সাবেক ডাচ ফুটবল কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ

পেশাদার ফুটবলার হিসেবে ক্যারিয়ার শেষ হয়েছে ২৪ বছর আগে। তবে খেলোয়াড়ি জীবনে ঘটে যাওয়া দুঃসহ ঘটনার যন্ত্রনায় এখনও পুড়ছেন সাবেক নেদারল্যান্ডস নারী ফুটবলার ভেইরা পাউ। ওই সময়ে ডাচ ফুটবলের সঙ্গে যুক্ত তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ এনে পুলিশের দারস্থ হয়েছেন তিনি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 July 2022, 11:31 AM
Updated : 2 July 2022, 11:31 AM

সাবেক এই ডিফেন্ডারের দাবি, বারবার অভিযোগ জানালেও ডাচ এফএ’র (কেএনভিবি) কাছ থেকে এই ব্যাপারে কোনো সহায়তা পাননি তিনি।

১৯৮৪ থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত নেদারল্যান্ডসের হয়ে খেলেন পাউ। অবসরের পর স্কটল্যান্ড নারী দলের হয়ে তার কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করেন। এরপর ২০০৪ সালে নেদারল্যান্ডস জাতীয় নারী দলের দায়িত্ব নিয়ে ছয় বছর ওই দলেই কোচিং করান তিনি। আর ২০১৯ সাল থেকে আয়ারল্যান্ড নারী দলের কোচ হিসেবে আছেন ৫৯ বছর বয়সী পাউ।

গত শুক্রবার নিজের টুইটার একাউন্টে বিশদ বিবৃতিতে পাউ জানান খেলোয়াড় থাকাকালীন সময়ে তার সঙ্গে হওয়া ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের ঘটনা।

“৩৫ বছর ধরে আমি সারা বিশ্বের কাছ থেকে, আমার পরিবার, আমার সতীর্থদের কাছ থেকে একটি ঘটনা গোপন রেখেছি।”

“যখন তরুণ খেলোয়াড় ছিলাম তখন একজন বিশিষ্ট ফুটবল কর্মকর্তা দ্বারা আমি ধর্ষণের শিকার হয়েছিলাম, ঘটনাটি এমনকি আমার খুব কাছের লোকেরাও জানে না। পরবর্তীতে আরও দুজন পুরুষের দ্বারাও আমি যৌন হেনস্তার শিকার হয়েছিলাম।”

ওই তিনজনই সেই সময়ে ডাচ ফুটবলে কর্মরত ছিলেন বলে জানিয়েছেন পাউ।

বিবৃতিতে তিনি আরও বলেছেন, নেদারল্যান্ডস জাতীয় দলে খেলোয়াড় ও কোচ থাকাকালীন সময়ে “সিস্টেম্যাটিক যৌন নির্যাতন, ক্ষমতার অপব্যবহার ও ভীতি প্রদর্শন’ বিষযগুলো তার সামনে উন্মুক্ত হয়ে পড়েছিল।

তিনি দাবি করেন, তার সঙ্গে ঘটে যাওয়া অন্যায়ের ব্যাপারে ডাচ এফএর কাছে পাঁচটি রিপোর্ট করেছিলেন তিনি। কিন্তু তাদের কাছ থেকে কোনো সাড়া না পেয়ে পুলিশের কাছে ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের অভিযোগ করেছেন তিনি।

“গত কয়েক বছর ধরে আমি নেদারল্যান্ডসের ফুটবল কর্তৃপক্ষের কাছে আমার বিষয়টি ভালোভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি, কিন্তু তাতে কোনো লাভ হয়নি। আমি আর নীরবতা পালন করতে পারি না।”

“সবকিছু এরই মধ্যে আমার শেষের শুরুর মতো মনে হচ্ছে, তবে আমি জানি যে আরও যন্ত্রণা বাকি রয়েছে।”

পাউ আশাবাদী, তাকে দেখে ভুক্তভোগী অন্য খেলোয়াড় ও কোচরাও তাদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া এমন ঘটনাগুলো সবার সামনে তুলে ধরবেন।

রয়টার্সকে পাঠানো এক বিবৃতিতে ডাচ এফএ বলেছে, পাউ গত বছর তার সঙ্গে ঘটে যাওয়া ঘটনার ব্যাপারে তাদের জানিয়েছিলেন এবং এরপর তারা তাকে নিয়ে একটি স্বাধীন তদন্ত শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক