রাশিয়ান হ্যাকারদের লক্ষ্য করোনাভাইরাসের টিকা

করোনাভাইরাসের টিকা নিয়ে গবেষণারত সংস্থাগুলোকে লক্ষ্য বানাচ্ছে রাশিয়ান হ্যাকাররা, এমন সতর্কবার্তাই দিয়েছে কয়েকটি জাতীয় নিরাপত্তা সেবার একটি দল।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 July 2020, 04:03 PM
Updated : 16 July 2020, 04:03 PM

যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল সাইবার সিকিউরিটি সেন্টার (এনসিএসসি) দাবি করেছে, হ্যাকাররা “প্রায় নিশ্চিতভাবেই রাশিয়ান গোয়েন্দা সংস্থার অংশ” হিসেবে কার্যক্রম চালাচ্ছে-- খবর বিবিসি’র।

কোভিড-১৯ টিকা সম্পর্কিত তথ্য চুরি করতে দলটি ম্যালওয়্যার ব্যবহার করছে বলেও দাবি করেছে এনসিএসসি।

এই ঘটনাকে “জঘন্য” বলেছেন এনসিএসসি’র পরিচালনা বিভাগের পরিচালক পল চিচেস্টার।

সতর্কবার্তাটি প্রকাশ করেছে নিরাপত্তা সেবাদাতাদের একটি জোট। এর মধ্যে রয়েছে যুক্তরাজ্যের এনসিএসসি, কানাডিয়ান কমিউনিকেশন সিকিউরিটি এস্টাবলিশমেন্ট (সিএসই), মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট ফর হোমল্যান্ড সিকিউরিটি (ডিএইচএস) এবং সাইবার-সিকিউরিটি ইনফ্রাস্টাকচার সিকিউরিটি এজেন্সি (সিআইএসএ) এবং যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল সিকিউরিটি এজেন্সি (এনএসএ)।

‘এপিটি২৯’ নামের একটি দলের অংশ ওই হ্যাকাররা। ‘দ্য ডিউকস’ বা ‘কোজি বেয়ার’ নামেও পরিচিত দলটি।

দূর্বল কম্পিউটার ব্যবস্থায় প্রবেশ করতে সফটওয়্যার ত্রুটির সুযোগ নিয়েছে হ্যাকাররা। আর আক্রান্ত মেশিনগুলোতে ফাইল আপলোড এবং ডাউনলোড করতে ওয়েলমেস এবং ওয়েলমেইল নামের ম্যালওয়্যার ব্যবহার করেছে দলটি।

এ ছাড়াও স্পিয়ার-ফিশিং অ্যাটাকের মাধ্যমে ব্যবহারকারীকে ধোঁকা দিয়ে লগইন তথ্য হাতিয়ে নিয়েছে হ্যাকাররা।

সতর্কবার্তার প্রতিবেদন বলছে, “২০২০ সাল জুড়েই, কোভিড-১৯ টিকা নিয়ে গবেষণারত কানাডা, যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন সংস্থাকে লক্ষ্য বানিয়েছে এপিটি২৯। কোভিড-১৯ টিকার উন্নয়ন এবং পরীক্ষা বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য এবং মেধাসত্ত সম্পত্তি হাতিয়ে নেওয়াই এই হামলার লক্ষ্য, এমন শঙ্কাই বেশি।”

কোন সংস্থাগুলোকে হ্যাকাররা লক্ষ্য বানিয়েছে বা কোনো তথ্য চুরি গেছে কিনা তা নির্দিষ্ট করে প্রতিবেদনে উল্লেখ করেনি নিরাপত্তা সেবাগুলো।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক