• টটেনহ্যামেই থাকবেন কেইন, আশাবাদী নতুন কোচ
    টটেনহ্যাম হটস্পার ফরোয়ার্ড হ্যারি কেইনের ক্লাব ছাড়ার সম্ভাবনা নিয়ে গুঞ্জন চলছে কয়েক মাস ধরে। মাঝে তিনি নিজেও ইঙ্গিত দেন নতুন চ্যালেঞ্জ নেওয়ার ব্যাপারে। তবে ক্লাবটির নতুন কোচ নুনো সান্তো ইংল্যান্ড অধিনায়ককে ধরে রাখতে মরিয়া।
  • ইউরোর ফাইনালে বর্ণবাদের ঘটনায় আটক ৪
    ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে পেনাল্টি মিসের পর ইংল্যান্ডের কয়েকজন খেলোয়াড় বর্ণবাদের শিকার হওয়ার ঘটনায় চার জনকে আটক করা হয়েছে।
  • কোপার টুর্নামেন্ট সেরা একাদশে নেই দি মারিয়া
    অনুমিতভাবেই কোপা আমেরিকার সেরা একাদশে আধিপত্য চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা ও রানার্সআপ ব্রাজিল দলের ফুটবলারদের। তবে একাদশে জায়গা হয়নি ফাইনালে ব্যবধান গড়ে দেওয়া আনহেল দি মারিয়ার।
  • রোনালদোকে ছাড়াই ইউরোর সেরা একাদশ
    ইতালির শিরোপা জয়ের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের সবচেয়ে বড় আসর ইউরো ২০২০। আসর শেষে টুর্নামেন্টের আয়োজক উয়েফা ঘোষণা করেছে টুর্নামেন্টের সেরা একাদশ। দলে প্রাধান্য পেয়েছেন দুই ফাইনালিস্ট ইতালি ও ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়রা। সেখানে জায়গা হয়নি গোল্ডেন বুট জয়ী পর্তুগাল অধিনায়ক ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর।
  • সাকার পেনাল্টি ঠেকিয়েও জয় নিয়ে নিশ্চিত ছিলেন না দোন্নারুম্মা
    ফাইনালের মঞ্চে টাইব্রেকারের চ্যালেঞ্জ। জানলুইজি দোন্নারুম্মার মাথায় কাজ করছিল কেবল নিজের করণীয়। তিনি গুণতে ভুলে গিয়েছিলেন শটের সংখ্যা। বুকায়ো সাকার নেওয়া ইংল্যান্ডের শেষ শটটি রুখে দেওয়ার পরও ২২ বছর বয়সী গোলরক্ষক জানতেন না জিতে গেছে ইতালি।
  • ‘মারাদোনাকে কখনই মেসি ছাড়িয়ে যেতে পারবে না’
    আর্জেন্টিনার হয়ে লিওনেল মেসি প্রথম বড় কোনো শিরোপা জয়ের পর আবারও উঠে এলো পুরোনো আলোচনা। সেরা কে? মেসি, নাকি দিয়েগো মারাদোনা? বর্তমান ও সাবেক ফুটবল তারকার মধ্যে অবশ্য তুলনা টানতে নারাজ মারিও কেম্পেস। দেশটির ১৯৭৮ বিশ্বকাপ জয়ের নায়কের মতে, মারাদোনার মত ফুটবলার জন্মে একবারই; তাকে ছাড়িয়ে যাওয়া খুব কঠিন।
  • টাইব্রেকারে ব্যর্থতায় র‌্যাশফোর্ডের ক্ষমা প্রার্থনা
    সুযোগ ছিল ইতিহাস রচনা করার। ১৯৬৬ বিশ্বকাপের পর প্রথম মেজর টুর্নামেন্টে শিরোপা জয়ের খুব কাছেই ছিল ইংল্যান্ড। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পারল না তারা। পেনাল্টি শুটআউটে যে তাদের তিনটি শটই হলো মিস। এর একটি শট নিয়েছিলেন মার্কাস র‍্যাশফোর্ড। সেখানে গোল করতে না পারায় ক্ষমা চেয়েছেন তরুণ এই ফরোয়ার্ড।
  • ৫ বছরের চুক্তিতে আতলেতিকো মাদ্রিদে দে পল
    সময়টা স্বপ্নের মত যাচ্ছে আর্জেন্টিনা মিডফিল্ডার রদ্রিগো দে পলের জন্য। মাত্রই স্বাদ পেলেন কোপা আমেরিকা জয়ের। সেটার রেশ না কাটতেই এবার উদিনেজ থেকে যোগ দিয়েছেন লা লিগা চ্যাম্পিয়ন আতলেতিকো মাদ্রিদে।
  • ইউরো জয়ের উদযাপনে ইতালিতে নিহত ১
    ৫৩ বছর পর ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয়ের আনন্দে বাঁধভাঙ্গা উল্লাসে মেতেছে ইতালি। মানুষ রাস্তায় নেমে এসেছেন উদযাপনে, একসাথে নাচছেন, গাইছেন। অনেকে আবার আতশবাজিও পোড়াচ্ছেন। এরই মাঝে ঘটেছে প্রাণহানির ঘটনা। দেশটির বিভিন্ন স্থানে আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন।
  • পেনাল্টি মিসের পর বর্ণবাদের শিকার ইংল্যান্ডের ৩ খেলোয়াড়
    আসর যত এগিয়েছে ততই ইংল্যান্ড সমর্থকদের বিখ্যাত ‘ইটস কামিং হোম’ স্লোগান জোরালো হয়েছে। ১৯৬৬ বিশ্বকাপের পর প্রথম মেজর টুর্নামেন্টে শিরোপা জয়ের স্বপ্ন দেখছিল তারা। কিন্তু টাইব্রেকারে তাদের কাঁদিয়ে শেষ হাসি হেসেছে ইতালি। ইংলিশদের তিনটি পেনাল্টি মিস করেন মার্কাস র‍্যাশফোর্ড, জ্যাডন স্যানচো ও বুকায়ো সাকা। ম্যাচ শেষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমর্থকদের তীব্র রোষানলে পড়েছেন তিন জনই।
  • ‘এই হার অবিশ্বাস্য বেদনাদায়ক’
    পথের শেষে এসে সঙ্গী হারের বিষাদ। শিরোপা খরা হলো আরও দীর্ঘ। স্বাভাবিকভাবেই প্রচণ্ড হতাশা ঘিরে ধরেছে ইংল্যান্ড কোচ গ্যারেথ সাউথগেটকে। ইতালির কাছে টাইব্রেকারে হেরে শিরোপা স্বপ্ন গুঁড়িয়ে যাওয়ায় খুব কষ্ট পাচ্ছেন তিনি। আবার সামর্থ্যের সবটুকু নিংড়ে দেওয়ার তৃপ্তিও আছে বলে জানালেন সাবেক এই খেলোয়াড়।
  • পরিসংখ্যানে ওয়েম্বলির ফাইনাল
    ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে সবচেয়ে দ্রুততম গোল, সবচেয়ে বেশি বয়সে গোল, হ্যারি কেইনের দ্বিতীয়বারের মতো ম্যাচে গোলে কোনো শট নিতে না পারা-এমন বেশ কিছু নতুন পরিসংখ্যান যোগ করেছে ইতালি ও ইংল্যান্ডের শিরোপা লড়াই। যেখানে টাইব্রেকারে জিতে ১৫ বছর পর মেজর টুর্নামেন্ট জয়ের স্বাদ পেয়েছে ইতালি।
  • মারাদোনাকে অনুভব করছেন মেসি
    লিওনেল মেসির হাতে একটি জাতীয় দলের শিরোপা অনেকের মতো বহু কাঙ্ক্ষিত ছিল দিয়েগো মারাদোনার। সময়ের সেরা ফুটবলারদের একজন সবার সেই চাওয়া পূরণ করেছেন ঠিকই। কিন্তু আর্জেন্টিনার ১৯৮৬ বিশ্বকাপের নায়ক তা দেখে যেতে পারেননি। তবে মেসির বিশ্বাস, কোপা আমেরিকা জয়ের পথচলায় ওপারে থেকেই তাদের সমর্থন করে গেছেন মারাদোনা।
  • ইউরোর সেরা খেলোয়াড় দোন্নারুম্মা
    টুর্নামেন্ট জুড়ে পোস্টের নিচে ছিলেন দুর্ভেদ্য দেয়াল হয়ে। ওয়েম্বলির ফাইনালে শ্বাসরুদ্ধকর টাইব্রেকারেও আলো ছড়ালেন। দুই শট ঠেকিয়ে ইতালির ইউরো জয়ের নায়ক জানলুইজি দোন্নারুম্মা পেলেন মুঠোভরে। ২২ বছর বয়সী এই গোলরক্ষক জিতেছেন প্রতিযোগিতার সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার।
  • ‘ইতালিয়ান ফুটবলের পুনর্জাগরণ’
    ১৩ নভেম্বর ২০১৭, মিলানে যেন অস্তমিত হয় ইতালিয়ান ফুটবলের সূর্য। সেদিন সুইডেনের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে ও দুই লেগ মিলিয়ে হেরে বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব উতরাতে ব্যর্থ হয় ইতালি। বিশ্ব ফুটবলের পরাশক্তি, চার বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন, ফুটবল আভিজাত্যের দেশই কিনা জায়গা করে নিতে পারেনি ৩২ দলের বিশ্বকাপে! বলা হচ্ছিল, ইতালিয়ান ফুটবলের অন্ধকারতম অধ্যায়। সময়ের পালায় সেই ইতালিই এখন উদ্ভাসিত আলোয় ভাস্বর। ইউরোপ সেরার গর্বে উজ্জ্বল।
  • ইতালিকে চূড়ায় তুলে মানচিনির কান্না-হাসি
    টাইব্রেকার শেষ হওয়ার পরই রবের্তো মানচিনি যেন বুঝে উঠতে পারছিলেন না, কী করবেন। উচ্ছ্বাসে ছুটোছুটি, সামনে যাকে পাওয়া যায় তাকে জড়িয়ে ধরা, ইতালির পতাকা গায়ে জড়িয়ে সদর্প বিচরণ…. কত কী! আবেগের চিরায়ত প্রকাশও দেখা গেল, যখন হৃদয়ের অনুভূতি ফুটে ওঠে চোখে। জয়ের পর ইতালি কোচের চোখ অশ্রসজল। মুখের হাসিই বলে দিচ্ছিল, এটা সুখের কান্না। ইতালির ফুটবলকে তলানি থেকে শীর্ষে তোলার তৃপ্তি জল!
  • ছবিতে ওয়েম্বলিতে ইতালির শিরোপা উৎসব
    ৫৫ বছরের শিরোপা খরা কাটানোর স্বপ্ন স্বপ্নই রয়ে গেল ইংল্যান্ডের। এক মিনিট ৫৭ সেকেন্ডের মাথায় লুক শয়ের গোলে দুর্দান্ত শুরু পেয়েও পথ হারাল তারা। দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে টাইব্রেকারে ৩-২ গোলে জিতে দ্বিতীয়বারের মতো ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা ঘরে তুলল ইতালি। পেনাল্টি শুট আউটে রবের্তো মানচিনির দলের নায়ক গোলরক্ষক জানলুইজি দোন্নারুম্মা। ছবি: রয়টার্স
  • ইংল্যান্ডের স্বপ্ন চূর্ণ করে চ্যাম্পিয়ন ইতালি
    ‘ইটস কামিং হোম’-গানের তালে তালে স্বপ্ন বোনা ইংল্যান্ডের শুরুটা হলো দুর্দান্ত। কিন্তু দুই মিনিটের মধ্যে প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠানোর পর হারিয়ে ফেলল পথ। আক্রমণের তোপে ইংল্যান্ডকে ব্যতিব্যস্ত করে তোলা ইতালি সমতা টেনে ম্যাচ নিল টাইব্রেকারে। উত্তেজনায় ঠাসা পেনাল্টি শুট আউটে পার্থক্য গড়ে দিলেন জানলুইজি দোন্নারুম্মা। ‘ইটস কামিং টু রোম’-এই শ্লোগান সত্যি করে ইউরোপ সেরার মুকুট মাথায় পরলো রবের্তো মানচিনির দল।
  • তারুণ্যে আস্থা রেখে সামনে তাকিয়ে মেসি
    দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল শ্রেষ্ঠত্বের শিরোপা জেতার পর লিওনেল মেসি তাকাচ্ছেন সামনের দিকে। অভিজ্ঞ আর তারুণ্যের সমন্বয়ে গড়া আর্জেন্টিনা দল তাকে দেখাচ্ছে আশা। ব্রাজিলকে তাদেরই মাটিতে হারিয়ে আসা দল নিয়ে তো বড় স্বপ্ন দেখাই যায়। সরাসরি কাতার বিশ্বকাপের কথা উল্লেখ করেননি আর্জেন্টিনা অধিনায়ক। তবে বুঝিয়ে দিয়েছেন, শিরোপা জয়ের এই মোমেন্টাম তারা টেনে নিতে চান সামনের দিনে।
  • মেসির পাগলাটে, ব্যাখ্যাতীত আনন্দ
    কতবার স্বপ্ন ভাঙার বেদনায় পুড়তে হয়েছে, বিষাদ নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে। একবার তো হতাশায় অবসরই নিয়ে ফেলেছিলেন। সেই সব পেছনে ফেলে এগিয়ে গেছেন লিওনেল মেসি। তবে ব্রাজিলকে তাদেরই মাটিতে হারিয়ে লক্ষ্য পূরণের পর হয়তো অতীতের কথা মনে পড়ছে ফুটবলের এই মহাতারকার। প্রতীক্ষাটা দীর্ঘ দিনের বলেই হয়তো আনন্দ বেশি, দেশের হয়ে প্রথম বড় শিরোপা জয়ের পর আর্জেন্টিনা অধিনায়ক অনুভব করছেন পাগলাটে, ব্যাখ্যাতীত আনন্দ।
  • সমর্থকদের মুখে হাসিই আর্জেন্টিনা কোচের পুরস্কার
    বিশ্বকাপ বাছাইয়ে টানা দুই ম্যাচে এগিয়ে গিয়েও জিততে না পারায় নিজের কৌশল নিয়ে বেশ চাপে ছিলেন লিওনেল স্কালোনি। তবু সেই পথেই অটল থাকেন আর্জেন্টিনা কোচ। সেই পথ ধরেই মিলল সাফল্যের ঠিকানা। ২৮ বছরের অপেক্ষা শেষে ধরা দিল কাঙ্ক্ষিত ট্রফি। তবে স্কালোনির কাছে আসল ট্রফি সমর্থকদের মুখের হাসি।
  • ‘দ্বিতীয়ার্ধে শুধু ব্রাজিল খেলেছে, আর্জেন্টিনা সময় নষ্ট করেছে’
    কোপা-আমেরিকার ফাইনালে জয়ী আর্জেন্টিনাকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন চিয়াগো সিলভা। তবে ব্রাজিলের ডিফেন্ডারের মতে, ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে এক চেটিয়া প্রাধান্য ছিল তাদের। আর্জেন্টিনা স্রেফ সময় কাটানোর চেষ্টা করেছে। ‌একই রকম কথা শোনা গেল ব্রাজিলের কোচ তিতের কণ্ঠেও।
  • দেশের হয়ে মেসির প্রথম গোল্ডেন বুট
    বার্সেলোনার হয়ে গোলের প্রায় সব রেকর্ড লিওনেল মেসির। আর্জেন্টিনার হয়েও সবচেয়ে বেশি গোল তারই। কিন্তু দেশের হয়ে বড় টুর্নামেন্ট খেলতে গেলে যেন কি হয়ে যায় এই মহাতারকার। তবে এবার আর ভুল ঠিকানায় পাঠাননি বল। নিয়মিত খুঁজে পেয়েছেন জাল। তাতে জাতীয় দলের হয়ে প্রথমবার জিতলেন কোনো টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার-গোল্ডেন বুট।
  • আজ যদি মারাদোনা থাকতেন!
    আর্জেন্টিনার খেলা হলেই তিনি ছুটে যেতেন মাঠে। দুই হাত উঁচিয়ে, বুকটা চিতিয়ে শিশুতোষ উল্লাসে ফেটে পড়তেন।শেষ পর্যন্ত হতাশায় অঞ্জলি দিয়ে মুখ ঢেকে মাঠ ছাড়তে হতো তাকে। দিনের পর দিন। টুর্নামেন্টের পর টুর্নামেন্ট। হ্যাঁ, তিনি দিয়েগো আরমান্দো মারাদোনা; আর্জেন্টিনার ১৯৮৬ বিশ্বকাপের নায়ক, অনেকের চোখে যিনি সর্বকালের সেরা। বেঁচে থাকলে হয়তো মারাকানার গ্যালারিতে থাকতেন তিনি। উচ্ছ্বাস, উল্লাসে ফেটে পড়তেন উত্তরসূরিদের অর্জনে। গভীর আলিঙ্গনে বাঁধতেন মেসি-দি মারিয়াদের।
  • ছবিতে ব্রাজিলে আর্জেন্টিনার উৎসব
    ফাইনাল এবং আর্জেন্টিনার হার যেন হয়ে গিয়েছিল প্রতিশব্দ। একইভাবে ব্রাজিলে কোপা আমেরিকার আসর আর স্বাগতিকদের জয় যেন হয়ে গিয়েছিল নিয়ম। সেই নিয়ম ভেঙে গেল এবার। আনহেল দি মারিয়ার একমাত্র গোলে তিতের দলকে হারিয়ে শিরোপা জিতল আর্জেন্টিনা। অবসান হলো বড় কোনো শিরোপার জন্য দীর্ঘ ২৮ বছরের অপেক্ষার। ১৯৯৩ সালের পর শিরোপার স্বাদ পেল আর্জেন্টিনা, ৩৪ বছর বয়সে দেশের হয়ে প্রথম শিরোপা জিতলেন লিওনেল মেসি। ছবি: রয়টার্স
  • মেসির ‘শূন্য ঘরে’ কোপার আলো
    ক্লাব ফুটবলে এমন কোনো শিরোপা নেই যেটি অন্তত তিনবার জেতেননি। বার্সেলোনার হয়ে জেতা ট্রফিতে যেন উপচে পড়ছে ঘর। দলীয় আর ব্যক্তিগত সব অর্জনের কত না স্মারক। তবুও লিওনেল মেসির মনের কোণে ছিল হাহাকার; জাতীয় দলের হয়ে অর্জনের থলি যে ছিল শূন্য। সেই আক্ষেপ ঘুচলো এবার, ব্রাজিলকে ১-০ গোলে হারিয়ে কোপা আমেরিকার চ্যাম্পিয়ন হলো আর্জেন্টিনা। সামনে থেকে দলকে নেতৃত্ব দিলেন মেসি। 
  • ফাইনালের আগে ইংল্যান্ড শিবিরে চোট ধাক্কা
    ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের আগে ইংল্যান্ড দলে চোট আঘাত হেনেছে। ইতালির বিপক্ষে মাঝমাঠের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় ফিল ফোডেনের খেলা অনিশ্চিত বলে জানিয়েছেন দলটির কোচ গ্যারেথ সাউথগেট।
  • কোপা আমেরিকা: যৌথভাবে সেরা মেসি ও নেইমার
    ফাইনাল মাঠে গড়াতে এখনও ঘণ্টা কয়েক বাকি, তবে এর আগেই আসরের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচন করে ফেলেছে কোপা আমেরিকার আয়োজক কনমেবল। আসর জুড়ে ধারাবাহিকভাবে দুর্দান্ত খেলা এবং নিজেদের দলকে ফাইনালে তুলে আনতে মুখ্য ভূমিকা রাখা লিওনেল মেসি ও নেইমারকে যৌথভাবে সেরা ঘোষণা করা হয়েছে।
  • ব্রাজিলিয়ানদের আর্জেন্টিনাকে সমর্থন অবিশ্বাস্য: সিলভা
    ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা মুখোমুখি মানেই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী, চিরবৈরী-এসব উপমা এসে হাজির জয়। দুই দলের সমর্থকদের মনোভাবও থাকে যুযুধান অবস্থায়। কিন্তু এবার প্রেক্ষাপট যেন কিছুটা ভিন্ন। ব্রাজিলেরই কিছু মানুষ কী-না কোপা আমেরিকার ফাইনালে সমর্থন করছেন আর্জেন্টিনাকে! বিস্ময়কর ব্যাপারটি ভাবতেই পারছেন না চিয়াগো সিলভা। পুরো বিষয় অবিশ্বাস্য ঠেকছে এই ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডারের কাছে।
  • পরিসংখ্যানের আলোয় ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা সুপার ক্লাসিকো
    লিওনেল মেসির অধরা কি দেবে ধরা? নেইমার কি পাবেন প্রথম কোপা আমেরিকার জয়ের স্বাদ? ডাগআউটে কার কৌশলে হবে বাজিমাত, তিতে নাকি স্কালোনি?-এমন নানা প্রশ্নের জবাব মিলবে রাত পেরুলেই।
  • শেষ সময়ের গোলে কোপা আমেরিকার তৃতীয় কলম্বিয়া
    কোপা আমেরিকার শিরোপা লড়াই থেকে ছিটকে পড়েছে তারা আগেই। তবে তৃতীয় স্থানের জন্যও দারুণ এক ম্যাচ উপহার দিল দুই দল। রোমাঞ্চকর ম্যাচে শেষ মুহূর্তের গোলে পেরুকে হারিয়েছে কলম্বিয়া।
  • তিতের চোখে মেসি-নেইমার যেমন
    ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা মুখোমুখি মানেই বারুদে উত্তাপে ঠাসা ম্যাচ। উত্তেজনা, আবেগ, শিহরণ, রোমাঞ্চের কমতি নেই একবিন্দু। লাতিন ফুটবল শ্রেষ্ঠত্বের মঞ্চ কোপা আমেরিকার ফাইনালে মুখোমুখি এই দুই পরাশক্তি। এর ভেতরে আবার আছে আরেক লড়াই; মুখোমুখি সময়ের সেরাদের দুজন লিওনেল মেসি ও নেইমার। এমন শিহরণ জাগানিয়া ম্যাচের আগে ব্রাজিল কোচ তাদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন।
  • অতীতের খরা বা সাফল্য, কিছুই নেই তিতের ভাবনায়
    অতীত নিয়ে তিনি মাথা ঘামাচ্ছেন না মোটেও। কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনার শিরোপা খরা কিংবা ব্রাজিলের গত আসরের সাফল্য-এসব নিয়েও তার ভাবনা নেই তেমন একটা। মারাকানার ফাইনাল সামনে রেখে ব্রাজিল কোচ জানালেন, অতীত পথ দেখাবে না কোনোভাবে। সাফল্য আসবে কেবল কঠোর পরিশ্রমের হাত ধরে।
  • চেলসির ‘ব্রাত্য’ জর্জিনিয়োই ইতালির আলো
    বড় কোনো তারকা নন তারা। কেউ কেউ তো ক্লাব ম্যাচে নিয়মিত খেলার সুযোগও পান না। সেই তারা জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চড়ালেই যেন সেরা হয়ে ওঠেন। আজকের ইতালি দলের ছুটে চলার পেছনের গল্প এটাই; সব পজিশনে কার্যকর খেলোয়াড়দের নিয়ে ইউরোপ সেরা হওয়ার এক ধাপ দূরে দাঁড়িয়ে রবের্তো মানচিনির দল।
  • দর্শক নিয়ে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ফাইনাল
    লাতিন আমেরিকান ফুটবল শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই, মুখোমুখি দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা-এমন দ্বৈরথ মাঠে বসে দেখার সুযোগ কেইবা হাতছাড়া করতে চাইবেন? তবে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে সবার সে সুযোগ হচ্ছে না। সীমিত সংখ্যক দর্শককে মারাকানার ফাইনালে গ্যালারিতে থাকার সুযোগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে কনমেবল।
  • আর্জেন্টিনা মানে শুধু মেসি নয়: কাসেমিরো
    প্রতিপক্ষ শিবিরে যখন থাকে লিওনেল মেসির নাম, তাকে নিয়ে আলাদা ছক কষতেই কোচ ও খেলোয়াড়দের ঘুম হারাম হওয়ার যোগাড় হয়। রেকর্ড ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলারের একাই ম্যাচের গতিপথ নির্ধারণ করে দেওয়ার সামর্থ্য আছে। কোপা আমেরিকার ফাইনালের আগে ব্রাজিল মিডফিল্ডার কাসেমিরোর কণ্ঠেও মেসি বন্দনা। কিন্তু এটাও মনে করিয়ে দিলেন, আর্জেন্টিনা দলে আরও তারকা আছেন এবং তারাও হতে পারেন হুমকির কারণ।
  • ফাইনালে আর্জেন্টিনার গোল খরা কাটবে এবার?
    বড় মঞ্চে আর্জেন্টিনার সাফল্য খরা চলছে দীর্ঘদিন। ফাইনালে চলা গোল খরার বয়সও নেহাত কম নয়। বিস্ময়করভাবে ২০০৫ সালের কনফেডারেশন্স কাপের ফাইনালের পর আর কোনো শিরোপা নির্ধারণী লড়াইয়ে গোলই পায়নি তারা!
  • পরিসংখ্যানে তিতে-লিওনেল স্কালোনি
    কোপা আমেরিকায় ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার মধ্যকার স্বপ্নের ফাইনালে লড়াইয়ের ভেতর আছে কত লড়াই। মহারণে মাঠে নেইমার, পাকেতাদের মুখোমুখি হবে মেসি, মার্তিনেসরা। ডাগআউটে তিতে আর লিওনেল স্কালোনির দ্বৈরথ। টানা দ্বিতীয় শিরোপায় চোখ ব্রাজিল কোচ তিতের। আর্জেন্টিনার ২৮ বছরের শিরোপা খরা কাটানোর ছক কষছেন দলটির কোচ স্কালোনি।
  • ফাইনালে ইতিহাস গড়বেন রেফারিও
    ইতালি ও ইংল্যান্ডের সামনে হাতছানি নানা অর্জনের। তবে একজনের ইতিহাসে নাম লেখানো এখনই নিশ্চিত। নেদারল্যান্ডসের প্রথম রেফারি হিসেবে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল পরিচালনা করবেন বিয়র্ন কাইপার্স।
  • ‘ওয়েম্বলিতে ইংল্যান্ডকে হারানো হবে স্বপ্নের মতো’
    ওয়েম্বলির গ্যালারি ঠাসা থাকবে ইংলিশ দর্শকে। শোনা যাবে গর্জন, ‘ইটস কামিং হোম।’ উজ্জীবিত হতে আর কী লাগে! ফাইনালে ইংল্যান্ড হয়ে উঠবে হয়তো প্রবল এক প্রতিপক্ষ। তবে এসব নিশ্চিত জেনেও ভড়কে যাচ্ছে না ইতালি। বরং এমন একটা মঞ্চে ইংল্যান্ডকে হারানোর হাতছানিই তাদের বড় প্রেরণা, বলছেন ইতালিয়ান মিডফিল্ডার মার্কো ভেরাত্তি।
  • ডেনমার্ক দলকে দেশে বীরোচিত অভ্যর্থনা
    রূপকথাময় পথচলা শেষ হয়েছে হৃদয়ভাঙা হারে। অতিরিক্ত সময়ের বিতর্কিত পেনাল্টি গোলে ভেঙে গেছে ফাইনালের স্বপ্ন। তবে ডেনমার্কের অর্জন, তাদের অসাধারণ পারফরম্যান্সের রেশ তো শেষ হয়ে যায়নি। লন্ডন থেকে দেশে ফেরা দলকে বরণ করে নেওয়া হয়েছে বীরের মর্যাদায়।
  • দুঃসহ অতীত ভুলে মার্তিনেসের এগিয়ে চলা
    আর্জেন্টিনা দলে তারকার ছড়াছড়ি। আছেন ফুটবল ইতিহাসের সেরাদের একজন। তাদের ভিড়ে নিজেকে পাদপ্রদীপের আলোয় আবিষ্কার করাটা একজন খেলোয়াড়ের জন্য স্বপ্নের মতই। গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেসের জন্য তো এখন মাঠে প্রতিটি মুহূর্তই স্বপ্নের। বিস্মৃতির অতল গহ্বরে প্রায় হারিয়েই যাচ্ছিলেন। সেখান থেকে ফিরে এসে নিজেকে ছাপিয়ে যাচ্ছেন প্রতিনিয়ত। কোপা আমেরিকার সেমি-ফাইনালে কলম্বিয়ার বিপক্ষে টাইব্রেকারে তিনটি শট ঠেকিয়ে রাতারাতি তারকা বনে যাওয়া মার্তিনেসের জন্য জীবনে প্রতিটি অর্জনই এসেছে অসংখ্য ত্যাগ-তিতিক্ষার বিনিময়ে।
  • পেনাল্টির আগে স্মাইকেলের মুখে লেজার লাইট মারার অভিযোগ
    হ্যারি কেইন স্পট কিক নেওয়ার আগমুহূর্তে ডেনমার্কের গোলরক্ষক কাসপের স্মাইকেলের মুখে লেজার লাইট মারার ঘটনাসহ ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিনটি ‘ডিসিপ্লিনারি চার্জ’ এনেছে উয়েফা।
  • মেসিকে আটকানোর ‘উপায় জানে’ ব্রাজিল
    সময়ের সেরা তো বটেই, অনেকের মতে ফুটবল ইতিহাসেরই সেরা লিওনেল মেসি। তাকে আটকানো যেকোনো প্রতিপক্ষের জন্য সবচেয়ে কঠিন কাজ। একজনের পক্ষে তো নয়ই, আর্জেন্টাইন তারকাকে রুখতে লাগবে দলীয় প্রচেষ্টা, ভালোমতোই জানেন ও বোঝেন ব্রাজিলের ডিফেন্ডার মার্কিনিয়োস। তবে কোপা আমেরিকার শিরোপা লড়াইয়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের মুখোমুখি হওয়ার আগে দারুণ আত্মবিশ্বাসী তিনি। দৃঢ়কণ্ঠে বললেন, মেসিকে আটকানোর উপায় তাদের জানা।
  • ছবিতে ইউরোর দ্বিতীয় সেমি-ফাইনাল
    অসাধারণ এক ফ্রি কিকে ডেনমার্ককে এগিয়ে নেন মিকেল ডামসগার্ড। কিন্তু বেশিক্ষণ এই ব্যবধান ধরে রাখতে পারেনি তারা। আত্মঘাতী গোলে ফিরে সমতা। অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো ম্যাচে সফল স্পট কিকে ইংল্যান্ডের জয়সূচক গোলটি করেন হ্যারি কেইন। ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় সেমি-ফাইনালে ২-১ গোলে জিতে শিরোপার আরেক ধাপ কাছে পৌঁছে গেল গ্যারেথ সাউথগেটের দল।
  • স্টার্লিংয়ের মতে ওটা পেনাল্টিই ছিল
    ৫৫ বছর পর বড় কোনো টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠে উৎসবে ভাসছে ইংল্যান্ড। কিন্তু তাদের জয়সূচক গোলের প্রেক্ষাপট নিয়ে চলছে বিতর্কের ঝড়। যে পেনাল্টি গোলে ইংল্যান্ডকে জয় এনে দেন হ্যারি কেইন, সেটি আদৌ পেনাল্টি ছিল কিনা, এই প্রশ্ন উঠছে। তবে যাকে ‘ফাউল’ করায় পেনাল্টি, সেই রাহিম স্টার্লিংয়ের কোনো সংশয়ই নেই যে রেফারির সিদ্ধান্ত ঠিক ছিল।
  • ‘ডেনিশ ডায়নামাইটের’ পর ইংল্যান্ডের ‘অবিশ্বাস্য মুহূর্ত’
    পাঁচ দশকের বেশি যন্ত্রণাময় অপেক্ষা, প্রজন্মের পর প্রজন্মের বিষাদ, হতাশার অসংখ্য দিন-রাত্রি পেরিয়ে অবশেষে সেই বহুকাঙ্ক্ষিত মুহূর্ত। ৫৫ বছর পর বড় কোনো টুর্নামেন্টের ফাইনালে ইংল্যান্ড। ঘরের মাঠে সেমি-ফাইনাল জিতে ঘরের মাঠেই ট্রফি জয়ের মঞ্চে পা রাখার পর আনন্দের জোয়ারে ভাসছেন ইংল্যান্ডের কোচ, ফুটবলার, দলের সবাই।
  • ডেনমার্ককে হারিয়ে স্বপ্নের ফাইনালে ইংল্যান্ড
    প্রতিপক্ষের আক্রমণে পিষ্ট ডেনমার্ক মাথা তুলতে পারল সামান্যই। অবশ্য তাতেই ঘাম ছুটে গেল ইংল্যান্ডের। প্রতিপক্ষের ভুলে সমতায় ফিরলেও কাসপের স্মাইকেলের দেয়াল আর ভাঙতে পারছিল না তারা। অবশেষে অতিরিক্ত সময়ে গিয়ে মিলল জালের দেখা। প্রথমবারের মতো ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠল ইংল্যান্ড।
  • বোনুচ্চির কণ্ঠে ‘সবচেয়ে কঠিন পরীক্ষায়’ পাশ করার আনন্দ
    প্রায় দেড় যুগের ক্যারিয়ারে অসংখ্য ম্যাচ খেলেছেন। মুখোমুখি হয়েছেন অনেক শক্তিশালী দলের বিপক্ষে। তবে স্পেনের কঠিন চ্যালেঞ্জ উতরানোর পর লিওনার্দো বোনুচ্চি বললেন, এত কঠিন পরীক্ষায় তিনি পড়েননি আগে। তার ক্যারিয়ারে এটাই ‘কঠিনতম ম্যাচ।’
  • হেরেও গর্বিত স্পেন কোচ
    মাঠজুড়ে আধিপত্য বিস্তার করে গোলের সামনে গিয়ে খেই হারানো, ইতালির বিপক্ষে স্পেনকে এই রূপেই দেখা গেছে বারবার। শেষ পর্যন্ত স্প্যানিশদের সঙ্গী হয়েছে টাইব্রেকারে হার। তবে নিজেদের খেলার ধরনে খুশি লুইস এনরিকে। ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের সেমি-ফাইনালে জিততে না পারলেও কষ্ট নেই বলে দাবি স্পেন কোচের, বরং গর্বের অনেক কিছু তিনি দেখছেন।
  • ছবিতে আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়া লড়াই
    লাউতারো মার্তিনেসের গোলে শুরুতে এগিয়ে গেলেও ব্যবধান ধরে রাখতে পারেনি আর্জেন্টিনা। দ্বিতীয়ার্ধে লুইস দিয়াসের গোলে সমতা ফেরায় কলম্বিয়া। ব্রাসিলিয়ার মানে গারিঞ্চা স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বুধবার সকালে নির্ধারিত সময়ে ম্যাচ ১-১ ড্র থাকে। পরে টাইব্রেকারে গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেসের সৌজন্যে ৩-২ ব্যবধানে জেতে লিওনেল স্কালোনির দল। ছবি: রয়টার্স।
  • পরিসংখ্যানে আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়া ম্যাচ
    ছন্দে থাকা আর্জেন্টিনাকে আটকে দিতে ম্যাচের শুরু থেকেই শারীরিক ফুটবলের প্রদর্শনীতে ব্যস্ত ছিল কলম্বিয়া। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে তাতে যোগ দেয় লিওনেল স্কালোনির দলও। ফাউল ও হলুদ কার্ডের রেকর্ড গড়া ম্যাচটি ৯০ মিনিটে শেষ হয় সমতায়। টাইব্রেকারে দুই বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের ত্রাতা ছিলেন গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেস। তিনটি শট ঠেকিয়ে দলকে তিনি নিয়ে যান ফাইনালে।
  • ‘ব্রাজিল দুর্দান্ত, কিন্তু আমাদের আছে বিশ্বসেরা ফুটবলার’
    টাইব্রেকার জিতে ফাইনালে পা রাখা তো হলো। কিন্তু ফাইনাল তো আর্জেন্টিনার জন্য নতুন কিছু নয়। তাদের ট্রফির অপেক্ষা কি শেষ হবে? সেমি-ফাইনাল জয়ের নায়ক এমিলিয়ানো মার্তিনেসের বিশ্বাস, তারা পারবেন। সেই বিশ্বাসের মূল ভিত্তি, একজন লিওনেল মেসি। দেশের মাঠে যদিও ব্রাজিলকে হারানো কঠিন, তবু মেসি আছেন বলেই ভরসা রাখছেন মার্তিনেসরা।
  • মুগ্ধ মেসির উচ্চারণ, ‘আমাদের এমি আছে’
    টাইব্রেকার জিতে যখন বাঁধনহারা উচ্ছ্বাসে ছুটছেন আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা, লিওনেল মেসি ছুটে গেলেন এমিলিয়ানো মার্তিনেসের দিকে। মার্তিনেসের চোখে তখন জল, অবশ্যই খুশির! মেসি তাকে জড়িয়ে রাখলেন পরম আবেগে। টাইব্রেকারে মার্তিনেসের বীরোচিত পারফরম্যান্সেই তো জিইয়ে রইল মেসির স্বপ্ন, আর্জেন্টিনার স্বপ্ন!
  • ‘এখানেই শেষ নয়’, ফাইনালে উঠে ইতালি কোচের হুঙ্কার
    কঠিন ম্যাচ উতরে যাওয়ার স্বস্তি আছে। সংশয়বাদীদের ভুল প্রমাণ করার তৃপ্তি আছে। স্নায়ুক্ষয়ী লড়াই জিতে শিরোপা মঞ্চে পা রাখতে পেরে তাই উচ্ছ্বসিত রবের্তো মানচিনি। সেমি-ফাইনাল জয়ের পর ইতালি কোচের আত্মবিশ্বাসী উচ্চারণ, এবার তারা তাকিয়ে চূড়ান্ত লক্ষ্য পূরণে।
  • আর্জেন্টিনাকে ফাইনালে নিলেন এমিলিয়ানো মার্তিনেস
    টাইব্রেকার এড়াতে চেয়েছিলেন আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি। তবে সেমি-ফাইনালে সেই ভাগ্য পরীক্ষাতেই নামতে হয়েছিল তার দলকে। সেখানে ব্যবধান গড়ে দিলেন এমিলিয়ানো মার্তিনেস। কলম্বিয়ার তিনটি শট ঠেকিয়ে দলকে কোপা আমেরিকার ফাইনালে তোলার নায়ক এই গোলরক্ষক।
  • স্পেনের আশা ভেঙে ফাইনালে ইতালি
    খেলার ধারার বিপরীতে গোল পেয়ে জেগে উঠল ইতালি। ছেদ পড়ল স্প্যানিশ আধিপত্যে। তবে তা কিছুটা সময়ের জন্যই। বদলি নেমে দলকে পথে ফেরালেন আলভারো মোরাতা। অতিরিক্ত সময় পেরিয়ে ম্যাচ গড়ালো টাইব্রেকারে। যেখানে জয়োল্লাসে ফেটে পড়ল ইতালি, ভাসলো ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ওঠার আনন্দে।
  • এরিকসেনকে ওয়েম্বলির ফাইনালে উয়েফার আমন্ত্রণ
    শরীরটা হঠাৎ বিগড়ে না বসলে তিনি থাকতে পারতেন মাঠে। ডেনমার্কের জার্সিতে ছড়াতে পারতেন আলো। তবে থাকতে পারেন ফাইনালে। ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচ দেখার জন্য তাকে ওয়েম্বলিতে আমন্ত্রণ জানিয়েছে উয়েফা।
  • ‘আর্জেন্টাইনদের মুখে হাসি ফোটাতে লড়ব আমরা’
    কোপা আমেরিকার গত তিন আসরেই সুযোগ এসেছে দুইবার। কিন্তু হাসি ফোটেনি আর্জেন্টাইনদের মুখে। ২০১৫ ও ২০১৬-দুই আসরের ফাইনালে চিলির বিপক্ষে হারের বিষাদ হয়েছিল সঙ্গী। এবারের আসরেও ফাইনালের পথে এগিয়ে চলা আর্জেন্টিনাকে নিয়ে আত্মবিশ্বাসী রদ্রিগো দে পল। দেশবাসীর মুখে হাসি ফোটানোর লড়াইয়ের জন্য দল প্রস্তুত বলে জানালেন এই মিডফিল্ডার।
  • ‘আর্জেন্টিনা কেবল মেসি নির্ভর নয়’
    আসরের শুরু থেকেই আর্জেন্টিনাকে সামনে থেকে পথ দেখাচ্ছেন লিওনেল মেসি। লাউতারো মার্তিনেস, আলেহান্দ্রো গোমেসরা দিয়ে চলেছেন যোগ্য সঙ্গ। কলম্বিয়ান মিডফিল্ডার ‍হুয়ান কুয়াদরাদো তাই দলকে কেবল মেসির ভাবনায় ডুবে থাকতে বারণ করছেন। পার্থক্য গড়ে দেওয়ার মতো অনেকে প্রতিপক্ষ দলে আছে বলে সতর্ক করে দিলেন সতীর্থদের।
  • পরিসংখ্যানে ব্রাজিল-পেরু সেমিফাইনাল
    কোপা আমেরিকার শিরোপা ধরে রাখার অভিযানে সব বাধা পেরিয়ে ফাইনালে পৌঁছে গেছে ব্রাজিল। তাতে দারুণ একটি কীর্তি গড়েছেন দলটির কোচ তিতে। স্পর্শ করেছেন ব্রাজিলের কোচ হিসেবে প্রতিযোগিতাটিতে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড।
  • কলম্বিয়ার বিপক্ষে টাইব্রেকারে যেতে চায় না আর্জেন্টিনা
    কোপা আমেরিকার ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে নিখুঁত একটি ম্যাচ খেলার পরিকল্পনা আঁটছেন আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি। কলম্বিয়ার বিপক্ষে তারা জয় নিশ্চিত করতে চায় ম্যাচের নির্ধারিত সময়েই। তার চাওয়া, টাইব্রেকারে যেন না যেতে হয়।
  • কিয়েভের স্মৃতি আওড়ে বোনুচ্চির ‘ভিন্ন ম্যাচের’ বার্তা
    আবারও প্রতিপক্ষ স্পেন। ইতালি দলে ফিরে ফিরে আসছে ৯ বছর আগের সেই দুঃসহ স্মৃতি। ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে সেবার স্পেনের কাছে বিধ্বস্ত হয়েছিল আজ্জুরিরা। এবারের লড়াইয়ের আগে লিওনার্দো বোনুচ্চি প্রত্যয়ী কণ্ঠে দিলেন দারুণ কিছুর প্রতিশ্রুতি।
  • ছবিতে ব্রাজিল-পেরুর সেমিফাইনাল
    কোপা আমেরিকার ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে শুরু থেকেই আক্রমণের পরসা সাজিয়েছিল ব্রাজিল। প্রথমার্ধেই সেটার সুফল পেয়ে যায় তারা। নেইমারের জাদুকরী ছোঁয়ায় বল পেয়ে ব্যবধান গড়ে দেন লুকাস পাকুয়েতা। রিও দে জেনেইরোর নিল্তন সান্তোস স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার ভোরে পেরুকে ১-০ গোলে হারায় স্বাগতিকরা। ছবি: রয়টার্স।
  • ‘দুর্দান্ত’ পাকেতায় মুগ্ধ নেইমার
    নেইমার যখন দারুণ ছন্দে, সেই দলে অন্য কারও আলোয় আসা কঠিন। তবে দিনশেষে ফুটবল তো গোলের খেলা। কোয়ার্টার-ফাইনাল ও সেমি-ফাইনালে ব্রাজিলকে জয় এনে দেওয়া গোল করে আলোটা ঠিকই নিজের দিকে নিতে পেরেছেন লুকাস পাকেতা। সতীর্থ এই মিডফিল্ডারের পারফরম্যান্সে ভরসার ছবি দেখছেন স্বয়ং নেইমারও।
  • আর্জেন্টিনাকে হারিয়েই ট্রফি জিততে চান নেইমার
    ট্রফির লড়াইয়ে তুলনামূলক কঠিন প্রতিপক্ষকে এড়াতে পারলে স্বস্তির পাওয়ার কথা। নেইমার এখানে ব্যতিক্রম। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের হারানোর স্বাদ আর কঠিন চ্যালেঞ্জ জয়ের রোমাঞ্চই বেশি টানছে তাকে। ব্রাজিলের এই তারকা তাই দ্বিতীয় সেমি-ফাইনালে সমর্থন করবেন আর্জেন্টিনাকে। ফাইনালে লিওনেল মেসির দলকে হারিয়েই তিনি জিততে চান কোপা আমেরিকার শিরোপা।
  • পেরুকে হারিয়ে ফাইনালে ব্রাজিল
    আক্রমণাত্মক ফুটবলের পসরা সাজিয়ে প্রথমার্ধে এগিয়ে গেল ব্রাজিল। দ্বিতীয়ার্ধে দারুণ লড়াই করল পেরু। কিন্তু স্বাগতিকদের জমাট রক্ষণ ভাঙতে পারল না গত আসরের রানার্সআপরা। তাদের আবার হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠেছে তিতের দল।
  • ইতালির মতো শক্তিশালী নয় স্পেন: মরিনিয়ো
    ইউরোর মঞ্চে স্পেনের সঙ্গে সবশেষ দেখায় হেসেছিল ইতালি। এবারের আসরে দারুণ ধারাবাহিক তারাই, অনেকের চোখে এখন পর্যন্ত আসরের সেরা দল। জোসে মরিনিয়োও দেখছেন সেভাবেই। স্পেনের বিপক্ষে ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে রবের্তো মানচিনির দলকেই এগিয়ে রাখছেন পর্তুগিজ এই কোচ।
  • বিশ্বকাপের সেই হারের পুনরাবৃত্তি যেন না হয়, সতর্ক ইংল্যান্ড
    বছর তিনেকের মাথায় আরেকটি সেমি-ফাইনাল। ইংল্যান্ড দলকে স্বাভাবিকভাবে তাড়া করছে রাশিয়া বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে সেই হেরে যাওয়া ম্যাচটি। তবে ওই ব্যর্থতার মাঝেই ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ভালো করার অনুপ্রেরণা খুঁজছেন হ্যারি ম্যাগুইয়ার।
  • ‘আমরা কেইনকে আটকাতে পারব’, আত্মবিশ্বাসী ডেনমার্ক
    নকআউট পর্বের দুই ম্যাচেই গোল করেছেন। ২৫ বছর পর ইংল্যান্ডের ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের সেমি-ফাইনালে ওঠায় রেখেছেন দারুণ ভূমিকা। ইংলিশ ফরোয়ার্ড হ্যারি কেইনের সামর্থ্য নিয়ে কোনো সংশয় নেই আন্দ্রেয়াস স্ক্রাস্তেনসেন। তবে ডেনিশ এই ডিফেন্ডার আস্থা রাখছেন নিজেদের রক্ষণভাগের ওপর। আত্মবিশ্বাসী কণ্ঠে বললেন, কেইনকে আটকাতে পারবেন তারা। 
  • পেরুর বিপক্ষে লড়াইটা দারুণ হবে: ব্রাজিল কোচ
    শক্তি-সামর্থ্য-সাম্প্রতিক ফর্ম সব কিছুতে পেরুর চেয়ে যোজন যোজন এগিয়ে ব্রাজিল। কোপা আমেরিকার গ্রুপ পর্বেও তিতের দল পেয়েছিল অনায়াস জয়। এবার তেমন কিছু আশা করছেন না ব্রাজিল কোচ। নেইমার-কাসেমিরোদের সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, ফাইনালে যেতে পেরুর চেয়ে ভালো খেলতে হবে।
  • ধারাবাহিক পেরুকে নিয়ে সতর্ক ব্রাজিল
    ফেভারিটের তকমা নিয়ে কোপা আমেরিকার সেমি-ফাইনালে নামবে ব্রাজিল। মাঠ, কন্ডিশন সবকিছু চেনা তাদের। তবে, টুর্নামেন্টে ক্রমেই উন্নতি করা পেরুকে নিয়ে সতর্ক স্বাগতিকরা। ব্রাজিলের মিডফিল্ডার ফ্রেদের বিশ্বাস, গতবারের রানার্সআপদের বিপক্ষে আবারও নিজেদের সামর্থ্য দেখিয়েই ফাইনালে উঠতে পারবে তারা।
  • ‘ইতালি দুর্দান্ত, তবে স্পেনও কম নয়’
    প্রথম দুই ম্যাচই ড্র। গোল স্রেফ একটি। দৃষ্টিকটু রকমের ধারহীন ফুটবল। স্পেনকে নিয়ে তখন সমালোচনার শেষ নেই। গ্রুপ পর্ব উতরানোই কঠিন। সেই দলটিই পরের দুই ম্যাচে করল পাঁচটি করে গোল। এরপর সুইজারল্যান্ডের বাধা পেরিয়ে এখন তারা সেমি-ফাইনালের মঞ্চে। প্রতিপক্ষ এখানে ইতালি, ধারাবাহিকতায় যারা দুর্দান্ত। তবে প্রতিপক্ষকে সমীহ করেই স্পেনের মিকেল ওইয়ারসাবাল বলছেন, তারাও পিছিয়ে নেই।
  • ‘এরিকসেনের জন্য ভালোবাসাই আমাদের এতদূর টেনে এনেছে’
    মাঠে ক্রিস্তিয়ান এরিকসেনের ঢলে পড়া এবং তার জীবন-মৃত্যুর লড়াই খুব কাছ থেকে দেখে হতবিহ্বল হয়ে পড়েছিল সেদিন স্টেডিয়ামে উপস্থিত সবাই। তারপর পেরিয়ে গেছে অনেক দিন, ডেনিশ তারকা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। সেদিনের সেই হতাশাময় ঘটনাই পুরো ডেনমার্ক দলকে আজ যেন একক অটুট বন্ধনে বেঁধে ফেলেছে। কোচ কাসপের হিউমান্দের বললেন, সশরীরে এরিকসেন দলে নেই ঠিকই, তবে তার প্রতি ভালোবাসা আর সমবেদনার জোরেই খাদের কিনারা থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের সেমি-ফাইনালে পৌঁছেছে তারা।
  • ‘মাঠে আধিপত্য করেই জিতেছে আর্জেন্টিনা’
    অধিনায়ক লিওনেল মেসি সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন দলকে। লাউতারো মার্তিনেস, আনহেল দি মারিয়ারা মেলে ধরছেন নিজেদের। আর্জেন্টিনাও হয়ে উঠছে অপ্রতিরোধ্য। একুয়েডরের বিপক্ষে দাপুটে জয়ে কোপা আমেরিকা সেমি-ফাইনালে ওঠার পর মার্তিনেসও আত্মবিশ্বাসী কণ্ঠে শোনালেন, সামনেও একইরকম দাপুটে ফুটবল খেলার প্রত্যয়।
  • যেভাবে কোপা আমেরিকার শেষ চারে তারা
    কোপা আমেরিকায় ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা ছুটছে দারুণ গতিতে। গ্রুপ পর্ব, কোয়ার্টার-ফাইনাল পেরিয়ে সেমি-ফাইনালের মঞ্চে উঠে এসেছে লাতিন আমেরিকার ফুটবলের দুই পরাশক্তি। সেরা চারে তাদেরকে চ্যালেঞ্জ জানাবে প্যারাগুয়েকে বিদায় করা পেরু ও রেকর্ড চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়েকে ছিটকে দেওয়া কলম্বিয়া।
  • পরিসংখ্যানে উরুগুয়ে-কলম্বিয়া ম্যাচ
    নির্ধারিত সময়ে দুই দলের কেউই খুব বেশি উল্লেখযোগ্য সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। লুইস সুয়ারেস, এদিনসন কাভানিদের নিয়ে গড়া উরুগুয়ের আক্রমণভাগ সেভাবে পরীক্ষা নিতে পারেনি কলম্বিয়ার। ম্যাড়ম্যাড়ে ৯০ মিনিটের পর গোলশূন্য ম্যাচটি গড়ায় টাইব্রেকারে। সেখানে দুটি পেনাল্টি ঠেকিয়ে কলম্বিয়ার জয়ের নায়ক এই ম্যাচ দিয়েই দেশটির হয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়া গোলরক্ষক দাভিদ অসপিনা।
  • পরিসংখ্যানে আর্জেন্টিনা-একুয়েডর ম্যাচ
    গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে ব্রাজিলকে রুখে দিয়ে আর্জেন্টিনার বিপক্ষেও তেমন কিছুর স্বপ্ন দেখছিল একুয়েডর। কিন্তু দারুণ ছন্দে থাকা লিওনেল মেসিকে আটকে রাখতে পারেনি তারা। গোল করে ও করিয়ে দলকে এনে দিয়েছেন বড় জয়। তার কাঁধে চড়ে একুয়েডরের বিপক্ষে কোপা আমেরিকায় অপরাজিত থাকার রেকর্ড অক্ষুণ্ণ রাখল লিওনেল স্কালোনির দল।
  • প্রথম ফাইনালের ছবি আঁকছে ইংল্যান্ড
    কত দীর্ঘ ফুটবল ঐতিহ্য, সমৃদ্ধ সংস্কৃতি, কত কত গ্রেট ফুটবলারের পদচারণা। অথচ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে কখনোই ফাইনালের মঞ্চে পা রাখতে পারেনি ইংল্যান্ড। এবার সুবর্ণ সুযোগ। ঘরের মাঠে ফাইনাল মাত্র এক ম্যাচের দূরত্বে। সেমি-ফাইনালে ওঠার পর ইংল্যান্ড কোচ গ্যারেথ সাউথগেট স্বপ্ন দেখছেন সেই ইতিহাস গড়ার।
  • ব্যক্তিগত অর্জন নয়, ট্রফিতে চোখ মেসির
    সেমি-ফাইনালের আগ পর্যন্ত টুর্নামেন্টের সবচেয়ে বেশি গোল, সবচেয়ে বেশি অ্যাসিস্ট লিওনেল মেসির। সর্বোচ্চ গোল স্কোরারের পুরস্কার, সেরা ফুটবলারের স্বীকৃতি, সবকিছুই ডাকছে তাকে। তবে ব্যক্তিগত সাফল্যের স্রোতে একটুও গা ভাসিয়ে দিচ্ছেন না মেসি। আর্জেন্টাইন অধিনায়কের লক্ষ্য একটিই, দেশের হয়ে অধরা ট্রফি জয়।
  • মেসি জাদুতে সেমি-ফাইনালে আর্জেন্টিনা
    শুরুর দিকে একটি সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করেছিলেন লিওনেল মেসি। পরে কী দারুণভাবেই না সেটা পুষিয়ে দিয়েছেন তিনি। গোল করেছেন, করিয়েছেন। অধিনায়কের নৈপুণ্যে একুয়েডরকে হারিয়ে কোপা আমেরিকার সেমি-ফাইনালে উঠেছে আর্জেন্টিনা।
  • সুয়ারেসদের বিদায় করে সেমিতে কলম্বিয়া
    বল দখলের লড়াইয়ে সমানে-সমান। আক্রমণেও প্রায় তাই। যদিও উল্লেখযোগ্য সুযোগের দেখা মিলল কমই। পরে টাইব্রেকারে ব্যবধান গড়ে দিলেন গোলরক্ষক দাভিদ অসপিনা। তার নৈপুণ্যে উরুগুয়েকে হারিয়ে কোপা আমেরিকার সেমি-ফাইনালে উঠল কলম্বিয়া।
  • ২৫ বছর পর ইউরোর সেমিতে ইংল্যান্ড
    শিরোপা স্বপ্নে বিভোর প্রতিপক্ষকে ন্যূনতম চ্যালেঞ্জও জানাতে পারল না ইউক্রেন। ম্যাচের শুরুতে এগিয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধে আরও তিনবার জালে বল পাঠাল ইংল্যান্ড। দাপুটে জয়ে উঠল ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের সেমি-ফাইনালে।
  • চেকদের হারিয়ে শেষ চারে ডেনমার্ক
    প্রথমার্ধে দুই গোল করে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেওয়া ডেনমার্ক বিরতির পর ছন্দ হারাল কিছুটা। ব্যবধান কমিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর সম্ভাবনা জাগাল চেক রিপাবলিক। তবে শেষ পর্যন্ত পেরে উঠল না তারা। দারুণ জয়ে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের সেমি-ফাইনালে উঠল ডেনিশরা।
  • বড় মঞ্চে সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছে সুইজারল্যান্ড
    প্রায় এক দশক ধরে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে উপরের দিকে সুইজারল্যান্ডের নিয়মিত অবস্থান দেখে হয়তো অনেকেই অবাক হয়েছে। হ্যাঁ, এটাও ঠিক যে র‌্যাঙ্কিংয়ের অবস্থান দিয়ে সবসময় সব দলের শক্তির পরখ মেলে না। তবে এবারের ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে নজরকাড়া পারফরম্যান্স দিয়ে, নতুন ইতিহাস গড়ে সুইজারল্যান্ড তাদের সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছে।
  • এমন বিদায় বেলজিয়ামের প্রাপ্য নয়: কোচ
    মেজর টুর্নামেন্ট, বেলজিয়াম এবং হতাশা- সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এই শব্দগুলো যেন সমার্থক হয়ে গেছে। ফেভারিট হিসেবে আসর শুরুর পর ফাইনালের আগেই শেষ পথ চলা। হতাশার তালিকায় এবার যুক্ত হলো ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের কোয়ার্টার-ফাইনালে হার। ইতালির বিপক্ষে হার মানতে পারছেন না দলটির কোচ রবের্তো মার্তিনেস। তার মতে, ইউরো থেকে বিদায় বেলজিয়ামের প্রাপ্য নয়।
  • পরিসংখ্যানে পেরু-প্যারাগুয়ে ম্যাচ
    কোপা আমেরিকার কোয়ার্টার-ফাইনালে পেরু-প্যারাগুয়ে ম্যাচ নিয়ে তেমন উম্মাদনা না থাকলেও জমজমাট লড়াই উপহার দিয়েছে দুই দল। নির্ধারিত সময়ে ৩-৩ ড্র হওয়ার পর টাইব্রেকার। সেখানে ৪-৩ গোলে জিতে সেমি-ফাইনালে জায়গা করে নেয় পেরু।
  • পরিসংখ্যানে ব্রাজিল-চিলি ম্যাচ
    দ্বিতীয়ার্ধের প্রায় প্রায় পুরোটা সময় একজন কম নিয়ে খেলেও অজেয় যাত্রা ধরে রেখেছে ব্রাজিল। রক্ষণ অটুট রেখে কোয়ার্টার-ফাইনালে হারিয়েছে চিলিকে। ধরে রেখেছে দেশটির বিপক্ষে আধিপত্য।
  • ইতালির জয়োৎসবে স্পিনাস্সোলার বিষাদ
    গোটা টুর্নামেন্টে অসাধারণ খেলেও স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়তে হলো অশ্রুসিক্ত চোখে। লিওনার্দো স্পিনাস্সোলার সেই চোখের জলে আর্দ্র তার দলও। বেলজিয়ামের বিপক্ষে দারুণ জয়ে সেমি-ফাইনালে ওঠার পর আনন্দে ডুবে থাকার কথা ইতালির। কিন্তু ডিফেন্ডার স্পিনাস্সোলার চোটে কিছুটা রঙ হারাল তাদের উচ্ছ্বাস।
  • চোট নিয়ে খেলে হার, ডে ব্রুইনের চোখ এখন বিশ্বকাপে
    অ্যাঙ্কেলের লিগামেন্ট ছিঁড়ে গেছে, ইতালির বিপক্ষে মাঠে নামার কথাই ছিল না কেভিন ডে ব্রুইনের। অনেককেই অবাক করে দিয়ে তিনি নামলেন, পারফর্মও করলেন। কিন্তু ইতালির সঙ্গে পেরে উঠল না ডে ব্রুইনের বেলজিয়াম। হতাশ মিডফিল্ডার বললেন, এবার তারা তাকিয়ে ২০২২ বিশ্বকাপের চ্যালেঞ্জের দিকে।
  • ‘বড় পরীক্ষায়’ উতরে উচ্ছ্বসিত নেইমার
    গোল করার রেশ না ফুরিয়ে যেতেই একজনকে হারিয়ে ফেলার ধাক্কা। চিলির বিপক্ষে কঠিন পরীক্ষায়ই পড়েছিল ব্রাজিল। তবে সেই পরীক্ষায় শেষ পর্যন্ত পার পেয়ে গেছে কোপা আমেরিকার বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। দ্বিতীয়ার্ধের প্রায় পুরোটা ১০ জন নিয়েও খেলেও জয়ের পর নেইমার কৃতিত্ব দিলেন দলের সবাইকে।
  • টাইব্রেকার জিতবে স্পেন, নিশ্চিত ছিলেন এনরিকে
    টাইব্রেকার মানেই লটারি। প্রচলিত ধারণা এরকম হলেও তা বিশ্বাস করেন না লুইস এনরিকে। এখানেও তিনি দেখেন স্কিল, মানসিকতা এবং ফুটবলীয় কৌশলের সবকিছুই। সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের আগে দলকে সেভাবেই প্রস্তুত করেছিলেন স্পেন কোচ। তাই ম্যাচ যখন গড়াল টাইব্রেকারে, নিজেদের জয় নিয়ে একটুও সংশয় ছিল না তার।
  • রক্ষণ নিয়ে মেসি-মার্তিনেসদের আশ্বস্ত করলেন ওতামেন্দি
    কোপা আমেরিকার এবারের আসরে দারুণ উজ্জ্বল আর্জেন্টিনার রক্ষণ। চার ম্যাচে লিওনেল স্কালোনির দল গোল খেয়েছে মাত্র দুটি। নিকোলাস ওতামেন্দি বুঝতে পারছেন, নক আউট পর্বে চ্যালেঞ্জ থাকবে আরও বেশি। এতে মোটেও ঘাবড়ে যাচ্ছেন না অভিজ্ঞ এই ডিফেন্ডার। রক্ষণ একই রকম দৃঢ় থাকবে বলে আশ্বস্ত করে সতীর্থদের বলেছেন আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে।
  • ব্রাজিলের কাছে হেরে আর্জেন্টাইন রেফারিকে ‘ভাঁড়’ বললেন ভিদাল
    দ্বিতীয়ার্ধের প্রায় পুরোটায় ব্রাজিলকে ১০ জনের দল পেয়েও গোল করতে পারেনি চিলি। কিন্তু ম্যাচ হারার পর আর্তুরো ভিদালের সব ক্ষোভ গিয়ে পড়ল রেফারির ওপর। চিলির এই অভিজ্ঞ মিডফিল্ডারের দাবি, আর্জেন্টাইন রেফারি পাত্রিসিও লোসতাও নিজেই ম্যাচের নায়ক হতে চেয়েছেন, খেলতেই দেননি চিলিকে।
  • কষ্টের জয়ে সেমিতে ব্রাজিল
    দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে এগিয়ে যাওয়ার পরপরই ১০ জনের দলে পরিণত হলো ব্রাজিল। একজন বেশি থাকার সুবিধা কাজে লাগিয়ে তাদের চেপে ধরল চিলি। কিন্তু একের পর এক আক্রমণ ঠেকিয়ে ব্যবধান ধরে রাখত পারল ব্রাজিল। রক্ষণের দৃঢ়তায় চিলিকে হারিয়ে সেমি-ফাইনালে পৌঁছাল তিতের দল।
  • ছবিতে পেরুর রুদ্ধশ্বাস জয়ের গল্প
    রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে প্যারাগুয়েকে হারিয়ে কোপা আমেরিকার সেমি-ফাইনালে উঠেছে পেরু। গোইয়ানিয়ায় বাংলাদেশ সময় শনিবার ভোরে শেষ আটের ম্যাচে নির্ধারিত সময়ে ৩-৩ সমতার পর টাইব্রেকারে ৪-৩ ব্যবধানে জেতে গত আসরের রানার্সআপরা।ছবি: রয়টার্স
  • ৬ গোলের রোমাঞ্চের পর টাইব্রেকারে জিতে সেমিতে পেরু
    অনেকটা সময় এক জন কম নিয়েও দুর্দান্ত লড়াই করল প্যারাগুয়ে। দুবার পিছিয়ে পড়েও ঘুরে দাঁড়িয়ে ম্যাচ নিল টাইব্রেকারে। সেখানেও জমজমাট লড়াইয়ে জিতে কোপা আমেরিকার সেমি-ফাইনালে উঠল পেরু।
  • বেলজিয়ামের হৃদয় ভেঙে শেষ চারে ইতালি
    দারুণ দুটি গোলে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেওয়া ইতালি বিরতির আগে ছোট্ট একটা ভুল করে বসল। ব্যবধান কমিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর সম্ভাবনা জাগাল বেলজিয়াম। তবে অদম্য ইতালিয়ানদের প্রতিরোধ আর ভাঙতে পারল না তারা। রোমেলু লুকাকু-কেভিন ডে ব্রুইনেদের স্বপ্ন ভেঙে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের সেমি-ফাইনালে পা রাখল রবের্তো মানচিনির দল।
  • সুইসদের স্বপ্নযাত্রা থামিয়ে সেমিতে স্পেন
    ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে থেমে গেল সুইজারল্যান্ডের স্বপ্নময় পথচলা। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়ানোর অসাধারণ গল্প লেখা দলটি স্পেনের সামনেও লড়াই করল দুর্দান্ত। শুরুতে পিছিয়ে পড়ার ধাক্কা সামলে ফেরাল সমতা। অনেকটা সময় একজন কম নিয়েও রুখে দিল প্রতিপক্ষের একের পর এক আক্রমণ। তবে টাইব্রেকারে এবার আর পেরে উঠল না তারা। সেমি-ফাইনাল উঠল লুইস এনরিকের দল।
  • কোপা আমেরিকায় নকআউট পর্বে থাকছে না অতিরিক্ত সময়
    গত আসরে সেমি-ফাইনালে যোগ হয়েছিল অতিরিক্ত সময়। কথা ছিল এবার এক ধাপ এগিয়ে কোয়র্টার-ফাইনাল থেকে থাকবে বাড়তি ৩০ মিনিট সময়। কিন্তু নক আউট পর্ব যখন দুয়ারে তখন সিদ্ধান্ত পাল্টে কোপা আমেরিকার আয়োজক কনমেবল জানাল, এই অংশেই থাকছে না অতিরিক্ত সময়।