সরে দাঁড়ালেন স্কলারি

নিজের দেশে বিশ্বকাপে 'চরম ব্যর্থতা'র দায় মাথায় নিয়ে কোচ লুইস ফেলিপে স্কলারি তার পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন বলে ব্রাজিলীয় গণমাধ্যমে বলা হয়েছিল। সেটাই এখন নিশ্চিত করলো দেশটির ফুটবল কর্তৃপক্ষ।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 July 2014, 06:33 AM
Updated : 15 July 2014, 09:47 AM

ব্রাজিল ফুটবল কনফেডারেশন (সিবিএফ) সোমবার এক বিবৃতিতে জানায়, স্কলারি এবং জাতীয় দলের কোচিংয়ের সঙ্গে জড়িত অন্য কর্মকর্তারা তাদের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন।

২০০২ সালে ব্রাজিলকে বিশ্বকাপ জেতানো এই কোচের চুক্তির মেয়াদ বিশ্বকাপের সঙ্গে সঙ্গে এমনিতেই ফুরিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ব্রাজিল বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে জার্মানির বিপক্ষে ৭-১ গোলে হারার পর তার বিদায় চাইছিলেন সেদেশের সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে সাবেক তারকা ফুটবলাররা।

এরপর তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের কাছে ৩-০ গোলে হারার পর আরো জোড়ালো হয় সেই দাবি। ম্যাচ চলাকালে বড় পর্দায় স্কলারিকে দেখালে ব্রাজিলের সমর্থকরা তাকে 'দুয়ো' দেয়।

এতো কিছুর পরও ৬৫ বছর বয়সী স্কলারি ব্রাজিলের ফুটবল ফেডারেশনের (সিবিএফ) ওপরই সিদ্ধান্ত নেয়ার ভার ছেড়ে দেন। তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচের আগে এক টিভি সাক্ষাৎকারে সিবিএফের হবু প্রেসিডেন্ট মার্কো পলো দেল নেরো স্কলারিকে রেখে দেয়ার পক্ষেও কথা বলেছিলেন।

তবে এখন মনে হচ্ছে, ব্রাজিলের ফুটবলকে এগিয়ে নেয়ার জন্য নতুন সূচনার প্রয়োজনীয়তার বিষয়ে সব পক্ষ একমত হয়েছে। ফলে স্কলারির মেয়াদ আর বাড়ানো হয়নি।

স্কলারি প্রথম ব্রাজিল দলের দায়িত্ব নিয়েছিলেন ২০০১ সালে। পরের বছর জাপানোর ইয়োকোহামার ফাইনালে জার্মানিকে ২-০ গোলে হারিয়ে পঞ্চম বিশ্বকাপ শিরোপা জেতে ব্রাজিল।

এরপর পর্তুগাল জাতীয় দল, ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দল চেলসি, উজবেকিস্তানের বুনিয়ুদকর ও ব্রাজিলের ক্লাব পালমেইরাসের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করে ২০১২ সালে আবার ব্রাজিল দলের দায়িত্ব নেন স্কলারি।

স্কলারির অধীনেই ফাইনালে স্পেনকে ৩-০ গোলে হারিয়ে গত বছরে কনফেডারেশন্স কাপ জিতেছিল ব্রাজিল। তবে মূল আসর বিশ্বকাপে সাফল্য না পাওয়ায় বিদায় নিতে হলো তাকে।

জার্মানির বিপক্ষে হারের পর স্কলারি বলেছিলেন, সেটি ছিল তার জীবনের ‘সবচেয়ে বাজে’ দিন। লজ্জার ওই হারের পর ব্রাজিলীয়দের কাছে ক্ষমাও চেয়েছিলেন তিনি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক