জার্মানির বিস্ময়বালক গোটসে

এখন কেউ হয়ত বলবে 'সুপার-সাব', কেউ আবার বলবে 'ফাইনালের নায়ক'। তবে কোচ ইওয়াখিম লুভ মারিও গোটসের নাম দিলেন 'জার্মানির বিস্ময়বালক'।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 July 2014, 09:27 AM
Updated : 14 July 2014, 04:52 PM

ফাইনালের আগে পর্যন্ত গোটসের জন্য ব্রাজিল বিশ্বকাপটা সাদামাটাই ছিল। কিন্তু রিও দে জেনেইরোর মারাকানা স্টেডিয়ামে রোববার সব হতাশা দূর করে বিশ্বকাপটাকে নিজের আলোয় আলোকিত করলেন তিনি।

মারিও গোটসের সেই সোনালি গোল। এই গোলেই দুই যুগ পর বিশ্বকাপ জিতলো জার্মানি। ছবি: রয়টার্স

বদলি হিসেবে নেমে অতিরিক্ত সময়ের শেষের দিকে অসাধারণ এক গোলে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে জার্মানিকে চতুর্থ বিশ্বকাপ শিরোপা এনে দিলেন বায়ার্ন মিউনিখের ফরোয়ার্ড।

এমন একটি জয় এনে দেয়া খেলোয়াড়টিকে নিয়ে কোচ উচ্ছ্বাসে ভেসে যাবেন, এটাই স্বাভাবিক। ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে গোটসকে প্রশংসা বৃষ্টিতে ভাসালেন লুভ।

"গোটসে এক বিস্ময়বালক, ওর এই ধরণের সামর্থ্য আছে। আছে অসাধারণ এই দক্ষতা। ও সবসময়ই ম্যাচের ভাগ্য গড়তে পারে এবং আজ (রোববার) দুর্দান্ত এক গোল করল।"

গোটসের ব্রাজিল বিশ্বকাপের শেষটা যেমন হলো, শুরুটা কিন্তু এমন ছিল না। ফরোয়ার্ডে দলের অন্যতম ভরসা হয়ে ব্রাজিলে পা রেখেছিলেন গোটসে। কিন্তু টুর্নামেন্টের গোড়ার দিকেই শুরুর একাদশে জায়গা হারান। গোলবন্যার সেমি-ফাইনালের পুরোটাই বেঞ্চে বসে দেখতে হয় তাকে।

রোববারের ফাইনালটাও বেঞ্চে বসেই শুরু করেন গোটসে। কিন্তু কোনোভাবেই আর্জেন্টিনার রক্ষণ ভাঙা যাচ্ছে না দেখে এই টুর্নামেন্টে বিস্মৃতপ্রায় গোটসের শরণাপন্ন হন লুভ। ৮৮ মিনিটে ক্লোসার বদলি হিসেবে তাকে মাঠে নামান কোচ।

'বিস্ময়বালক'কে মাঠে নামানোর আগে তার কানে একটা প্রেরণা ঢুকিয়ে দিয়েছিলেন লুভ।

"আমি ওকে বলেছিলাম, মাঠে যাও আর বিশ্বকে দেখাও লিওনেল মেসির (আর্জেন্টিনা অধিনায়ক) চেয়ে তুমি ভালো এবং তুমিই আজ রাতে ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দিতে পার।"

কোচের আস্থার প্রতিদান দিলেন গোটসে। আরেক বদলি খেলোয়াড় শুরলের থেকে পাওয়া বলটি বক্সের মধ্যে বুক দিয়ে দারুণভাবে নিয়ন্ত্রণ করেন তিনি। এর পর অসাধারণ এক ভলিতে সের্হিও রোমেরোর জালে বল পাঠান বায়ার্নের তারকা।

বিশ্বকাপ ট্রফিতে চুমু মারিও গোটসের। ফাইনালের একমাত্র গোলদাতার হাতেই তা ভালো মানাল। ছবি: রয়টার্স

ফাইনালের একমাত্র গোলদাতার হাতে বিশ্বকাপের ট্রফি। ছবি: রয়টার্স

গোটসের এই গোলটিকে অসাধারণ বলেন তার সতীর্থ এবং এই বিশ্বকাপেই ব্রাজিলের কিংবদন্তি স্ট্রাইকার রোনালদোকে ছাড়িয়ে বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গোলের (১৬) মালিক হওয়া মিরোস্লাভ ক্লোসা।

"প্রথমার্ধ শেষে আমি ওকে বলেছিলাম, আমার ধারণা, আজ রাতে তুমি গোল পাবে।"

বিশ্বকাপ ট্রফিতে চুমু মারিও গোটসের। ছবি: রয়টার্স

আলোকচিত্রীদের ছবি তোলা সারা, এবার মারিও গোটসের ছবি তুলছেন মডেল বান্ধবী অ্যান-ক্যাথরিন ব্রমেল। ছবি: রয়টার্স

ফাইনাল জেতা সারা, বান্ধবীকে জড়িয়ে ধরে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিলেন ম্যাচের নায়ক জার্মানির মারিও গোটসে। ছবি: রয়টার্স

বিশ্বকাপ জেতা সারা, এবার বান্ধবীর সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিলেন ফাইনালের নায়ক জার্মানির মারিও গোটসে। ছবি: রয়টার্স

ম্যাচসেরা গোটসে সবকিছুর কৃতিত্ব দেন তার পরিবার ও সতীর্থদের।

"আমি আমার পরিবার ও বন্ধুদের ধন্যবাদ জানাতে চাই। তারা আমার ওপর বিশ্বাস রেখেছে। আর অবশ্যই আমার সেই সতীর্থদেরও ধন্যবাদ জানাতে চাই, যারা আমাকে বলেছিল-আজ রাতে তুমি সফল হবে।"

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক