রোনালদোর গোলে অভিভূত কোচ

নিজের খরা কাটানো গোল। দলকে পথে ফেরানো গোল। চোখধাঁধানো কিছু না হলে কী আর চলে! দুর্দান্ত এক গোলেই আপন রূপে ফেরার আভাস দিলেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। তার এই গোল আর গোটা ম্যাচের পারফরম্যান্সে মুগ্ধ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কোচ রালফ রাংনিক।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Feb 2022, 06:23 AM
Updated : 16 Feb 2022, 08:16 AM

গোল করা যার কাছে অনেকটা শ্বাস নেওয়ার মতোই, সেই রোনালদোর দম বন্ধ করা প্রহর কেটেছে ম্যাচের পর ম্যাচে। যদিও বয়সের থাবা পারফরম্যান্সে পড়াটা অস্বাভাবিক নয়। ৩৭ বছর বয়সে আগের সেই ধারও থাকার কথা নয়। তার পরও, রোনালদোর মতো একজনের টানা ৬ ম্যাচে গোল না পাওয়া বিস্ময় জাগানিয়া বটেই।

অবশেষে সেই হতাশার সময় কাটিয়ে জালের দেখা পান তিনি মঙ্গলবার ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ অ্যালবিওনের বিপক্ষে। স্কট ম্যাকটমিনের কাছ থেকে বল পেয়ে চকিতে এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে খানিকটা জায়গা বানিয়ে নেন। এরপর বক্সের ওপরের দিক থেকে বাঁকানো শটে পরাস্ত করেন গোলকিপারকে।

পরে ব্রুনো ফের্নান্দেসের গোলে ব্যবধান বাড়ায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। লিগে টানা দুই ড্রয়ের পর জয়ে ফেরে তারা।

তবে দলের জয় ছাপিয়ে আলোচনার ঝড় রোনালদোর গোল নিয়েই। ঘিরে থাকা ডিফেন্ডারদের মধ্যে খুব বেশি জায়গা না পেয়েও যেভাবে গোলটি করেন তিনি, ব্যাকলিফট খুব একটা না নিতে পারলেও শটে যতটা জোর এবং যেভাবে নিখুঁত ফিনিশিং দেন, তাতে আরেকবার ফুটে ওঠে তার গ্রেটনেস।

ম্যাচ শেষে কোচ রাংনিকের প্রতিক্রিয়ায় বরাদ্দ থাকল রোনালদোর জন্য বড় প্রশংসা।

“অসাধারণ এক গোল। শুধু গুরুত্বপূর্ণ গোলই নয়, দুর্দান্ত এক গোল এবং আমার মনে হয়, সব মিলিয়েও ক্রিস্তিয়ানোর পারফরম্যান্স ছিল ভালো।”

এই ম্যাচের আগে গোল খরার সময়টাতেও রোনালদো মিইয়ে ছিলেন না বলেই জানালেন কোচ।

“প্রাণশক্তির দিক থেকে তার কমতি ছিল না। সে সক্রিয়ই ছিল এবং সবসময় সতীর্থদের সহায়তার চেষ্টা করছিল। তবে গত কয়েক সপ্তাহে এটি নিশ্চিতভাবেই তার সেরা পারফরম্যান্স এবং আমাদের জন্য খুব, খুবই গুরুত্বপূর্ণ গোল এটি।”

চলতি মৌসুমে লিগে এই নিয়ে রোনালদোর গোল হলো ৯টি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক