসবুক জানে যে তার সেবাগুলো কম বয়সী ব্যবহারকারীদের ক্ষতি করছে”। এ সময় ফেইসবুকের অভ্যন্তরীণ বিশ্লেষকদের উদ্ধৃতি দেন তিনি। ফেইসবুকের অভ্যন্তরীণ নথি অনুযায়ী, ইনস্টাগ্রামের বিভিন্ন বিষয় একীভূত হয়ে কিশোর-কিশোরীদের জন্য সামগ্রিক বিরূপ পরিস্থিতি তৈরি করছে, সেটি আগেই জেনেছিলেন প্রতিষ্ঠানটির নিজস্ব গবেষকরা।  

ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ওই সিনেট শুনানি “অনলাইনে শিশুদের নিরাপত্তা”র জন্য বলে আখ্যা দিয়েছেন ডেমোক্রেটিক দলের সিনেটর রিচার্ড ব্লুমেন্থাল।

আর সিনেট শুনানির জন্য তৈরি অ্যান্টিগন ডেভিসের লিখিত বক্তব্য বলছে, মন খারাপ থাকলে ইনস্টাগ্রাম তাদের মন ভালো করে দিয়েছে বলে জানিয়েছেন ফেইসবুকের নিজস্ব গবেষণায় অংশগ্রহণকারী ৫৭ শতাংশ কিশোরী।

ডেভিসের লিখিত বক্তব্য অনুযায়ী, একাকিত্বে ভোগার সময় ইনস্টাগ্রাম তাদের উপর ইতিবাচক প্রভাব রেখেছে, এমনটা বলেছেন ৫১ শতাংশ কিশোরী। 

অন্যদিকে মঙ্গলবারের আলাদা একটি শুনানিতে সাক্ষ্য দেওয়ার কথা রয়েছে এক ফেইসবুক কর্মীর। ধারণা করা হচ্ছে, অভ্যন্তরীণ নথিপত্র ফাঁস করে দিয়ে ফেইসবুকের নানা অনিয়ম, অসামঞ্জস্য ও নীতিমালার ব্যত্যয় জনসমক্ষে এনেছেন ওই ব্যক্তি। সিনেটের ওই শুনানিতে ফেইসবুক অনলাইনে কীভাবে শিশুদের নিরাপত্তা দেয় সেই বিষয়ে বিস্তারিত জানাবেন তিনি।

মঙ্গলবারের ওই শুনানিতে হাজির থাকবেন সিনেটর ব্লুমেন্থাল ও সিনেটর ব্ল্যাকবার্ন। নথি ফাঁসকারী ওই ব্যক্তির পরিচয় সম্পর্কে কোনো তথ্য দেননি ওই দুই সিনেটর।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক