এনএফটি আর ক্রিপ্টো'র পার্থক্য বুঝিয়ে বলছে অ্যান্ট গ্রুপ

নন ফাঞ্জিবল টোকেন বা এনএফটির সঙ্গে ক্রিপ্টোকারেন্সির পার্থক্য বুঝিয়ে বলার কাজটি নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছে চীনা 'ফিনটেক' প্রতিষ্ঠান অ্যান্ট গ্রুপ। এই বিশেষ ধরনের ডিজিটাল পণ্যের সঙ্গে ডিজিটাল অর্থ নিয়ে গ্রহকদের বিভ্রান্তি দূর করার জন্যই উদ্যোগ নিয়েছে অ্যান্ট। 

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 June 2021, 02:54 PM
Updated : 24 June 2021, 02:54 PM

ক্রিপ্টোকারেন্সি বিষয়ে চীন সরকারের সাম্প্রতিক কঠোর অবস্থানের কারণে এনএফটি নিয়েও গ্রাহক-ক্রেতাদের মধ্যে সংশয় কাজ করছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে রয়টার্স।

জ্যাক মা’র ফিনটেক গ্রুপ অ্যান্ট তার পেমেন্ট প্ল্যাটফর্ম আলিপে-এর মাধ্যমে দুটি এনএফটি সমর্থিত অ্যাপ ইমেজ বিক্রির ঘোষণা দিয়েছে এবং বুধবার আইটেমগুলি দ্রুত বিক্রি হয়ে গেছে।

“আলিপে এনএফটি পণ্য বিক্রি করছে। এটা কি অবৈধ লেনদেন নয়?” চীনের টুইটার নামে পরিচিত উইবোতে এক প্রশ্ন পোস্ট করেছেন একজন ব্যবহারকারী।

গত বছর মেগা-আইপিও ভেস্তে যাওয়ার পর চীন সরকার নির্দেশিত পুনর্গঠনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে অ্যান্ট। প্রতিষ্ঠানটি বুধবার বলেছে, নন ফাঞ্জিবল টোকেন এবং ক্রিপ্টোকারেন্সি দুটি ভিন্ন জিনিস।

এনএফটি'র জনপ্রিয়তা এ বছর আকাশচুম্বি হয়েছে, লক্ষ লক্ষ ডলারে বিক্রি হয়েছে এনএফটি শিল্পকর্ম।

অ্যান্ট গ্রুপের ব্লকচেইন ভিত্তিক প্রযুক্তি সমাধানদাতা ইউনিট অ্যান্টচেইনের এক মুখপাত্র বলেন, "এনএফটি বিনিময়যোগ্য নয়, একে ভাগ করা যায় না, যা এটিকে বিটকয়েনের মতো ক্রিপ্টোকারেন্সি থেকে প্রকৃতিগতভাবে আলাদা করে তোলে।"

তিনি বলেন, ডিজিটাল সম্পদের জন্য একটি অনন্য স্বাক্ষর তৈরি করতে এনএফটি ব্যবহার করা যেতে পারে।

নিউ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটির ল' স্কুলের সঙ্গে যুক্ত অধ্যাপক উইনস্টন মা এনএফটি'র প্রকৃতি নিয়ে বিভ্রান্তির বিষয়টিও তুলে ধরেন।

"এনএফটি কি ভার্চুয়াল মুদ্রা? অথবা, এনএফটি কি ভার্চুয়াল মুদ্রার জন্য সনদ হিসেবে কাজ করে? এবং আরও গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন, এনএফটি কি সিকিউরিটি বন্ডের মতো? এই প্রশ্নগুলির জবাব ডিজিটাল অর্থনীতির বড় কোনও নীতি নির্ধারণী কর্তৃপক্ষ এর কোনও উত্তর দেয়নি," মা বলেন।

অ্যাপ ইমেজ ছাড়াও, এনএফটি ডিজিটাল শিল্পকর্ম আলিবাবার প্ল্যাটফর্মে নিলাম হয় যা অ্যান্টের আলিপে অ্যাপের মাধ্যমে অ্যাক্সেস করা যায়। অ্যান্টচেইন পণ্য চুক্তিতে বলেছে যে এটি এনএফটি পণ্যে ব্লকচেইন প্রযুক্তি সরবরাহ করে।

আর্টওয়ার্কগুলি এন্টচেইনের স্টোরেজ স্পেসে থাকে। অ্যান্টচেইন এর সঙ্গে ব্লকচেইনভিত্তিক ডিজিটাল সনদ যোগ করে দেয় যেটি এই ডিজিটাল সম্পদের মালিকানার প্রমাণ হিসেবে থাকে।

চীন গত এক মাস ধরে ক্রিপ্টোকারেন্সি ট্রেডিং এবং মাইনিংয়ের বিরুদ্ধে একটি অভিযান জোরদার করেছে। দেশটি বলছে, এটি আর্থিক ঝুঁকি প্রতিরোধ প্রচেষ্টার অংশ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক