সাদাসিধে মেসি-রোনালদো, সিংহ হৃদয়ের নেইমার

মাঠে তিন জনই লড়াকু। এক চুলও ছাড় মিলবে তাদের কাছ থেকে। কিন্তু মাঠের বাইরে? তিন জনকেই কাছ থেকে দেখা আনহেল দি মারিয়ার চোখে লিওনেল মেসি ও ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো হলেন সাদাসিধে আর নেইমার হলেন বিশাল হৃদয়ের।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 Sept 2021, 04:25 PM
Updated : 2 Sept 2021, 04:25 PM

ক্লাব ফুটবলে রিয়াল মাদ্রিদ অধ্যায়ে রোনালদোকে সতীর্থ হিসেবে পেয়েছিলেন আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার দি মারিয়া। পিএসজিতে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড নেইমার তার সতীর্থ। জাতীয় দলের পাশাপাশি গত মাস থেকে ক্লাবেও সতীর্থ হিসেবে পাচ্ছেন মেসিকে।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে অংশ নিতে বর্তমানে জাতীয় দলের সঙ্গে আছেন দি মারিয়া। স্বদেশি পত্রিকা টিওয়াইসি স্পোর্টসকে সম্প্রতি দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিন তারকা সম্পর্কে ধারণা দিলেন ৩৩ বছর বয়সী এই ফুটবলার।

স্বাভাবিকভাবেই জাতীয় দলের সতীর্থ মেসির সঙ্গেই সম্পর্কটা বেশি গভীর।

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো (ডানে) ও আনহেল দি মারিয়া যখন রিয়াল মাদ্রিদ সতীর্থ।

“আমি সবসময় তাকে (মেসিকে) ডাকি ‘টিচ’ নামে। শুরু থেকেই নয়, যখন আমরা বন্ধু হলাম তখন থেকে। আর সে আমাকে ডাকে ‘নুডল’ নামে এবং আমি মনে করি, এখন থেকে সবসময় এভাবেই চলবে।”

“সে সাধারণ ছেলেদের মত, এবং এভাবেই থাকতে সে পছন্দ করে। সে শিরোনামে আসতে চায় না; এই কারণে যে তার সাথে অন্যদের মত করে মিশে তাকে সে বেশি পছন্দ করে। কারণ, যদি তাকে একজন ফুটবলার, একজন ভিনগ্রহী হিসেবে মূল্যায়ন করেন, তার মানে আপনি তার বলয়ের বাইরে চলে গেলেন। এর চেয়ে সে একসঙ্গে খেতে, মজা করতে, হাসাহাসি করতে ভালোবাসে।”

দি মারিয়ার কাছে ফুটবলার মেসি এই গ্রহের কেউ নন কিন্তু বন্ধু হিসেবে খুবই কাছের।

“আমরা সবাই একসঙ্গে মজা করি, আর গণমাধ্যমে তাকে বলি ভিনগ্রহী, আসলেই সে তাই, তবে শেষ পর্যন্ত সে কেবল লিওই, সে ‘টিচ’ এবং আমরা তার সঙ্গে সেভাবেই মিশি।”

পিএসজি সতীর্থ নেইমারের (ডানে) সঙ্গে আনহেল দি মারিয়া।

পাঁচবারের বর্ষসেরা ও আন্তর্জাতিক ফুটবলের সর্বোচ্চ গোলদাতা রোনালদো সম্পর্কে বলতে গিয়ে একটা ঘটনা স্মরণ করেন দি মারিয়া।

“মাদ্রিদে আমার প্রথম জন্মদিনে ক্রিস্তিয়ানোকে দাওয়াত করি। ভাবিনি সে আসবে, কিন্তু সে আমাকে ক্ষুদেবার্তা পাঠালো যে আসবে।”

“সে আমার বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিচ্ছিল যেন সে তাদেরই একজন। এটা আমাকে বিস্মিত করেছিল। মাঠে সবসময় সে সেরা হতে চায়। মাঠের বাইরে সে ভিন্ন ধরনের।”

অনেক দিন এক সঙ্গে খেলায় নেইমার সম্পর্কেও খুব ভালো ধারণা আছে দি মারিয়ার। তার কাছে ব্রাজিলিয়ান তারকা প্রাণবন্ত একজন মানুষ। 

“নেইমার তেমন যেমনটা তাকে দেখেন। সে সবসময় খুশি, বিশাল হৃদয়ের এক ব্রাজিলিয়ান।”

“সে মেধাবী, অসাধারণ একজন ব্যক্তি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক