‘ইংল্যান্ড দল এখন আর্জেন্টিনা-জার্মানির সমান’

কোনো মেজর টুর্নামেন্টের আগে ফেভারিটের তকমা পাওয়াটা ইংল্যান্ডের জন্য নতুন নয়। তবে তাদের বর্তমান দলটিকে স্রেফ কাগজে-কলমে নয়, পারফরম্যান্সের দিক থেকেও যথেষ্ট শক্তিশালী মনে করেন ইতালি কোচ রবের্তো মানচিনি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 June 2022, 10:27 AM
Updated : 11 June 2022, 10:36 AM

ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ের ১১ মাস পর আবারও ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হওয়ার আগে প্রতিপক্ষের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন মানচিনি। এই ইতালিয়ান মনে করেন, শক্তির বিচারে সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা এখন আর্জেন্টিনা ও জার্মানির সমতুল্য।

নেশন্স লিগে ‘এ’ লিগের ৩ নম্বর গ্রুপে বাংলাদেশ সময় শনিবার রাত পৌনে একটায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে ইতালি। 

গত জুলাইয়ে ওয়েম্বলিতে ইউরো-২০২০ ফাইনালে ইংল্যান্ডকে টাইব্রেকারে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ইতালি। ওই ম্যাচের পর এই প্রথম মুখোমুখি হতে যাচ্ছে দল দুটি।

১৯৬৬ সালে বিশ্বকাপ জয়ের পর আর কোনো মেজর শিরোপা জিততে পারেনি ইংলিশরা। সবশেষ ইউরোয় স্বপ্নভঙ্গের আগে ২০১৮ বিশ্বকাপে তারা বিদায় নিয়েছিল সেমি-ফাইনাল থেকে। 

তবে কাতার বিশ্বকাপকে সামনে রেখে গ্যারেথ সাউথগেট ইংল্যান্ড দলকে যেভাবে সাজাচ্ছেন, তাতে অন্য দলগুলোর তাদের সমীহ করার যথেষ্ট কারণ আছে। মানচিনিও তাতে একমত। সাবেক ম্যানচেস্টার সিটি কোচ মনে করেন, এই মুহূর্তে সেরা দলগুলোর তালিকায় ওপরের দিকেই থাকবে ইংল্যান্ড।

“ইংল্যান্ড এখন জার্মানি ও আর্জেন্টিনার সমমানের দল, তাদের অনেক শীর্ষ মানের খেলোয়াড় রয়েছে। ইংল্যান্ড কেবল এক বা দুজনের ওপর নির্ভর করে না, তাদের অনেক খেলোয়াড় আছে।”

“এটি সবসময়ের মতোই কঠিন ম্যাচ হবে, আমি এখনও লাইন আপ ঠিক করিনি এবং আমাদের খেলোয়াড়দের অবস্থা দেখতে হবে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লড়াইয়ের জন্য সঠিক জায়গায় খেলোয়াড় খুঁজে বের করাই আসল, এটা হালকাভাবে নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই।”

এই দুই দলের আসছে ম্যাচটিকে দেখা হচ্ছে ইউরোর ফাইনালের পুন:মঞ্চায়ন হিসেবে। যেখানে ইংল্যান্ডের চোখ থাকবে প্রতিশোধের দিকে।

মানিচিনি অবশ্য তেমনটা ভাবছেন না। তার মতে, বিশ্বকাপকে সামনে রেখে এই ম্যাচে প্রস্তুতি নেওয়ার দিকেই মনোযোগ দেবে ইংল্যান্ড।

“আমার মনে হয় না তারা এটাকে প্রতিশোধের মঞ্চ হিসেবে দেখছে। ভবিষ্যতে কখনও হতে পারে, কিন্তু এখন নয়।”

“নেশন্স লিগে এটি কেবলই আরেকটি ম্যাচ। তাদের জন্য বিশ্বকাপকে সামনে রেখে নতুন কিছুর চেষ্টা করা গুরুত্বপূর্ণ এবং ইংল্যান্ড হয়তো অনেক খেলোয়াড় পরিবর্তন করবে।”

গত মার্চে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে প্লে-অফের সেমি-ফাইনালে নর্থ মেসিডোনিয়ার বিপক্ষে হেরে কাতার বিশ্বকাপে উঠতে ব্যর্থ হয় ইতালি। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপেও মূল পর্বে জায়গা করে নিতে ব্যর্থ হয়েছিল সবশেষ ২০০৬ সালে বিশ্বকাপ জয়ীরা।

উলভারহ্যাম্পটনের মলিনিউ স্টেডিয়ামে ম্যাচটি হতে যাচ্ছে ‘দর্শকশূন্য’ স্টেডিয়ামে। ইউরো ২০২০-এর ফাইনালে টিকেট ছাড়া দর্শকদের মাঠে প্রবেশের চেষ্টা ও বিশৃঙ্খলার জন্য ইংল্যান্ডকে দেশের মাটিতে দুই ম্যাচের জন্য দর্শকশূন্য মাঠে খেলার শাস্তি দিয়েছিল উয়েফা। এর মধ্যে একটি ম্যাচের শাস্তি স্থগিত।

ম্যাচটি যে একেবারেই ফাকা গ্যালারিতে অবশ্য হবে, তা নয়। কয়েক হাজার শিশুকে মাঠে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

‘এ’ লিগের ৩ নম্বর গ্রুপের দুই রাউন্ডের খেলা শেষ হয়েছে। ৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে মানচিনির দল। ৩ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে হাঙ্গেরি।

তিন নম্বরে জার্মানির পয়েন্ট ২। তলানিতে ইংল্যান্ডের পয়েন্ট ১।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক