মন্তব্য সরিয়ে ভুল স্বীকারে রেডিট প্রধান

সামাজিক যোগাযোগের সাইট রেডিট-এর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত ডোনাল্ড ট্রাম্প-এর কমিউনিটি পেইজ থেকে মন্তব্য সরিয়ে ভুল স্বীকার করেছেন প্রতিষ্ঠান প্রধান স্টিভ হফম্যান।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 Nov 2016, 03:19 PM
Updated : 27 Nov 2016, 03:20 PM

সাইটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবংপ্রধান নির্বাহী হফম্যান জানান, তিনি সাইটের ‘দ্য_ডোনাল্ড’ কমিউনিটি পেইজ হতেমন্তব্য মুছে ফেলেছেন। অনলাইনে ডোনাল্ড ট্রাম্প-কে সমর্থনের জন্য এই পেইজটি ‘জনপ্রিয়’ বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ দৈনিক ইন্ডিপেনডেন্ট।

অনলাইনে ‘স্পেজ’নামে পোস্ট দিয়ে থাকেন হফম্যান। মূলত তার নিজের সঙ্গে জড়িত মন্তব্যইসরিয়ে ফেলেছেন তিনি। তার নামযুক্ত করে ইংরেজিতে বাজেমন্তব্য করা হলে তার নাম বদলে দেন তিনি। নাম এমনভাবে বদলানো হয় যাতে মনেহয় সাবরেডিট নিয়ামকদের সমালোচনা করা হচ্ছে।

মন্তব্যে পরিবর্তন আনা হয়েছে এক গ্রাহক তা বুঝতে পারার পর হফম্যানসবার উদ্দেশ্যে এক পোস্টে বলেন, “হ্যাঁ আমি ওইমন্তব্য বদলেছি, ‘স্পেজ’-কে ‘আর/দ্য_ডোনাল্ড’-এ পরিবর্তন করেছি। দীর্ঘ এক সপ্তাহ ধরে আমারা আর/পিৎজাগেইট বিষয়টি ঠিক করার চেষ্টা করছি। আমরা যতোই আপনাদের সঙ্গে ভালোসম্পর্ক বজায় রাখার চেষ্টা করি ততই  অশ্লীল বাক্যালাপে রূপ নেয়।”

পিৎজাগেইট হলো এমন একটি ভুয়া খবর যেখানে বলা হয় হিলারি ক্লিনটনএবং ক্যাম্পেইন চেয়ারম্যান জন পোডেস্টা ওয়াশিংটন ডিসি-র পিৎজা রেস্টুরেন্টে শিশু নির্যাতন বন্ধের অঙ্গীকারকরেন। খবরটি ভুয়া হওয়া সত্ত্বেও অনেকেইতা ইন্টারনেটে প্রচার করেন, এমনকি রেডিট-এও।

রেডিট প্রধানের মন্তব্য পরিবর্তনে ক্ষুব্ধ হয়েছেন অনেক গ্রাহকই। এজন্য ভুল স্বীকার করে হফম্যানবলেন, “একজন প্রধান হিসেবে আমার এমনটাকরা উচিত হয় নি এবং এটি এখন ঠিক করা হয়েছে। আমাদের সাম্প্রদায়িক দল এতে আমারউপর ক্ষুব্ধ। তাই আমি নিশ্চিত করছি আর এমনটাকরব না।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক