ফুটবলারদের চোখে বর্ষসেরা সালাহ

যেভাবে চেয়েছিলেন, মৌসুমের শেষটা ততটা আশানুরূপ হয়নি মোহামেদ সালাহর। তবে ব্যক্তিগত নৈপুণ্যে মৌসুম জুড়ে আলো ছড়িয়ে দারুণ সব পুরস্কার পাচ্ছেন লিভারপুল ফরোয়ার্ড। দ্বিতীয়বারের মতো প্রফেশনাল ফুটবলারস অ্যাসোসিয়েশনের (পিএফএ) বর্ষসেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 June 2022, 10:14 AM
Updated : 10 June 2022, 10:14 AM

নিজেদের ওয়েবসাইটে এক বিবৃতিতে বৃহস্পতিবার সালাহকে সেরা হিসেবে ঘোষণা করে পিএফএ। ইংলিশ ফুটবলে অসাধারণ অবদান রাখায় পুরস্কারটি দেওয়া হয়। প্রথমবার তিনি এর সেরা হয়েছিলেন ২০১৭-১৮ মৌসুমে।

ইংল্যান্ডে খেলা ফুটবলারদের ভোটে সেরা নির্বাচন করা হয়। মেয়েদের ফুটবলে বর্ষসেরা খেলোয়াড় হয়েছেন চেলসি ফরোয়ার্ড স্যাম কার।

প্রিমিয়ার লিগে শেষ রাউন্ড পর্যন্ত শিরোপা জয়ের সম্ভাবনা ছিল লিভারপুলের। তবে শেষ দিনে জিতেও আশা পূরণ হয়নি তাদের। ম্যানচেস্টার সিটির চেয়ে ১ পয়েন্টে পিছিয়ে থেকে রানার্সআপ হয় সালাহরা।

তাদের এই পথচলায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন সালাহ। লিগে ২৩ গোল করে টটেনহ্যাম হটস্পারের সন হিউং-মিনের সঙ্গে ছিলেন যৌথভাবে সর্বোচ্চ গোলদাতা।

লিগের পর হাত ছোঁয়া দুরুত্বে থেকে লিভারপুল হারায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপাও। ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে তারা হেরে যায় ১-০ গোলে।

তাই একসময় লিভারপুলের কোয়াড্রপল জয়ের সম্ভাবনা নিয়ে অনেক আলোচনা হলেও শেষ পর্যন্ত তারা ২০২১–২২ মৌসুম শেষ করে কেবল লিগ কাপ ও এফএ কাপ নিয়ে। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মৌসুমে ৩১ গোল করেন সালাহ।

বর্ষসেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হওয়ার অনুভূতি জানাতে গিয়ে পিএফএ-এর টুইটারে প্রকাশিত ভিডিওতে সালাহ বলেন, খেলোয়াড়দের দ্বারা নির্বাচিত হওয়ায় পুরস্কারটি তার কাছে বিশেষ মর্যাদার।

“এই পুরস্কার পাওয়া সত্যিই খুব আনন্দের, কারণ এখানে খেলোয়াড়রা ভোট দিয়েছে। এতে প্রমাণ হয় যে আমি আসলেই কঠোর পরিশ্রম করেছি এবং যা করেছি তার প্রতিদান পেয়েছি।”

এর আগে পিএফএ-এর ‘ফ্যানস প্লেয়ার অব দ্য ইয়ার অ্যাওয়ার্ড’ ও ফুটবল রাইটার্স অ্যাসোসিয়েশনের বিচারে বর্ষসেরা পুরুষ ফুটবলারের পুরস্কার পেয়েছেন সালাহ। প্রিমিয়ার লিগে মৌসুমের সেরা প্লেমেকারের পুরস্কারও জিতেছেন মিশরের এই তারকা।

২০২১-২২ মৌসুমে উইমেন’স সুপার লিগে সর্বোচ্চ ২০ গোল করেছেন কার। প্রথম অস্ট্রেলিয়ান খেলোয়াড় হিসেবে পিএফএ বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের খেতাব জিতলেন তিনি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক