হাঙ্গেরিকে হারিয়ে ইতালির প্রথম জয়

প্রথমার্ধে দারুণ ফুটবলে দুই গোলে এগিয়ে যাওয়া ইতালি বিরতির পর কিছুটা খেই হারাল। ব্যবধান কমিয়ে পয়েন্ট নিয়ে ফেরার আশা জাগাল হাঙ্গেরি। শেষ পর্যন্ত অবশ্য তেমন কিছু হলো না। উয়েফা নেশন্স লিগের এবারের আসরে নিজেদের প্রথম জয় তুলে নিল রবের্তো মানচিনির দল।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 June 2022, 08:38 PM
Updated : 7 June 2022, 09:23 PM

ঘরের মাঠে মঙ্গলবার রাতে ‘এ’ লিগের তিন নম্বর গ্রুপের ম্যাচটি ২-১ গোলে জিতেছে ইতালি।

নিকোলো বারেল্লা ও লরেন্সো পেল্লেগ্রিনির গোলে স্বাগতিকরা এগিয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধে জানলুকা মানচিনির আত্মঘাতী গোলে ব্যবধান কমায় হাঙ্গেরি।

সবশেষ সাত ম্যাচে ইতালির কেবল দ্বিতীয় জয় একটি; ড্র তিনটি, হার দুটি। ‘ফিনালিস্সিমা’ ট্রফির লড়াইয়ে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ৩-০ গোলে হারের পর নেশন্স লিগ অভিযানের শুরুতে জার্মানির বিপক্ষে ১-১ ড্র করেছিল তারা। ইংল্যান্ডকে হারিয়ে যাত্রা শুরু করেছিল হাঙ্গেরি।

জার্মানি ম্যাচ থেকে ছয়টি পরিবর্তন এনে খেলতে নামা ইতালি দ্বিতীয় মিনিটে প্রথম সুযোগ পায়। মাত্তেও পলিতানোর কর্নারে ডি-বক্সে ডিফেন্ডার মানচিনির হেডে বল সরাসরি গোলরক্ষক দেনেস দিবুসের বরাবর যায়।

২১তম মিনিটে পলিতানোর আরেকটি কর্নারে মানচিনির আরেকটি হেড, এবার দারুণ দক্ষতায় ফেরান দিবুস। চার মিনিট পর হাঙ্গেরির রোলান্দ সালাইয়ের নিচু শট ডান দিকে ঝাঁপিয়ে ঠেকান জানলুইজি দোন্নারুম্মা।

৩০তম মিনিটে বারেল্লার চমৎকার গোলে এগিয়ে যায় পরপর দুটি বিশ্বকাপে উঠতে ব্যর্থ হওয়া ইতালি। লিওনার্দো স্পিনাজ্জোলার পাস বক্সের বাইরে পেয়ে ইন্টার মিলানের এই মিডফিল্ডারের ডান পায়ের জোরাল শটে বল দূরের পোস্টের ওপরের কোণা দিয়ে জালে জড়ায়।

বিরতির আগে দ্বিগুণ হয় ব্যবধান। ডান দিক দিয়ে একজনকে কাটিয়ে বক্সে ঢুকে বাইলাইনের কাছাকাছি থেকে কাটব্যাক করেন পলিতানো। ছুটে গিয়ে ঠিকানা খুঁজে নেন পেল্লেগ্রিনি। প্রথম ম্যাচে জার্মানির বিপক্ষে দলের একমাত্র গোলটিও করেছিলেন রোমার এই মিডফিল্ডার।

দ্বিতীয়ার্ধের সপ্তম মিনিটে ব্যবধান কমানোর ভালো একটি সুযোগ পায় হাঙ্গেরি। সতীর্থের ক্রসে ডি-বক্সে সালাইয়ের ভলি ঝাঁপিয়ে ঠেকান দোন্নারুম্মা। পরের মিনিটে দুর্ভাগ্য বাঁধ সাধে স্বাগতিকদের। বক্সের বাইরে থেকে পলিতানোর বাঁ পায়ের জোরাল শটে বল ক্রসবারে লাগে।

৬১তম মিনিটে মানচিনির ওই আত্মঘাতী গোল। খানিক আগে বদলি নামা আতিলা ফিওলার ডান দিক থেকে বাড়ানো নিচু ক্রস ক্লিয়ার করার চেষ্টায় নিজেদের জালে বল পাঠান তিনি।

৬৯তম মিনিটে পাল্টা আক্রমণে আরেকটি সুযোগ তৈরি করে সফরকারীরা। সালাইয়ের শটে বল ক্রসবারের ওপর দিয়ে পাঠান দোন্নারুম্মা।

শেষ দিকে ব্যবধান আবার বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ আসে স্বাগতিকদের সামনে। দ্বিতীয়ার্ধে বদলি নামা মানুয়েল লোকাতেল্লির প্রচেষ্টা ঠেকান গোলরক্ষক।

১৫ বছর পর আন্তর্জাতিক ফুটবলে দেখা হলো দল দুটির। উপলক্ষটা জয়ে রাঙাল ইতালি। দুই দলের সবশেষ দেখায় ২০০৭ সালে প্রীতি ম্যাচে নিজেদের মাঠে ৩-১ গোলে জিতেছিল হাঙ্গেরি।

এবারের লড়াইয়ে বল দখলে পিছিয়ে থাকলেও আক্রমণে খুব একটা পিছিয়ে ছিল না তারা। গোলের জন্য হাঙ্গেরির ১২ শটের চারটি ছিল লক্ষ্যে। আর ইতালির ১৭ শটের ছয়টি লক্ষ্যে ছিল।

গ্রুপের আরেক ম্যাচে জার্মানির মাঠে শেষ দিকের গোলে ১-১ ড্র করেছে ইংল্যান্ড।

দুই ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে ইতালি। ৩ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে হাঙ্গেরি। তিন নম্বরে জার্মানির পয়েন্ট ২, ইংল্যান্ডের ১।

নিজেদের পরের ম্যাচে আগামী শনিবার ইংল্যান্ডের মাঠে খেলবে ইতালি। ঘরের মাঠে জার্মানির বিপক্ষে খেলবে হাঙ্গেরি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক