মাইক্রোসফট হ্যাকিং: সন্দেহের আঙ্গুল চীনের দিকে

সম্প্রতি হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কিছু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি সংস্থা। মাইক্রোসফটের ইমেইল সেবা ব্যবহার করে এই হামলা চালিয়েছে হ্যাকাররা। এখন মাইক্রোসফট দাবি করেছে, রাষ্ট্রীয় সমর্থনে চালানো হতে পারে এই হামলা।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 March 2021, 07:43 AM
Updated : 7 March 2021, 07:43 AM

হ্যাকিংয়ের এই ঘটনার জন্য চীনের দিকে আঙ্গুল তুলেছে মাইক্রোসফট। এই ঘটনায় মাইক্রোসফটের এক্সচেঞ্জ সেবার দূর্বলতা কাজে লাগিয়েছে হ্যাকাররা। প্রতিষ্ঠানের মেইল এবং ক্যালেন্ডার সার্ভারই হলো এক্সচেঞ্জ। ছোট ব্যবসা থেকে শুরু করে সরকারি এবং সেনাবাহিনীর ঠিকাদাররা মাইক্রোসফটের এক্সচেঞ্জ সেবা ব্যবহার করে।

হামলরা বিষয়ে এখনও তদন্ত চলছে। কিছু বিশেষজ্ঞের বিশ্বাস, এই সাইবার হামলায় ভুক্তভোগী হয়েছেন লাখো গ্রাহক এবং এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রে বিস্তৃত এই সাইবার হামলা প্রথম আবিষ্কার করেছে সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান ভেলোজিটি। প্রতিষ্ঠানটির ভাষ্য, জানুয়ারিতে গোপনে বেশ কিছু লক্ষ্যে হামলা চালিয়েছে হ্যাকাররা। কিন্তু মাইক্রোসফট যখন নিজেদের ব্যবস্থার দূর্বলতা সারানোর চেষ্টা করছে, তখন সাম্প্রতিক সপ্তাহে হ্যাকিংয়ের চেষ্টা বেড়েছে আরও।

নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদন বলছে, বুধবার জরুরি সতর্কবার্তা জারি করেছে সরকারি সাইবার নিরাপত্তা সংস্থা। ফেডারেল সংস্থাগুলোকে তাৎক্ষণিকভাবে নিজস্ব ব্যবস্থায় প্যাচ ইনস্টল করতে বলা হয়েছে।

শুক্রবার এক প্রতিবেদনে সাইবার নিরাপত্তা প্রতিবেদক ব্রায়ান ক্রেবস বলেছেন, এই হামলায় অন্তত ৩০ হাজার মাইক্রোসফট গ্রাহক আক্রান্ত হয়েছে।

এদিকে শুক্রবার সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার সময় হোয়াইট হাউস প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বলেছেন, “আমরা চিন্তিত যে, এখানে ভুক্তভোগীর সংখ্যা অনেক বেশি। এই হামলার প্রভাব আরও বিস্তৃত হতে পারতো।”

ভেলোজিটি প্রতিষ্ঠাতা স্টিভেন আদাইর জানিয়েছেন, জানুয়ারিতে এই হ্যাকিং প্রচারণা শনাক্ত করা হয়। বেশ কিছু লক্ষ্যের কাছ থেকে গোপনে ইমেইল চুরি করেছে হ্যাকাররা। এরপর এক্সচেঞ্জ ব্যবস্থার দূর্বলতা কাজে লাগিয়ে পাসওয়ার্ড ছাড়াই ব্যবস্থায় প্রবেশ করেছে তারা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক