পিএসজির নতুন কোচ গালতিয়ে

মাওরিসিও পচেত্তিনোর সঙ্গে চুক্তি বাতিলের ঘণ্টা দুয়েক পরই নতুন কোচ নিয়োগের ঘোষণা দিল পিএসজি। গত কিছুদিনের গুঞ্জন সত্যি করে ফরাসি ক্লাবটির দায়িত্ব নিলেন ক্রিস্তফ গালতিয়ে।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 July 2022, 12:52 PM
Updated : 5 July 2022, 02:12 PM

নিসের সাবেক কোচ গালতিয়ের সঙ্গে পিএসজির চুক্তি দুই মৌসুমের; ২০২৪ সালের জুন পর্যন্ত। মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে লিগ ওয়ানের দলটি।

সাবেক ডিফেন্ডার ৫৫ বছর বয়সী গালতিয়ে খেলোয়াড়ি জীবনে বড় কোনো তারকা ছিলেন না। তবে কোচ হিসেবে ফরাসি ফুটবলে নিজের ছাপ রাখতে শুরু করেছেন তিনি।

কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করেন তিনি সহকারী কোচ হিসেবে। ১৯৯৯ থেকে ২০০৯ পর্যন্ত বেশ কয়েকটি ক্লাবে এই দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৯ সালে সাঁত এতিয়েনের প্রধান কোচ হিসেবে দায়িত্ব পান তিনি।

তার কোচিংয়ে ক্লাবটি ৩২ বছরের শিরোপা খরা কাটায় ২০১৩ সালে ফরাসি লিগ কাপ জিতে। তাদের ফেরান ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায়। এরপর ২০১৭ সালে তিনি দায়িত্ব নেন লিলের। তার হাত ধরে বদলে যায় দলটি।

২০১৯ সালে লিগ ওয়ানে রানার্সআপ হয় লিল। পরের বছর তারা লিগ শেষ করে চতুর্থ স্থানে থেকে। ২০২১ সালে করে বাজিমাত, পিএসজিকে পেছনে ফেলে তারা জিতে নেয় লিগ শিরোপা।

২০২১-২২ মৌসুম শুরুর আগে নিসের দায়িত্ব নেওয়া গালতিয়ে গত ২৭ জুন সরে দাঁড়ান। তার কোচিংয়ে গত মৌসুমে ক্লাবটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার সম্ভাবনা জাগালেও শেষ পর্যন্ত তারা লিগ ওয়ান শেষ করে পঞ্চম স্থানে থেকে।

পচেত্তিনোর কোচিংয়ে গত মৌসুমে লিগ ওয়ানের শিরোপা জিতলেও মূল লক্ষ্য পূরণের ধারেকাছে যেতে পারেনি পিএসজি। তারকায় ঠাসা দল চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ছিটকে যায় শেষ ষোলোতে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরে। চুক্তির মেয়াদ এক বছর বাকি থাকতে প্যারিসের ক্লাবটিতে তাই বিদায় ঘণ্টা বেজে যায় আর্জেন্টাইন কোচের।

২০১১ সালে কাতারের মালিকপক্ষ পিএসজির দায়িত্ব নেওয়ার পর দলটির সপ্তম কোচ হলেন গালতিয়ে। দায়িত্ব পেয়ে তিনি কৃতজ্ঞতা জানালেন ক্লাব কর্তৃপক্ষের প্রতি।

“পিএসজিতে যোগ দিতে পেরে আমি আনন্দিত। আমার প্রতি আস্থা রাখার জন্য চেয়ারম্যান নাসের আল-খেলাইফি, (ফুটবল উপদেষ্টা) লুইস কাম্পোস এবং ক্লাবকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।”

“অসাধারণ এই দলের কোচের দায়িত্ব সম্পর্কে আমি পুরোপুরি বুঝতে পারছি। ইউরোপের সবচেয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক ও অসাধারণ দলগুলির একটি তারা।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক