ফেইসবুক-হোয়াটসঅ্যাপ একত্রীকরণ ২০২০-এর আগে নয়

মেসেঞ্জার, হোয়াটসঅ্যাপ ও ইনস্টাগ্রামের চ্যাটিং সেবা এক করার পরিকল্পনা দীর্ঘমেয়াদী বলেছেন ফেইসবুক প্রধান মার্ক জাকারবার্গ। শীঘ্রই এটির বাস্তবিক প্রয়োগ দেখা যাবে না।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Feb 2019, 11:51 AM
Updated : 1 Feb 2019, 11:51 AM

বুধবার ফেইসবুকের চতুর্থ প্রান্তিকের আয়ের প্রতিবেদনে প্রকাশের পর জাকারবার্গ বলেন, একত্রিকরণ পরিকল্পনা এখনও প্রাথমিক চিন্তার মধ্যে রয়েছে-- খবর আইএএনএস-এর।

“পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে এখনও অনেক কিছু ঠিক করতে হবে। এটি দীর্ঘমেয়াদী প্রকল্প হবে, যা আমার ধারণা ২০২০ সাল বা তার পরে সম্ভব হবে,” বলেন জাকারবার্গ।

এই প্রকল্পের বাণিজ্যিক লাভের চেয়ে তিনি ‘ডেটা এনক্রিপশন নিয়ে বেশি চিন্তিত’ বলেও জানানো হয়েছে।

“প্রথম যে কারণটা নিয়ে আমি উদ্বিগ্ন তা হলো আমাদের আরও বেশি পণ্যে এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন যোগ করা। গ্রাহক হোয়াটঅ্যাপে এটি আসলেই পছন্দ করে।”

“আমরা এমন আরও অনেক বিষয় দেখতে পাই যেখানে গ্রাহক আমাদেরকে বিভিন্ন সেবার মধ্যে বার্তা আদান প্রদানের সুযোগ দিতে বলছেন,” যোগ করেন জাকারবার্গ।

সোমবার হোয়াটসঅ্যাপ, মেসেঞ্জার ও ইনস্টাগ্রামের চ্যাটিং সেবা এক করার বিষয়ে ফেইসবুককে সতর্ক করেছে আইরিশ ডেটা প্রোটেকশন কমিশন (ডিপিসি)। এই পরিকল্পনা নিয়ে “জরুরীভিত্তিতে বিজ্ঞপ্তি” দিতে বলা হয়েছে প্রতিষ্ঠানটিকে।

ডিপিসি’র এক বিবৃতিতে বলা হয়, “ফেইসবুকের পরিকল্পনা সামনে এগোলে বিষয়টি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করবে আইরিশ ডিপিসি, বিশেষ করে ফেইসবুকের ভিন্ন ভিন্ন প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে শেয়ারিং ও একত্রিকরণের বিষয়টি।”

অন্যদিকে জাকারবার্গ বলছেন, গ্রাহকের অ্যাপ চালানোর অভিজ্ঞতা আরও বিস্তৃত করতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

“লাখো কোটি গ্রাহক এখন ফেইসবুকের মার্কেটপ্লেইস ব্যবহার করছেন এবং এমন অনেক দেশ থেকে এটি করা হচ্ছে যেখানে প্রাথমিক মেসেজিং অ্যাপ হিসেবে তারা হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন।”

“আমাদের এটি করতে হবে যাতে গ্রাহক ভিন্ন ভিন্ন নেটওয়ার্কে যোগাযোগ করতে পারেন এবং সহজে লেনদেন করতে পারেন,”- বলেন জাকারবার্গ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক