বাংলাদেশকে সহজেই হারাল কিরগিজস্তান

শুরুর একাদশে এলো চার পরিবর্তন। আগের ম্যাচের তুলনায় আক্রমণের ধার বাড়ল কিছুটা। ত্রিদেশীয় আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্টে প্রথম গোলের দেখাও পেল বাংলাদেশ। কিন্তু দিন শেষে ফলে এলো না কোনো পরিবর্তন। শক্তিশালী কিরগিজস্তানের বিপক্ষে হারের হতাশাই সঙ্গী হলো জেমি ডের দলের।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Sept 2021, 04:33 PM
Updated : 7 Sept 2021, 04:59 PM

কিরগিজস্তানের দোলন ওমরজাকোভ স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাগতিকদের বিপক্ষে ৪-১ গোলে হারে বাংলাদেশ। আগের ম্যাচে ফিলিস্তিনের বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে হেরেছিল তারা।

টানা দুই জয় পেল কিরগিজস্তান। ফিলিস্তিনকে ১-০ গোলে হারিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করেছিল তারা।

এ নিয়ে সবশেষ তিন ম্যাচেই কিরগিজস্তানের কাছে হারল বাংলাদেশ। এর আগে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ২০১৫ সালে প্রথম লেগে ৩-১ গোলে হারের পর ফিরতি লেগে ২-০ ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশ।

ফিলিস্তিনের বিপক্ষে দলের গোলপোস্ট আগলে রাখার দায়িত্বে ছিলেন অভিজ্ঞ গোলরক্ষক শহিদুল আলম সোহেল। এ ম্যাচে পোস্টের নিচে ফিরেন কোচের প্রথম পছন্দের গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো।

ডিফেন্ডার রেজাউল করিমের বদলে রিয়াদুল হাসান রাফি, ফরোয়ার্ড সাদউদ্দিনের জায়গায় মাহবুবুর রহমান সুফিল এবং মাঝমাঠে সোহেল রানার বদলে রাহবার ওয়াহেদ খানকে নামান কোচ। ফিলিস্তিন ম্যাচে কানাডা প্রবাসী এই মিডফিল্ডারের অভিষেক হয়েছিল বদলি হিসেবে।

বাংলাদেশের চেয়ে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ৮৭ ধাপ এগিয়ে থাকা কিরগিজস্তান এগিয়ে যায় দশম মিনিটে। ডি-বক্সের বাইরে থেকে আলিমার্দন শুকুরভের ফ্রি-কিকে বল তপু বর্মনের মাথার ওপর দিয়ে গিয়ে পড়ে এলদার মোল্দোঝুনুসোভের পায়ে। এই ফরোয়ার্ডের বাঁ পায়ের ট্যাবে পরাস্ত জিকো।

সপ্তদশ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ হতে পারত। এরনিস্তে বাতিরকানোভের আড়াআড়ি ক্রসে জিকো পরাস্ত হলে মোলদোঝুনুসোভ টোকা দেন। গোললাইন থেকে নিশ্চিত গোল সেভ করেন ডিফেন্ডার তপু।

২৭তম মিনিটে রাকিব হোসেনকে ভালো জায়গায় ক্রস দিয়েছিলেন ইয়াসিন আরাফাত। বল রাকিবের পায়ে পড়ার আগেই অবশ্য বিপদমুক্ত করেন স্বাগতিক ডিফেন্ডাররা।

কিছুটা আক্রমণাত্মক হতে গিয়ে ৪০তম মিনিটে দ্বিতীয় গোল হজম করে বাংলাদেশ। পাল্টা আক্রমণে বাংলাদেশের ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন কিরগিজ ডিফেন্ডার খায়রাত ইজাকভ। তাঁর কাটব্যাকে অনেকটা ফাঁকাতেই বল পান শুকুরোভ। বাঁ পায়ের শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন এই ফরোয়ার্ড।

বিরতির পরপরই ব্যবধান আরও বাড়িয়ে নেয় কিরগিজস্তান। ৪৬তম মিনিটে ডান দিক দিয়ে আক্রমণে ওঠা গুলজিগিত আলিকলুভ আড়াআড়ি ক্রস বাড়ান বক্সে। রুস্তমোভ তুরসুনালি ডান পায়ের প্লেসিং শটে লক্ষ্যভেদ করেন।

৫২তম মিনিটে ব্যবধান কমায় বাংলাদেশ। রহমত মিয়ার থ্রো ইনে কিরগিজস্তানের ডিফেন্ডার হেড করার পর বল পেয়ে যান সুফিল। প্রথম প্রচেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার পর এই ফরোয়ার্ডের ডান পায়ের শট আজারভ আজিমের পা ছুঁয়ে কিছুটা দিক পাল্টে জালে জড়ায়।

৬৯তম মিনিটে কিরগিজস্তানের একটি প্রচেষ্টা জিকোর গ্লাভস ছুঁয়ে প্রতিহত হয় ক্রসবারে লেগে।

তিন মিনিট পর ডান দিক দিয়ে গতি দিয়ে কিরগিজ ডিফেন্ডারকে পরাস্ত করে আক্রমণে ওঠা সুমন রেজা কাটব্যাক করেন বক্সে। বিপলু আহমেদ ব্যবধান কমানোর সুবর্ণ সুযোগ নষ্ট করেন ডিফেন্ডারের গায়ে মেরে।

৮৭তম মিনিটে জিকোর দৃঢ়তায় ব্যবধান বাড়েনি। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রে খেলা কিরগিজ ফরোয়ার্ড বখতিয়ার দুইশবেকভের ফ্রি কিক ঝাঁপিয়ে ফেরান বসুন্ধরা কিংস গোলরক্ষক।

দুই মিনিট পর কর্নারে বখতিয়ারের স্লাইডিং হেড জামাল ভূইয়ার মাথা ছুঁইয়ে জালে জড়ালে নিশ্চিত হয়ে যায় বাংলাদেশের বড় হার।

আগামী ‍বৃহস্পতিবার প্রতিযোগিতায় নিজেদের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে কিরগিজস্তানের অনূর্ধ্ব-২৩ দলের বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। আগামী অক্টোবরের সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ সামনে রেখে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে দল।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক