• মোহনবাগানের জয়ে স্বপ্নভঙ্গ কিংসের
    গোকুলাম কেরালাকে হারিয়ে নিজেদের কাজটুকু সেরে রেখেছিল বসুন্ধরা কিংস। প্রত্যাশায় ছিল মোহনবাগানের হোঁচটের, কিন্তু তা হয়নি। মাজিয়া স্পোর্টিস অ্যান্ড রিক্রিয়েশনকে হারিয়ে এএফসি কাপের ইন্টার জোনাল প্লে-অফ সেমিফাইনালসে উঠেছে ভারতের দলটি।
  • গোকুলামকে হারিয়ে আশা বাঁচিয়ে রাখল কিংস
    বাঁ দিক দিয়ে বারবার আক্রমণ শাণিয়েও মিলছিল না সাফল্য। হাল না ছেড়ে লেগে থাকলেন রবসন দি সিলভা রবিনিয়ো। সেই বাঁ দিক দিয়ে আক্রমণে উঠেই উপহার দিলেন দৃষ্টিনন্দন গোল। নুহা মারোংয়ের গোলেও রাখলেন অবদান। গোকুলাম কেরালাকে হারিয়ে এএফসি কাপের গ্রুপ পর্বের বৈতরণী পার হওয়ার আশা বাঁচিয়ে রাখল বসুন্ধরা কিংস।
  • পোস্টের বাধা, রক্ষণের ভুলে হারল বসুন্ধরা কিংস
    প্রথম মিনিটেই সুযোগ মিলল, মিগেল ফিগেইরা দামাশেনো তা নষ্ট করলেন। দুইবার পোস্ট দাঁড়াল পথ আগলে। এরপর শুরু হলো রক্ষণের ভুলের মিছিল। দুর্ভাগ্যের শিকার হওয়া আর ভুলের চড়া মাশুল গুণে এএফসি কাপে মোহনবাগানের কাছে বড় ব্যবধানে হারল বসুন্ধরা কিংস।
  • মোহনবাগানের বিপক্ষে স্বপ্নভঙ্গ আবাহনীর
    চোটে পড়া দোরিয়েলতন গোমেস নাসিমেন্তোর অনুপস্থিতিতে শুরু থেকে ভুগল আবাহনীর আক্রমণভাগ। নাবীব নেওয়াজ জীবনের চোট পেয়ে প্রথমার্ধেই মাঠ ছাড়া বিপদ বাড়াল আরও। দ্বিতীয়ার্ধে দেনিয়েল কলিনদ্রেসের গোলে কিছুটা আশা জাগল বটে। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না। ডেভিড উইলিয়ামসের হ্যাটট্রিকে আবাহনীর স্বপ্ন ভেঙে এএফসি কাপের মূল পর্বে উঠে গেল মোহনবাগান।
  • আবাহনী-মোহনবাগান দুই দলের কাছেই ‘ফাইনাল’
    দুই দলেরই লক্ষ্য প্লে-অফের বৈতরণী পেরিয়ে এএফসি কাপের ‍মূল পর্বে জায়গা করে নেওয়া। জয় ছাড়া নেই কোনো বিকল্প। আবাহনী ও মোহনবাগানের কাছে ম্যাচটি হয়ে উঠেছে অলিখিত ‘ফাইনাল’। দুই বাংলার দুই ঐতিহ্যবাহী দলের দ্বৈরথ তাই ছড়াচ্ছে উত্তাপও।
  • ভারতীয় ফুটবলে কমছে বাঙালি: মোহনবাগান ম্যানেজার
    সময়ের ধুলো পড়ে আর বাস্তবতার কষাঘাতে একসময় ঐতিহ্যও মলিন হয়! ভারতের ফুটবলে কলকাতার বাঙালি ফুটবলারদের যে দাপট ছিল, বর্তমানে তার ছিটেফোঁটাও না থাকাটা যেন সেটাই মনে করিয়ে দিচ্ছে। শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপে আসা মোহনবাগানের টিম ম্যানেজার সঞ্জয় ঘোষ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সঙ্গে আলাপচারিতায় ভারতীয় ফুটবলে বাঙালিদের দাপট কমে যাওয়া থেকে শুরু করে সল্ট লেক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের দাপুটে ফুটবল নিয়ে অনেক কথাই বললেন।
  • ভুল বার্তায় বিভ্রান্ত চট্টগ্রাম আবাহনী!
    সবকিছুই চলছিল পরিকল্পনামাফিক। কিন্তু বাইরে থেকে ডাগআউটে বার্তা এলো-হারলে বিদায়। এর পাঁচ মিনিটের মধ্যে গোল খেয়ে বসল হঠাৎ এলোমেলো হয়ে যাওয়া চট্টগ্রাম আবাহনী। শেষ পর্যন্ত আর ওই গোল শোধ করতে পারেনি তারা। প্রথম হারের স্বাদ নিয়ে মাঠ ছেড়েছে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপের প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়নরা।
  • হেরেও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন চট্টগ্রাম আবাহনী
    মোহনবাগানের বিপক্ষে বেঞ্চের শক্তি পরীক্ষা করল চট্টগ্রাম আবাহনী। শেষ দিকে জামাল ভূইয়া, আরিফুর রহমান, চিনেডু ম্যাথিউকে নামালেও জয়ের ধারা ধরে রাখতে পারেনি দলটি। হেরে গেছে ভারতের দল মোহনবাগানের কাছে। তবে গোল পার্থক্যে এগিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমি-ফাইনালে উঠেছে বন্দরনগরীর দলটি।
  • চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে টিকে রইল মোহনবাগান
    প্রথম ম্যাচে হারের ধাক্কা কাটিয়ে জয়ে ফিরেছে মোহনবাগান। শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন টিসি স্পোর্টসকে হারিয়ে সেমি-ফাইনালের আশা টিকিয়ে রেখেছে ভারতের দলটি।