‘অমিল’ ডেটা নিয়ে মুখ খুলল ফেইসবুক

বিজ্ঞাপন সম্পর্কিত ডেটা ভুল নিয়ে সম্প্রতি উঠে আসা অভিযোগের কথা স্বীকার করেছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুক। কিন্তু এক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের ২.৫ কোটি তরুণকে একাধিকবার গণণা করা এই ভুলের মধ্যে নেই বলেও দাবি প্রতিষ্ঠানটির।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Sept 2017, 12:01 PM
Updated : 8 Sept 2017, 08:03 AM

বিজ্ঞাপন কতজন মানুষের কাছে পৌঁছাবে তা নিয়ে ফেইসবুক যে সম্ভাব্য ডেটা দেয় তা মার্কিন শুমারির ডেটার সঙ্গে মেলে না, মঙ্গলবার এ তথ্য প্রকাশ করে রীতিমতো বোমা ফাটান বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান পিভোটাল রিসার্চ গ্রুপ-এর জ্যেষ্ঠ বিশ্লেষক ব্রায়ান ওয়াইজার। ওয়াইজারের ওই প্রতিবেদন অনলাইন বিজ্ঞাপন জগতে আলোড়ন তোলে।

এ নিয়ে ফেইসবুকের বৈশ্বিক বিপণন কৌশলবিষয়ক ভাইস প্রেসিডেন্ট ক্যারোলিন এভারসন বলেন, ওয়াইজার-এর বিবৃতি ভুলভাবে দেখা হচ্ছে আর এ নিয়ে সম্ভাব্য ক্ষতি ঠেকাতে হয়ত ফেইসবুককে কিছু করতেও হবে। ব্যবসা-বাণিজ্যবিষয়ক মার্কিন সাইট বিজনেস ইনসাইডার-কে তিনি বলেন, “হিসেবটি সংবাদমাধ্যমে পরিমাপের ভুল হিসেবে দেখানো হচ্ছে এবং এটি আমাদের জন্য একটি চ্যালেঞ্জ,। এটি আসলে ডেটা সংগ্রহে দুটি আলাদা প্রক্রিয়া। সে কারণেই আমাদের হিসাব শুমারির হিসাবের সঙ্গে মেলার কথা নয়।”

ওয়াইজার-এর বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, ফেইসবুকের বিজ্ঞাপন ক্রয় ওয়েবসাইট বিজ্ঞাপনদাতাদের বলে, বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক মাধ্যমটিতে বিজ্ঞাপন দিলে তা যুক্তরাষ্ট্রে ১৮ থেকে ২৪ বছর বয়স্ক ৪.১০ কোটি মানুষের কাছে পৌঁছানোর সম্ভাবনা রয়েছে। ওয়েইজারের প্রতিবেদনে প্রশ্ন তোলা হয়েছে ওই তথ্যের সত্যতা সম্পর্কে। কারণ, যুক্তরাষ্ট্রে শুমারির ডেটা অনুযায়ী ২০১৬ পর্যন্ত হিসাবে দেশটিতে এই বয়সের মানুষ আছেন ৩.১০ কোটি।

ফেইসবুক যেভাবে তাদের দর্শকদের গণনা করে আর যুক্তরাষ্ট্রের শুমারি যেভাবে করা হয় তার মধ্যে কিছু মূল পার্থক্য রয়েছে। একটি হচ্ছে, মানুষ ফেইসবুকে নিজেরাই তাদের বয়সের তথ্য দেয় যেখানে বেশির ভাগই কমবয়সী। প্রতিষ্ঠানটি তাদের পোঁছানোর সংখ্যা হিসাবে স্থানের ডেটাও ব্যবহার করে থাকে। এর মানে হচ্ছে কোনো স্থানের পর্যটক আর অন্যান্য ব্যবহারকারীদেরও এই হিসাবের মধ্যে ধরা হয়, মন্তব্য প্রতিষ্ঠানটির এক মুখপাত্রের।

এই হিসাবের তথ্য দিয়ে ফেইসবুক বিজ্ঞাপনদাতাদের কাছ থেকে কোনো অর্থ নেয় না- এ কথা স্বীকার করেছেন ওয়াইজার। কিন্তু তার ধারণা, বিজ্ঞাপনদাতারা কীভাবে ও কোথায় তাদের বিজ্ঞাপনের জন্য বেশি খরচ করবেন তা এই তথ্য প্রভাবিত করে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক