একটি আইপিও ও দুটি মিউচুয়াল ফান্ড অনুমোদন 

পুঁজিবাজার থেকে ৭৫ কোটি টাকা তোলার অনুমোদন পেয়েছে জেএমআই হসপিটাল রিকুইজিট ম্যানুফ্যাকচারিং লিমিটেড।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Nov 2021, 05:28 PM
Updated : 16 Nov 2021, 05:28 PM

মঙ্গলবার বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সভায় এ আইপিও অনুমোদন দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সভায় এইচএফএএমএল শরিয়াহ ইউনিট ফান্ড ও বাংলাদেশ রেইস ম্যানেজমেন্ট প্রাইভেট কোম্পানি লিমিটেড নামে দুটি মিউচুয়াল ফান্ডের অনুমোদন দেওয়ার সিদ্ধান্তও হয়েছে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় জেএমআই হসপিটাল বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে এ টাকা তোলার অনুমোদন পয়েছে।

কোম্পানিট আইপিওর মাধ্যমে তোলা অর্থ দিয়ে যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম কিনবে, ভবন নির্মাণ ও ভূমি উন্নয়ন করবে এবং ঋণ পরিশোধ ও আইপিও প্রক্রিয়ার জন্য ব্যয় করবে বলে আবেদনে উল্লেখ করেছে।

জেএমআই হসপিটালের ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে জনতা ক্যাপিটাল অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট।

২০২০ সালের ৩০ জুনের আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, শেয়ার প্রতি নিট সম্পদের পরিমাণ রিভ্যালুয়েশন ছাড়া ২৭ টাকা ৭৮ পয়সা।

এইচএফএএমএল শরিয়াহ ইউনিট ফান্ড

এ ফান্ডের লক্ষ্যমাত্রা ২৫ কোটি টাকা। এর উদ্যোক্তা এইচএফ অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট আড়াই কোটি টাকা দেবে। বাকি অর্থ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে উত্তোলন করা হবে।

এ ফান্ডের ইউনিটের দাম হবে ১০ টাকা।

এটির সম্পদ ব্যবস্থাপক এইচএফ অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড এবং ট্রাস্টি ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ এবং হেফাজতকারী হচ্ছে ব্র্যাক ব্যাংক।  

রেইস ম্যানেজমেন্ট

এ ফান্ডের লক্ষ্যমাত্রা ২৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে বাংলাদেশ রেইস ম্যানেজম্যান্ট প্রাইভেট কোম্পানি লিমিটেড আড়াই কোটি টাকা এবং বাকি টাকা বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে তোলা হবে।

এর ইউনিটের দাম হবে ১০ টাকা।

এটির সম্পদ ব্যবস্থাপক বাংলাদেশ রেইস ম্যানেজম্যান্ট এবং ট্রাস্টি ও হেফাজতকারী হচ্ছে সেন্টিনাল ট্রাস্টি অ্যান্ড কাস্টডিয়ান সার্ভিস।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক