সোনালী পেপারকে রাইট শেয়ার ছেড়ে ১১ কোটি টাকা তোলার অনুমতি

রাইট শেয়ার ছেড়ে সোনালী পেপার অ্যান্ড বোর্ড মিলসকে পুঁজিবাজার থেকে ১১ কোটি টাকা তোলার অনুমোদন দিয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 April 2022, 02:59 PM
Updated : 20 April 2022, 02:59 PM

বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম।

সোনালী পেপার অ্যান্ড বোর্ড মিলস ১০ টাকা মূল্যের ১ কোটি ৯ লাখ ৮১ হাজার ৭২৯ লাখ শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে ১০ কোটি ৯৮ লাখ ১৭ হাজার ২৯০ টাকা টাকা তুলবে।

বিনিয়োগকারীরা সোনালী পেপারের দুটি শেয়ারের বিপরীতে একটি করে রাইট শেয়ার পাবেন।

সোনালী পেপার রাইট শেয়ারের মাধ্যমে তোলা অর্থ দিয়ে মূলধনী যন্ত্রপাতি কিনবে বলে আবদনে উল্লেখ করেছে।

এই রাইট শেয়ারের ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে ইউসিবি ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

সোনালী পেপার ২০২০ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। বর্তমানে এর লেনদেন হচ্ছে ‘এ’ ক্যাটাগরীতে।

২০১৯ অর্থবছরে সোনালী পেপার মুনাফা করেছিল ৬ কোটি ৩৪ লাখ টাকা; লভ্যাংশ দিয়েছিল প্রতি শেয়ারে নগদ ১ টাকা।

২০২০ অর্থবছরে ২ কোটি ৬৭ লাখ টাকা মুনাফা করে সোনালী পেপার বিনিয়োগকারীদের প্রতি ১০০ শেয়ারে নতুন ১০ শেয়ার লভ্যাংশ দেয় এবং প্রতি শেয়ারে ৫০ পয়সা নগদ লভ্যাংশ দেয়।

আর ২০২১ অর্থবছরে এ কোম্পানি ৮ কোটি ৯৫ লাখ টাকা মুনাফা দেখিয়েছিল; বিনিয়োগকারীদের প্রতি ১০০ শেয়ারে নতুন ২০ শেয়ার লভ্যাংশ দেয় এবং প্রতি শেয়ারে ২ টাকা নগদ লভ্যাংশ দেয়।

পুঁজিবাজারে এ কোম্পানির ২ কোটি ১৯ লাখ ৬৩ হাজার ৪৬০টি শেয়ার আছে; এর মধ্যে ৬৭ দশমিক ৫১ শতাংশ আছে পরিচালকদের হাতে।

প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের হাতে আছে ১২ দশমিক ৪০ শতাংশ শেয়ার এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে ২০ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ শেয়ার আছে।

সোনালী পেপার বর্তমান বাজার মূলধন ১ হাজার ৮২১ কোটি ২১ লাখ টাকা। কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ২১ কোটি ৯৬ লাখ টাকা; রিজার্ভের পরিমাণ ৪৯৮ কোটি ৪৪ লাখ টাকা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক