সাবিনাদের সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়তে বললেন কোচ

আছে প্রথম ম্যাচে দাপুটে জয়ের আত্মবিশ্বাস। সঙ্গে মধুর প্রতিশোধ নেওয়ার তৃপ্তি। ছোটখাটো ভুল-ত্রুটি শুধরেও নেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন তাই আরও বেশি আত্মবিশ্বাসী। মালয়েশিয়ার বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচেও জয়ের জন্য সাবিনা-কৃষ্ণাদের সর্বশক্তি প্রয়োগের বার্তা দিলেন তিনি।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 June 2022, 12:08 PM
Updated : 25 June 2022, 12:35 PM

কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে রোববার সন্ধ্যা ৬টায় মুখোমুখি হবে দুই দল। দুই প্রীতি ম্যাচের প্রথমটিতে মালয়েশিয়াকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দেয় বাংলাদেশ।

প্রথম ম্যাচের পর ভারী অনুশীলনের পথে হাঁটেনি বাংলাদেশ। যারা ম্যাচ খেলেছিলেন, তাদের রিকভারির দিকে মনোযোগী ছিলেন ছোটন। বাকিদের অনুশীলন করিয়েছেন। গুরুত্ব দিয়েছেন প্রথম ম্যাচের ছোটখাটো ভুলগুলো শুধরে নেওয়ার দিকে। তবে লক্ষ্য একটাই-জয়ের ধারায় থাকা। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে সংবাদ সম্মেলনে এসে ছোটন সে কথাই বললেন।

“পরিকল্পনা অনুযায়ী আমরা একটা ম্যাচ খেলে ফেলেছি। মেয়েরা তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী সর্বোচ্চটা দিয়েই খেলেছে এবং আমরা ভালোভাবেই জয় লাভ করেছি। এখন আমাদের সামনে আরেকটা ম্যাচ আছে, ম্যাচটা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আগের ম্যাচের পারফরম্যান্স এ ম্যাচেও করব।”

“মেয়েদের কাছে বার্তা থাকবে, যেহেতু আমরা তাদের বিপক্ষে একটা ম্যাচ খেলেছি, আমাদের সম্পর্কে তারা পুরো ধারণাটাই পেয়েছে। এ ম্যাচেও আমরা সর্বশক্তি প্রয়োগ করব, পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলব। আগেও বলেছে আমরা ভালো খেলব, দর্শকদের আনন্দ দিব, এর সঙ্গে ইনশাল্লাহ জয় নিয়ে ফিরব।”

বড় ব্যবধানে হারলেও বাংলাদেশ সম্পর্কে ধারণা পেয়েছে মালয়েশিয়া। ছোটন জানালেন, প্রতিপক্ষের সম্পর্কে ধারণা পেয়েছে তার দলও। আসছে ম্যাচেও আক্রমণাত্মক ফুটবলের বার্তা দিলেন তিনি।

“প্রথম ম্যাচের পরই আমরা ছোট মিটিং করেছিলাম। ওই সময় ম্যাচের খুঁটিনাটি বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে। প্রথম ম্যাচে ভালো দিকগুলো বেশি ছিল, এ ছাড়া যে বিষয়গুলো ছিল, সেগুলো বোঝানোর চেষ্টা করেছি। আমাদের থিওরিক্যাল ক্লাস হয়েছে, যারা খেলেছে তারা রিকভারি করেছে, বাকিরা অনুশীলন করেছে। মোটামুটি ভালো-মন্দ সব দিক নিয়ে আলোচনা হয়েছে এবং মেয়েরা সেটা বুঝেছে।”

“তারা যেমন আমাদের কৌশলটা দেখেছে, আমরাও তাদেরটা দেখেছি। তো আমাদেরও সে অনুযায়ী পরিকল্পনা থাকবে। প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচ হবে এবং এটা আমরা সবসবময় বলে আসছি। আমাদের বয়সভিত্তিক দলগুলো যেভাবে খেলে, জাতীয় দলও সেভাবেই খেলবে। আমরা উপভোগ্য এবং আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলব। যেহেতু আমরা প্রথম ম্যাচ জিতেছি, পরের ম্যাচও জেতার জন্য মেয়েরা সর্বোচ্চ শক্তি প্রয়োগ করবে।”

প্রথম ম্যাচে সিরাত জাহান স্বপ্না পেশিতে চোট পেয়েছেন। ব্যাক পেইন আছে তহুরা খাতুনের। এ দুজনের বাইরে কাউকে নিয়ে দুঃশ্চিন্তা নেই ছোটনের। জানালেন স্বপ্নার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে ম্যাচে আগ পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন।

“সকালে মেয়েরা স্ট্রেচিং করেছে।রিকভারির জন্য আজকে অনুশীলন নেই। স্বপ্নার কাফে একটু সমস্যা আছে। কাল সকাল পর্যন্ত ওকে পর্যবেক্ষণ করব। বাকিরা সুস্থ আছে। আশা করি আগের দলটা নিয়েই নামতে পারব। তহুরার ব্যাকপেইন আছে। যদি সে ভালো অনুভব করে, তাহলে চলে আসবে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক