• সাফ পেছানোয় লাভ দেখছেন রানা
    করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে মাঠে খেলা নেই, অনুশীলনও বন্ধ। খেলোয়াড়দের ফিটনেস নেই শীর্ষ পর্যায়ে। আশরাফুল ইসলাম রানা তাই সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ পিছিয়ে যাওয়ায় লাভ দেখছেন। জাতীয় দলের এই গোলরক্ষক জানালেন, সামনের সময়ে ঠিকঠাক প্রস্তুতি নেওয়ার সুযোগ পাবেন তারা।
  • টেস্ট ক্রিকেট খেলতে পারলে ভালো হতো: গোলরক্ষক রানা
    গোলপোস্ট আগলে রাখাই তার দায়িত্ব। সতীর্থরা যখন সারামাঠ ছোটাছুটি করে, অসীম ধৈর্য নিয়ে তিনি থাকেন পোস্টের নিচে দাঁড়িয়ে। সেই অভিজ্ঞতাই এবার ঘরে থাকার পরীক্ষায় বেশ কাজে দিচ্ছে আশরাফুল ইসলাম রানার। অখন্ড এই অবসরে জাতীয় দলের গোলরক্ষকের মনে পড়ছে ক্রিকেটারদের কথাও। টেস্ট ক্রিকেট খেলার অভিজ্ঞতা থাকলে নিশ্চয়ই এখন আরও বেশি কাজে লাগত!
  • ‘ভুটান ম্যাচে সবাই যেন সেরাটা দেয়’
    গত ডিসেম্বরে গায়ে উঠল জাতীয় দলের জার্সি। বছর ঘুরতে না ঘুরতেই আশরাফুল ইসলাম রানার বাহুতে অধিনায়কের বন্ধনী। তাও আবার এমন সময়ে, যখন মালদ্বীপের কাছে প্রীতি ম্যাচে ৫-০ গোলের ভরাডুবি, নিয়মিত অধিনায়ক মামুনুল ইসলামের জাতীয় দলকে বিদায় বলে দেওয়া, সামনে ভুটানের বিপক্ষে মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। প্রতিকূল পরিস্থিতিতে সাহস হারাচ্ছেন না রানা। বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সঙ্গে আলাপচারিতায় নতুন অধিনায়ক জানালেন, ভুটানকে হারানোই তার প্রথম লক্ষ্য।