ইউরোপে ফাইজার ও বায়োএনটেকের কোভিড-১৯ টিকার ডেটা বেহাত

ইউরোপে ‘ফাইজার’ এবং ‘বায়োএনটেক’ এর কোভিড-১৯ টিকার ডেটা চুরি করেছে হ্যাকাররা। এ ব্যাপারে সম্প্রতি জানিয়েছে প্রতিষ্ঠান দুটি। মূলত ইউরোপের মেডিসিন নিয়ন্ত্রকের উপর হওয়া এক সাইবার হামলায় ডেটা খোয়া গেছে।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 Dec 2020, 02:36 PM
Updated : 10 Dec 2020, 02:36 PM

বুধবার ফাইজার এবং বায়োএনটেক জানিয়েছে, ইউরোপের মেডিসিন নিয়ন্ত্রকের উপর সাইবার হামলায় তাদের কোভিড-১৯ প্রতিষেধক উন্নয়ন সম্পর্কিত ডেটায় “অবৈধ অনুপ্রবেশের” ঘটনা ঘটেছে। অন্যদিকে, ‘ইউরোপিয়ান মেডিসিনস এজেন্সি’ (ইএমএ) জানিয়েছে, মূল সাইবার হামলার কয়েক ঘণ্টা আগে ঘটেছে ওই ঘটনা। তবে, এ ব্যাপারে বিস্তারিত আর কোনো তথ্য দেয়নি প্রতিষ্ঠানটি।

ফাইজার এবং বায়োএনটেক ধারণা করছে, ট্রায়ালে অংশগ্রহণকারীর কোনো ব্যক্তিগত ডেটা এখন পর্যন্ত খোয়া যায়নি। প্রতিষ্ঠান দুটি আরও বলছে, ইএমএ তাদের আশ্বস্ত করেছে, “সাইবার আক্রমণের কারণে পর্যালোচনার সময়সীমায় কোনো প্রভাব পড়বে না।”

ঠিক কীভাবে, কেন আক্রমণ হয়েছে, সে ব্যাপারগুলো তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। কারা এর সঙ্গে জড়িত বা অন্যান্য কী তথ্য বেহাত হয়েছে, সেটিও এখনও অজানা।

মূলত দুটি প্রতিষ্ঠানকেই ইএমএ জানিয়েছে, তারা “সাইবার আক্রমণের কবলে পড়েছিল, এবং ফাইজার ও বায়োএনটেকের কোভিড-১৯ প্রতিষেধক প্রার্থীর নিয়ন্ত্রক জমা সম্পর্কিত কিছু নথি” দেখা হয়েছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অন্যান্য দেশ ও প্রতিষ্ঠান যারা প্রতিষেধক তৈরির জন্য কাজ করছে, তাদের জন্য এ ধরনের ডেটা খুব গুরুত্বপূর্ণ।

“যখন এ ধরনের নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষের কাছে ডেটা জমা দেওয়ার প্রশ্ন আসে, তখন তাতে অনেক গোপনীয় তথ্য থাকে প্রতিষেধক সম্পর্কে এবং এটি কীভাবে কাজ করে, এর কার্যকারিতা, ঝুঁকি এবং সম্ভাব্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ও নীতিমালা সামাল দেওয়ার মতো নতুন বিষয়ও উল্লেখিত থাকে।” – বলেছেন কোভিড-সংশ্লিষ্ট অনুপ্রবেশ নিয়ে লড়ছে এমন স্বেচ্ছাসেবী একটি দলের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক রজার্স। তার প্রতিষ্ঠিত দলটির নাম ‘সিটিআই লিগ’।

এ প্রসঙ্গে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি বায়োএনটেকের মুখপাত্র। অন্যদিকে, ফাইজার মুখপাত্র বাড়তি মন্তব্যের অনুরোধে সাড়া দেননি।    

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক