ডেল্টা লাইফে প্রশাসক বসাল নিয়ন্ত্রক সংস্থা

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ডেল্টা লাইফ ইন্সুরেন্সের পরিচালনা পর্ষদ স্থগিত করে দিয়ে প্রশাসক বসিয়েছে বীমা খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা- আইডিআরএ।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Feb 2021, 06:25 PM
Updated : 19 Feb 2021, 05:47 PM

ডেল্টা লাইফ কর্তৃপক্ষ নিয়ন্ত্রক সংস্থার চেয়ারম্যান এম মোশাররফ হোসেনের বিরুদ্ধে ঘুষ দাবি করার অভিযোগ তোলার চার দিনের মাথায় আইডিআরএ এ পদক্ষেপ নিল।

বৃহস্পতিবার ডেল্টা লাইফ ইন্সুরেন্সের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, তাদের বর্তমান পরিচালনা পর্ষদ স্থগিত করে সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লাকে প্রশাসকের দায়িত্ব দিয়েছে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ।

বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের সাবেক সদস্য সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লা ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগ থেকে স্নাতএকোত্তর ডিগ্রিধারী এবং বীমা খাত নিয়ে তিনি ১৫ বছর ধরে কাজ করছেন বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জাননো হয়।

এর আগে গত রোববার ডেল্টা লাইফের প্রধান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এম মোশারফ হোসেনের বিরুদ্ধ ঘুষ দাবির অভিযোগ তুলে ধরেন কোম্পানির নির্বাহী পরিচালক চৌধুরী কামরুল আহসান।

সেদিন তিনি বলেন, “বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের বর্তমান চেয়ারম্যান এম মোশারফ হোসেন উদ্দেশ্যমূলকভাবে ডেল্টা লাইফের ২০১৯ সালের একচ্যুয়ারিয়াল ভ্যালুয়েশন এর বেসিস অনুমোদ না দিয়ে, মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তার নিয়োগ নবায়নে অনুমোদন না দিয়ে এবং কোম্পানিকে নানা অযুহাতে অন্যায়ভাবে জরিমানা আরোপের হুমকি দিয়ে চলেছেন। এমনকি তিনি কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ সাসপেন্ড করে প্রশাসক বসানোর হুমককি দিচ্ছেন।”

এ বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলতে গেলে মোশারফ হোসেন ডেল্টা লাইফের একজন কর্মকর্তার কাছে প্রথমে ২ কোটি, পরে ১ কোটি এবং শেষে ৫০ লাখ টাকা ‘উৎকোচ’ দাবি করেন বলে অভিযোগ করা হয় ওই সংবাদ সম্মেলনে।

ওই আলোচনার একটি কথিত অডিও রেকর্ডও সেদিন সংবাদ সম্মেলনে বাজিয়ে শোনানো হয়।

এ অভিযোগের বিষয়ে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এম মোশারফ হোসেনের বক্তব্য বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জানতে পারেনি।

এরপর বৃহস্পতিবার ডেল্টা লাইফের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতেও বলা হয়, বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ ‘এক তরফা শুনানি করে’ কোম্পানিতে প্রশাসক বসাচ্ছে। পরে প্রশাসক বসানোর খবর দিয়ে আরেকটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি পাঠায় তারা।

এ পদক্ষেপের বিষয়ে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের বক্তব্য জানা যায়নি।