চীনা পণ্যে ট্রাম্পের ১৫ শতাংশ শুল্ক চালু

১ সেপ্টেম্বর রোববার থেকে চালু হয়েছে চীন থেকে আমদানিকৃত পণ্যের ওপর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসনের দেওয়া বাড়তি শুল্ক।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 Sept 2019, 11:09 AM
Updated : 2 Sept 2019, 11:09 AM

চীন থেকে আমদানিকৃত১১ হাজার ২০০ কোটি মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্যের ওপর ১৫ শতাংশ শুল্ক আরোপ করেছে ট্রাম্পপ্রশাসন। ফলে চীনে তৈরি দুধ, ডায়পার থেকে শুরু করে অ্যাপল ওয়াচের মতো প্রযুক্তিপণ্যগুলোতেওবসবে এই শুল্ক-- প্রযুক্তি সাইট সিনেটের।

আগের বছরেরনভেম্বর মাস থেকেই চীনে তৈরি ইলেকট্রনিক পণ্যের ওপর বাড়তি শুল্ক বসানোর উদ্যোগ নেনট্রাম্প। ফোন, ল্যাপটপ, গেইমিং কনসোলসহ যেসব পণ্যে ১০ শতাংশ শুল্ক বসবে তার একটি তালিকাওপ্রকাশ করা হয় ইউএস ট্রেড রিপ্রেজেনটেটিভের (ইউএসটিআর) পক্ষ থেকে।

চলতি বছর ১৩অগাস্ট ইউএসটিআর-এর পক্ষ থেকে আবারও ঘোষণা দেওয়া হয়, ১৬ হাজার কোটি মার্কিন ডলার মূল্যেরআমদানিকৃত ল্যাপটপ এবং সেলফোনের ওপর শুল্কে সাময়িক ছাড় দেওয়া হবে। ১৫ ডিসেম্বরের আগেএই পণ্যগুলোতে বাড়তি শুল্ক আরোপ করা হবে না। ছুটির মৌসুমের কেনাকাটায় যাতে এর প্রভাবনা পড়ে সে কারণেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

পরবর্তীতে চীনাপণ্যে শুল্ক ১০ শতাংশের বদলে ১৫ শতাংশ করার ঘোষণা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেরসর্ববৃহৎ ব্যাংক জে.পি. মরগান চেইসের পক্ষ থেকে বলা হয়, নতুন শুল্ক আইনের কারণে একজনসাধারণ মার্কিন নাগরিকের বছরে এক হাজার ডলার বেশি খরচ হবে।

যুক্তরাষ্ট্রেরসঙ্গে বাণিজ্য যুদ্ধের জের ধরে ১ সেপ্টেম্বর নিজস্ব শুল্ক ব্যবস্থা চালু করেছে চীন।যুক্তরাষ্ট্র থেকে আসা সাড়ে সাত হাজার কোটি মার্কিন ডলার মূল্যের সয়াবিন এবং অপরিশোধিততেলের ওপর বাড়তি শুল্ক বসিয়েছে দেশটি। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্র থেকে আমদানিকৃত গাড়ির ওপররাখা হয়েছে বাড়তি ২৫ শতাংশ শুল্ক, যা কার্যকর হবে ১৫ ডিসেম্বর থেকে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক