ডিজিটাল বাংলাদেশে ক্লাস টিউন

বাংলাদেশের বেশ কিছু স্কুলে ব্যবহৃত হচ্ছে লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম সফটওয়্যার 'ক্লাস টিউন'।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 Oct 2016, 03:32 PM
Updated : 19 Oct 2016, 03:32 PM

বিশ্বের অন্যান্য স্কুলগুলোর মতো বাংলাদেশের স্কুলগুলোতে ডিজিটাল শিক্ষাব্যবস্থাকে ত্বরান্বিত করতে ক্লাস টিউনের ভুমিকা হতে পারে অনস্বীকার্য, এমনটাই জানিয়েছেন এর নির্মাতারা।  

নির্মাতারা জানান, এখন পর্যন্ত স্কুলগুলোতে রেজিস্ট্রার খাতায় উপস্থিতি থেকে শুরু করে, শিক্ষার্থীদেরকে খাতায় বাসার কাজ বা ক্লাস লেকচার লিখে নিয়ে যেতে হচ্ছে। এতে করে তাদের সময় এবং শ্রম দুটোই নষ্ট হয়। এক্ষেত্রে ঠিক কি করলে পড়ার সময়টাকে আরও বাড়িয়ে তাদের মেধা বিকাশকে আরও ত্বরান্বিত করা যায় ঠিক এ চিন্তা থেকেই মূলত “ক্লাস টিউন”- লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম সফটওয়্যারটি তৈরি করা হয়।

এতে অভিভাবক, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের আলাদা তিনটি প্যানেলের মাধ্যমে একে অপরের সঙ্গে খুব সহজেই প্রয়োজনীয় সব কাজ করতে পারবেন। আন্তার্জাতিক এডুকেশন ও টেকনোলজি মেলা “বেট ২০১৬"-তে অংশগ্রহণের মধ্যদিয়েই মূলত ক্লাসটিউনের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় এবারের ডিজিটাল বাংলাদেশে অংশগ্রহণ করছে ক্লাস টিউন। গত দুই বছরেরও বেশী সময় ধরে স্কুল ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম সফটওয়্যারটি তৈরী নিয়ে কাজ করছে টিউন।

বর্তমানে ঢাকা এবং ঢাকার বাইরে ১০টি স্কুল ক্লাস টিউন ব্যবহার করছে। এছাড়াও দেশের বাইরে সফটওয়্যারটি চালু করার পরিকল্পনা রয়েছে নির্মাতা দলটির। ইতোমধ্যে থাইল্যান্ড, যুক্তরাজ্য, জার্মানি ও মধ্যপ্রাচ্যের বাজার যাচাই ও পরিবেশক নিয়োগ এর কাজ চলছে। সম্প্রতি বিশ্বের মোট পাঁচটি দেশে ডিস্ট্রিবিউটর নিয়োগ দিয়েছেন তারা।

এ ধরনের সিস্টেমের জন্য সার্ভিস একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তাই সফটওয়্যারটি  বিক্রয় পরবর্তী সেবার জন্য প্রত্যোকটি স্কুলে ক্লাসটিউনের একজন করে প্রতিনিধি দিচ্ছে এই প্রতিষ্ঠান।

স্মার্টফোনে চালানোর সুবিধার্থে অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস ডিভাইসের জন্য তৈরি করা হয়েছে অ্যাপটি। ডেস্কটপ বা ল্যাপটপ থেকেও এটি ব্যবহার করা সম্ভব বলে জানানো হয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক