মীর আক্তারের শেয়ার লেনদেন মঙ্গলবার থেকে

পুঁজিবাজার থেকে আইপিওর মাধ্যমে টাকা তোলা মীর আক্তার হোসেন লিমিটেডের শেয়ারের লেনদেন মঙ্গলবার থেকে শুরু হবে।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 Jan 2021, 02:22 PM
Updated : 31 Jan 2021, 02:22 PM

রোববার মীর আক্তার হোসেন লিমিটেডের শেয়ার বিনিয়োগকারীদের বিও একাউন্টে জমা হয়েছে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) কোম্পানিটি ‘এন’ ক্যাটাগরিতে লেনদেন হবে। লেনদেনের কোড হবে ‘MIRAKHTER’। কোম্পানি কোড হবে ১৩২৫০।

সাধারণ বিনিয়োগকারীরা মীর আক্তারের শেয়ারটি ৫৪ টাকায় পেয়েছিল। যেসব বিনিয়োগকারী লটারিতে জিতেছেন, তারা প্রত্যেকে ১০০টি করে শেয়ার পেয়েছেন।

গত বছরের ১৩ অগাস্ট ১২৫ কোটি টাকা তোলার প্রাথমিক অনুমোদন পায় মীর আক্তার হোসেন লিমিটেড।

চূড়ান্ত অনুমোদনের পর বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজারে আসতে চাওয়া মীর আক্তারের নিলাম হয়। তার মাধ্যমে মীর আক্তার হোসেনের শেয়ারের দাম ঠিক হয়েছে।

চুড়ান্ত অনুমোদনের পর ২৪ থেকে ৩০ ডিসেম্বর মীর আক্তার হোসেনের আইপিও পেতে আবেদন করেন সাধারণ বিনিয়োগকারীরা।

এর পরে চলতি বছরের ২১ জানুয়ারি লটারি হয়। সেই শেয়ার বিনিয়োগকারীদের বিও তে যোগ হয় রোববার।

মীর আক্তার হোসেন ২ কোটি ৭ লাখ ৭১ হাজার ৫৪৭টি সাধারণ শেয়ার পুঁজিবাজারে ছেড়েছে।

এই শেয়ারের মধ্যে ১ কোটি ৩ লাখ ৮৫ হাজার ৭৪৭টি শেয়ার পায় প্রতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা। বাকি ১ কোটি ৩ লাখ ৮৫ হাজার ৮০০টি শেয়ার পায় সাধারণ বিনিয়োগকারীরা।

আইপিওর মাধ্যমে ১২৫ কোটি টাকা সংগ্রহ করে মীর আক্তার হোসেন ৪০ কোটি টাকার ব্যাংক ঋণ শোধ করবে, ৫০ কোটি ৩০ লাখ টাকার যন্ত্রপাতি কিনবে বাকি টাকা দিয়ে কারখানা বানাবে এবং আইপিওর টাকা সংগ্রহ করবে।

কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজার আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড।

অংশীদারি ব্যবসা থেকে ১৯৮০ সালে প্রাইভেট কোম্পানিতে রূপ নেয় মীর আক্তার হোসেন। এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি মীর নাসির হোসেন কোম্পারি ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

কোম্পানিটি সড়ক, সেতু, রেল পথ, পাঁচ তারকা হোটেল ও বিদ্যুৎকেন্দ্রসহ বড় স্থাপনা তৈরি করে থাকে।  

২০১৪-১৫ অর্থবছরে ৩৯ কোটি ৫৩ লাখ টাকা মুনাফা করেছে মীর আক্তার হোসেন। পরের চার বছরেও মুনাফায় ধারাবাহিক প্রবৃদ্ধি দেখিয়ে সর্বশেষ ২০১৮-১৯ অর্থবছরের ৬৩ কোটি ২৫ লাখ টাকা মুনাফা করেছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক