যুক্তরাষ্ট্রে রাশিয়ান হ্যাকারের জেল

হাজারো কম্পিউটারে হ্যাকিংয়ের দায়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ৪৬ মাসের জেল হয়েছে ম্যাক্সিম সেনাখ নামের এক রাশিয়ান হ্যাকারের।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 August 2017, 01:09 PM
Updated : 4 August 2017, 01:09 PM

‘ইবারি’ বটনেট ব্যবহার করে লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেমচালিত কম্পিউটার থেকে লগইন নেইম এবং পাসওয়ার্ড চুরির অভিযোগ রয়েছে ওই হ্যাকারের বিরুদ্ধে। যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা আদালতে তার রায় দেওয়া হয়েছে-- খবর বিবিসি’র।

২০১৫ সালে ফিনল্যান্ডে গ্রেপ্তার করা হয় সেনাখ-কে। পরবর্তীতে কম্পিউটার জালিয়াতি ও অপব্যবহারের মামলায় তাকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

বেশ কিছু স্ক্যামে ব্যবহার হয়েছে এমন হাজারো কম্পিউটার হ্যাকিংয়ের সঙ্গে জড়িত ছিলেন সেনাখ।

এক বিবৃতিতে ভারপ্রাপ্ত মার্কিন অ্যাটর্নি গ্রেগরি ব্রুকার বলেন, “সমাজ যত বেশি কম্পিউটার নির্ভর হচ্ছে সেনাখ-এর মতো সাইবার অপরাধীরা গুরুতর হুমকি হয়ে দাঁড়াচ্ছে।”

সেনাখ-এর বিরুদ্ধে মার্কিন ডিপার্টমেন্ট অফ জাস্টিস-এর অভিযোগ তিনি এবং তার সঙ্গীরা যে কম্পিউটারগুলোর নিরাপত্তা ভেঙেছেন করেছেন সেগুলো নেট ট্রাফিক ‘জেনারেট ও রিডাইরেক্ট’ করার কাজে ব্যবহার করা হয়েছে যাতে গ্রাহক ভুয়া স্কিমে ক্লিক করেন। অর্থ আয়ের জন্য ওয়েব বিজ্ঞাপনে এতে ভুয়া ক্লিক ব্যবহার করা হয়।

এ ছাড়া এই কম্পিউটারগুলো দিয়ে ‘জাংক’ ইমেইল তৈরি ও ছড়ানো হয়েছে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। এ মামলায় চলতি বছরের মার্চে তাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়।

মিনেসোটা’য় এই মামলার রায় দেওয়া হয়েছে কারণ হ্যাকিংয়ের জন্য বটনেট তৈরির কিছু কম্পিউটারের অবস্থান মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ছিল।

সেনাখ-এর শাস্তি শেষ হলে তাকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বের করে দেওয়ার কথা রয়েছে।

২০১৬ সালের মাঝামাঝি তার গ্রেপ্তারের নিন্দা করে রাশিয়ান কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবি এটি রাশিয়ান নাগরিকদের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের ‘রীতিবদ্ধ ডাইনী-শিকার’-এর একটি অংশ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক