‘ইতিহাসের বিকৃতি ঘটানো’ গেইম নির্মূল করা উচিত চীন সরকারের

অনলাইন গেইম পরীক্ষা করার ক্ষেত্রে আরও দৃঢ় অবস্থান এবং ইতিহাস বিকৃতি করে এমন অনলাইন গেইমের ব্যাপারে ‘শূন্য সহনশীলতা’ অবস্থানে যেতে হবে চীনা নিয়ন্ত্রকদের। সম্প্রতি চীনের রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারক ‘চায়না ন্যাশনাল রেডিও’ নিজ ওয়েবসাইটে এক মন্তব্যে এ মতামত জানিয়েছে।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 August 2021, 12:06 PM
Updated : 16 August 2021, 12:06 PM

চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমগুলোতে কিছুদিন ধরেই অনলাইন সেবা নিয়ে নানাবিধ নিবন্ধ প্রকাশিত হচ্ছে। চীন সরকারকে সাম্প্রতিক সময়ে অনলাইন সেবাদাতাদের ব্যাপারে কঠোর অবস্থান নিতে দেখা গেছে। অনেকেই আশঙ্কা করছেন, এরপর ভিডিও গেইম শিল্পের উপর চড়াও হবে দেশটির সরকার। তাদেরকেও দেশীয় কর্তৃপক্ষের নিয়ন্ত্রণের সম্মুখীন হতে হবে।

এ মাসে চীনে ভাইরাল হওয়া এক নিবন্ধে অনলাইন গেইমকে “আধ্যাত্মিক আফিম” হিসেবে ব্যাখ্যা করা হয়েছিল। শিশুরা নেশাগ্রস্থ হয়ে পড়ছে দাবি করে এ ব্যাপারে বড় মাপের ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানানো হয়েছিল নিবন্ধটিতে। ওই নিবন্ধ ছড়িয়ে পড়ার পর টেনসেন্ট হোল্ডিংস লিমিটেড ও অন্যান্য ভিডিও গেইম প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দর কমতে দেখা গেছে বলে উঠে এসেছে রয়টার্সের প্রতিবেদনে।

এর ঠিক পরপরই টেনসেন্ট ঘোষণা দেয়, তারা নিজেদের সবচেয়ে জনপ্রিয় গেইম ‘অনার অফ কিংস’ খেলার ক্ষেত্রে নতুন নিয়ম আনছে, শিশুদের খেলার সময় সীমিত করে দিচ্ছে।

অন্যদিকে, পৃথক প্রতিবেদনে এ ধরনের শিল্পকে কর রেয়াত দেওয়া উচিত নয় বলে উঠে এসেছিল।

চায়না ন্যাশনাল রেডিও’র মতে, যে গেইমগুলোতে ইতিহাস বিকৃত হচ্ছে তা অল্প বয়সীদেরকে বিপথে পরিচালিত করতে পারে। এ প্রসঙ্গে একটি উদাহরণও দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি, - এক গেইমে চীনের সঙ সম্রাজ্যের চীনা জেনারেল এবং জাতীয় বীর ইয়া ফে –কে আত্মসমর্পণকারী হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে।

সম্পদ থেকে শুরু করে প্রযুক্তি এবং ব্যক্তিগত শিক্ষাদান খাতকেও সম্প্রতি শক্ত হাতে দমন করা শুরু করেছেন চীনা নিয়ন্ত্রকরা। নতুন নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে খাতগুলোতে সমাজতান্ত্রিক মূল্যবোধ প্রচারের চেষ্টা এবং খাতগুলোর পুঁজিবাদী প্রসারণ দমনে কাজ করছেন তারা। অনেক সমালোচকই খাতগুলোর পুঁজিবাদী প্রসারণকে “বেপোরোয়া” আখ্যা দিয়েছিলেন।  

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক