দলের দুর্দান্ত ফুটবলে মুগ্ধ বাংলাদেশ কোচ

হাই প্রেসিং ফুটবল খেলার ছক কষেছিলেন। সাবিনা খাতুন-আঁখি খাতুন-মনিকা চাকমারা সেই ছক ধরেই ম্যাচ জুড়ে আধিপত্য করলেন। মালয়েশিয়াকে স্রেফ ভাসিয়ে দিলেন গোল বন্যায়। দুর্দান্ত জয়ের পর বাংলাদেশ কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনও জানালেন পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলছে তার দল।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 June 2022, 03:21 PM
Updated : 23 June 2022, 03:21 PM

কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার প্রথম প্রীতি ম্যাচের ৬-০ গোলে জেতে বাংলাদেশ। জোড়া গোল করেন আঁখি খাতুন; একটি করে গোল সাবিনা খাতুন, সিরাত জাহান স্বপ্না, মনিকা চাকমা ও কৃষ্ণা রানী সরকারের।

আগের দিনের সংবাদ সম্মেলনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ খেলার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ছোটন। জয়ের প্রশ্নে টু শব্দও করেননি। মালয়েশিয়াকে উড়িয়ে দেওয়ার পর কোচ জানালেন দারুণ তৃপ্তি অনুভবের কথা।

“সবসময় জেতার ওপরেই জোর দেই। মেয়েরা উন্নতি করেছে, এটাই সন্তুষ্টির জায়গা। সবচেয়ে ভালো দিক যে মেয়েরা ৯০ মিনিট খেলার মধ্যে থাকে। আসলে ম্যাচ হবে প্রতিযোগিতামূলক এবং মেয়েরা উন্নতি করছে। যখন ভুল হয়েছে, তখন এটা নিয়ে কাজ করেছি। ভুল কম হলেই ভালো করা সম্ভব। আমরা পরিকল্পনা অনুযায়ীই খেলেছি যার ফলে এই জয়।”

“হাই লাইন প্রেস করেই আক্রমণে যাব এই কৌশলেই খেলেছি। মেয়েরা পুরোটা সময় পরিকল্পনা অনুযায়ীই খেলার মধ্যে ছিল। কমলাপুরের এই মাঠে মেয়েরা সব সময় দুর্দান্ত ফুটবল খেলেছে।”

দারুণ এই জয়ে মধুর প্রতিশোধও নিল বাংলাদেশ। ২০১৭ সালের দেখায় মালয়েশিয়ার কাছে ২-১ গোলে হেরেছিল দল। সেই ম্যাচের হার এবং এবারের বড় জয়ের কারণও খুঁজে পেয়েছেন ছোটন।

“পার্থক্য ওই দলের সব খেলোয়াড় নতুন ছিল, বয়স কম ছিল। স্বপ্না সে ম্যাচেই ভালো খেলেছিল কিন্তু গোল পায়নি। কয়েক বছরে এত এত ম্যাচ খেলে মেয়েরা অভিজ্ঞতা বাড়িয়েছে, তাদের বয়স বেড়েছে এবং মেয়েরা এখন পরিণত। কাজ আমরা প্রতিনিয়তই করছি। কাজ করার অবশ্যই আরও জায়গা আছে।”

আগামী রোববার দ্বিতীয় প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক